• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • SCHOOL EDUCATION DEPARTMENT APPOINTED SECRETARY FOR MADHYA SIKSHA PARSHAD SDG

School Education Department: মধ্যশিক্ষা পর্ষদে রদবদল! ৪ বছর পর পেল সচিব, কী পরিকল্পনা স্কুল শিক্ষা দফতরের?

মধ্যশিক্ষা পর্ষদে রদবদল। নিবেদিতা ভবন। ফাইল ছবি।

চার বছর পর মধ্যশিক্ষা পর্ষদ স্থায়ী সচিব পেল। আমহার্স্টস্ট্রিট সিটি কলেজের অধ্যাপক সুব্রত ঘোষকে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের নয়া সচিব হিসেবে নিয়োগ করা হয়েছে।

  • Share this:

#কলকাতা: করোনা পরিস্থিতিতে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের কাজে গতি বাড়াতে নয়া পরিকল্পনা ইতিমধ্যেই নিতে শুরু করেছে রাজ্য স্কুল শিক্ষা দফতর। তারই মধ্যে চার বছর পর মধ্যশিক্ষা পর্ষদ স্থায়ী সচিব পেল। শুক্রবার রাজ্য স্কুল শিক্ষা দফতরের তরফে এমনটাই নির্দেশিকা জারি করা হয়। আমহার্স্টস্ট্রিট  সিটি কলেজের অধ্যাপক সুব্রত ঘোষকে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের নয়া সচিব হিসেবে নিয়োগ করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সচিব হিসেবে আগে দায়িত্ব পালন করেছেন সিটি কলেজের এই অধ্যাপক।

এ বার মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সচিব হিসেবে তাকে নিয়োগ করা হল। পাশাপাশি পর্ষদের ad-hoc কমিটিতেও সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজিয়েট স্কুলের এক শিক্ষিকাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। সম্ভবত বোর্ডের ad-hoc কমিটিকে আরও মজবুত করার জন্যই এই সিদ্ধান্ত। পাশাপাশি মধ্যশিক্ষা পর্ষদের ডেপুটি সেক্রেটারি অ্যাকাডেমিকসকে সরানো হয়েছে বলেও জানা গিয়েছে।

প্রতিবছরই মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ক্রমশই বেড়ে চলেছে। এ বছরও মধ্যশিক্ষা পর্ষদের অধীনে মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ১২ লক্ষের কাছে গিয়ে পৌঁছবে বলে অনুমান পর্ষদের আধিকারিকদের। সেক্ষেত্রে পর্ষদের কাজ করার পরিধিও অনেকটাই বাড়ছে। আর সব দিক মাথায় রেখে মধ্যশিক্ষা পর্ষদকে নতুন করে সাজানোর পরিকল্পনা নিল রাজ্য স্কুল শিক্ষা দফতর। তার জন্যই চার বছর বাদে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের নয়া সচিব নিয়োগ করার পাশাপাশি প্রশাসনে রদবদলের একাধিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

স্কুল শিক্ষা দফতর সূত্রে খবর, নয়া সচিব হিসেবে নিয়োগ করার প্রস্তাব অনেক বছর আগেই দিয়েছিল পর্ষদ। অবশেষে ৪ বছর বাদে নয়া সচিব পেল পর্ষদ। পাশাপাশি বোর্ড কমিটির মেয়াদ বাড়ানোর পাশাপাশি পর্ষদ সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়ের মেয়াদ একই সঙ্গে বেড়ে যাবে বলেই বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন। ইতিমধ্যেই মাধ্যমিকের মূল্যায়ন চলতি বছরে কী হবে তা নিয়ে সিদ্ধান্ত জানিয়েছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। নবম শ্রেণীর পরীক্ষার ফলাফল এবং দশম শ্রেণীর ইন্টার্নাল সামেটিভ ইভ্যালুয়েশন...এই দুইয়ের নিরিখেই ছাত্র-ছাত্রীদের এ বছরের মাধ্যমিকের নম্বর দেওয়া হবে।

ইতিমধ্যেই রাজ্যর স্কুলগুলির অধিকাংশ স্কুল নবম শ্রেণীর নম্বর জমা দিয়েছে পর্ষদে। যদিও ৬০০ স্কুলের ক্ষেত্রে নম্বর পরিবর্তনের অভিযোগ উঠেছে। যার জেরে ওই স্কুলগুলি যাতে নতুন করে ছাত্রছাত্রীদের নম্বর জমা দিতে পারে তার জন্য ২৪ ঘন্টা সময়সীমা ধার্য করেছে পর্ষদ। সেক্ষেত্রে পর্ষদের তরফের সতর্ক করে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যদি নম্বর পরিবর্তন করে নম্বর পাঠানো না হয়, সেক্ষেত্রে স্কুলগুলির বিরুদ্ধে শাস্তি মূলক পদক্ষেপ নিতে পারে পর্ষদ। আধিকারিকদের একাংশের মতে পর্ষদের নয়া সচিব নিয়োগ এবং পাশাপাশি আরও নতুন নিয়োগের জেরে কাজে গতি বাড়বে।

সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by:Shubhagata Dey
First published: