কলকাতা

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

অতিমারীর জেরে স্তব্ধ শিক্ষক নিয়োগ, শিক্ষামন্ত্রীর ফেসবুক পেজে লিখে প্রতিবাদ প্রার্থীদের

অতিমারীর জেরে স্তব্ধ শিক্ষক নিয়োগ, শিক্ষামন্ত্রীর ফেসবুক পেজে লিখে প্রতিবাদ প্রার্থীদের

প্রায় তিন বছরের বেশি সময় ধরে আটকে রয়েছে স্কুল সার্ভিস কমিশনের মাধ্যমে উচ্চ প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া। উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে শূন্য পদ রয়েছে ১৪ হাজারেরও বেশি।

  • Share this:

#কলকাতাঃ দেশজুড়ে করোনাভাইরাস মোকাবিলার জন্য লক ডাউন চলছে। আর সেই লক ডাউনের জেরে রাস্তায় নেমে আন্দোলন আপাতত বন্ধ শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া অন্তর্ভুক্ত প্রার্থীদের। তাই এবার শিক্ষামন্ত্রীর ফেসবুক পেজকেই আন্দোলনের অন্যতম হাতিয়ার হিসেবে বেছে নিলেন উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের প্রার্থীরা।গত কয়েকদিন ধরেই লাগাতার শিক্ষামন্ত্রীর ফেসবুক পেজে উচ্চ প্রাথমিকের নিয়োগ করার দাবি নিয়ে লিখতে শুরু করেছেন প্রার্থীরা। ইতিমধ্যেই এক হাজারের বেশি প্রার্থী শিক্ষামন্ত্রীর ফেসবুক পেজে লিখে প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তবে উত্তর দিতে দেরিও করেননি শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। ফেসবুক পেজে রাজ্যের অবস্থান স্পষ্ট করে তিনি লিখে জানিয়েছেন "নিয়োগ আটকে আছে আদালতের হাতেই। রাজ্য প্রস্তুত আছে নিয়োগের ব্যাপারে" যদিও শিক্ষামন্ত্রী এই উত্তর অনেকেরই নজর এড়িয়ে গেছে। শিক্ষামন্ত্রী এই উত্তরের পর এখনও ফেসবুক পেজে নিয়োগের দাবি নিয়ে লিখে যাচ্ছেন প্রার্থীরা। এ প্রসঙ্গে শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন "যা বলার ফেসবুক পেজেই বলে দিয়েছি। তাই আর নতুন করে কিছু বলার নেই।"

প্রায় তিন বছরের বেশি সময় ধরে আটকে রয়েছে স্কুল সার্ভিস কমিশনের মাধ্যমে উচ্চ প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া। উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে শূন্য পদ রয়েছে ১৪ হাজারেরও বেশি। একদফা আইনি জটিলতা কাটিয়ে গতবছর ঠিক পুজোর আগেই স্কুল সার্ভিস কমিশনের তরফে মেধা তালিকা প্রকাশ করা হয়। কিন্তু সেই মেধাতালিকায় অস্বচ্ছতার অভিযোগ এনে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন কয়েকজন প্রার্থী। কমিশন মেধাতালিকা প্রকাশ করলেও এই মামলায় আদালতের তরফে এখনও পর্যন্ত স্থগিতাদেশ রয়েছে। যদিও কমিশনের তরফে হাইকোর্টের কাছে এই মামলার নিষ্পত্তি দ্রুত করার আবেদন রাখা হয়েছে। কিন্তু আপাতত লক ডাউনের জেরে মামলার শুনানি বন্ধ। ফলে প্রার্থী নিয়োগের মামলা কবে নিষ্পত্তি হবে তা  নিয়ে  নিসঘছয়তা নেই কোনও।

আর এই অতিমারীর জেরে বিপাকে পড়েছে হাজার হাজার চাকুরী প্রার্থী। ইতিমধ্যেই লক ডাউনের জেরে অনেকটাই পিছিয়ে যেতে চলেছে উচ্চ প্রাথমিকের নিয়োগ প্রক্রিয়া। অন্তত এমনটাই  আশঙ্কা করছে স্কু্ল শিক্ষা দফতরের আধিকারিকরা। তবে এবার শিক্ষামন্ত্রীর ফেসবুক পেজে দ্রুত নিয়োগের আবেদন জানিয়ে লেখালেখি শুরু করেছে স্কুল সার্ভিস কমিশনের আবেদনকারী প্রার্থীরা। শিক্ষামন্ত্রী অবশ্য হাইকোর্টের দিকেই আঙুল তুলেছেন এই দেরির জন্য।

SOMRAJ BANDOPADHYAY

Published by: Shubhagata Dey
First published: April 22, 2020, 2:46 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर