• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • নির্বিঘ্নে ভ্যাকসিন পৌঁছতে স্পাইসজেট-ব্রাসেলস বিমানবন্দর চুক্তি

নির্বিঘ্নে ভ্যাকসিন পৌঁছতে স্পাইসজেট-ব্রাসেলস বিমানবন্দর চুক্তি

শুকনো কার্বন-ডাই-অক্সাইডে মুড়ে পর্যাপ্ত সাবধানতার মধ্যে দিয়েই এসেছে ভ্যাকসিন। সঙ্গে ছিল পর্যাপ্ত পরিমাণে সিরিঞ্জ।

শুকনো কার্বন-ডাই-অক্সাইডে মুড়ে পর্যাপ্ত সাবধানতার মধ্যে দিয়েই এসেছে ভ্যাকসিন। সঙ্গে ছিল পর্যাপ্ত পরিমাণে সিরিঞ্জ।

শুকনো কার্বন-ডাই-অক্সাইডে মুড়ে পর্যাপ্ত সাবধানতার মধ্যে দিয়েই এসেছে ভ্যাকসিন। সঙ্গে ছিল পর্যাপ্ত পরিমাণে সিরিঞ্জ।

  • Share this:

SHALINI DATTA

#কলকাতা: কোভিডের ভ্যাকসিন নির্বিঘ্নে ইওরোপ, ভারত এবং অন্যান্য দেশে পৌঁছে দিতে এ বার ব্রাসেলস বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হল স্পাইসজেট। ব্রাসেলস বিমানবন্দর সূত্রে একটি বিবৃতিতে এ কথা জানিয়ে বলা হয়েছে, স্পাইসজেটের সঙ্গে যৌথ ভাবে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন দেশের সরকার এবং ওষুধের কোম্পানিগুলির সঙ্গে সমন্বয় রেখে নির্বিঘ্নে ভ্যাকসিন সরাসরি পৌঁছে দেওয়ার কাজ করবে। এ জন্য স্পাইসজেটকে বিমানবন্দরে অনুকূল পরিবেশের ব্যবস্থাও করা হবে। এ জন্য দু'পক্ষের মধ্যে একটি মউ চুক্তিও স্বাক্ষর হয়েছে।

স্পাইসজেটের সিএমডি অজয় সিং বলেন, "এই চুক্তির ফলে শুধু যে ভ্যাকসিন ভারত এবং ইওরোপ ও অন্যান্য দেশে নির্বিঘ্নে সরবরাহ করতে সুবিধে হবে তা নয়, এর ফলে ভারত থেকে অনেক স্পর্শকাতর ওষুধ রফতানিতেও বিশেষ সুবিধে হবে।" মঙ্গলবার দুপুরে কলকাতায় স্পাইসজেটের বিমানেই পৌঁছয় ভ্যাকসিন। বিমানবন্দর সূত্রে খবর, স্পাইসজেটের এসজি7450 উড়ানে কলকাতায় ভ্যাকসিন পৌঁছে দিয়েই উড়ানটি চলে যায় গুয়াহাটিতে। সেখানে উত্তর-পূর্ব ভারতের জন্য ভ্যাকসিন পৌঁছে দেয় উড়ানটি।

রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, শুকনো কার্বন-ডাই-অক্সাইডে মুড়ে পর্যাপ্ত সাবধানতার মধ্যে দিয়েই এসেছে ভ্যাকসিন। সঙ্গে ছিল পর্যাপ্ত পরিমাণে সিরিঞ্জ। কলকাতা বিমানবন্দরে নামার পরেই ভ্যাকসিন চলে যায় বাগবাজারে, স্বাস্থ্য দফতরের নির্দিষ্ট গুদাম-কেন্দ্রে। সেখান থেকে ভ্যাকসিন কাল থেকেই পাঠানো শুরু হয়েছে জেলায় জেলায়। ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকার ভ্যাকসিন সরবরাহ এবং তা দেওয়ার জন্য মুখ্যসচিবের নেতৃত্বে একটি টাস্ক ফোর্স তৈরি করেছে। একই ভাবে জেলায় জেলায় টাস্ক ফোর্স তৈরি হয়েছে। এই টাস্ক ফোর্সই রাজ্য জুড়ে ভ্যাকসিন দেওয়ার সুষ্ঠু ব্যবস্থা নিশ্চিত করবে।

রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের এক কর্তা বলেন, "প্রথম ধাপে ভ্যাকসিনের সমস্ত খরচ বহন করছে কেন্দ্রীয় সরকার। ভ্যাকসিন দেওয়া শুরু হবে শনিবার। এই ধাপে রাজ্যে ৬.৮৯ লক্ষ ভ্যাকসিন এসেছে।" এ বার টাস্ক ফোর্সই রাজ্য জুড়ে ভ্যাকসিন দেওয়ার সুষ্ঠু ব্যবস্থা নিশ্চিত করবে।

Published by:Simli Raha
First published: