Home /News /kolkata /
Sadhan Pande: প্রয়াত রাজ্যের প্রবীণ মন্ত্রী সাধন পান্ডে, শোকপ্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী, রাজ্যপাল

Sadhan Pande: প্রয়াত রাজ্যের প্রবীণ মন্ত্রী সাধন পান্ডে, শোকপ্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী, রাজ্যপাল

প্রয়াত সাধন পান্ডে৷

প্রয়াত সাধন পান্ডে৷

শারীরিক অসুস্থতা সত্ত্বেও ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনেও নিজের কেন্দ্র মানিকতলা থেকে জয়ী হয়েছিলেন সাধন পান্ডে (Sadhan Pande Passes Away)৷

  • Share this:

#কলকাতা: প্রয়াত রাজ্যের প্রবীণ মন্ত্রী সাধন পান্ডে (Sadhan Pande Passes Away)৷ তাঁর বয়স হয়েছিল ৭১৷ আজ মুম্বইয়ের একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি৷ ফুসফুসের সংক্রমণের সমস্যা নিয়ে মুম্বইয়ের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন রাজ্যের প্রবীণ মন্ত্রী৷ দীর্ঘদিন ধরেই কিডনি সহ বিভিন্ন শারীরিক সমস্যায় ভুগছিলেন রাজ্যের এই প্রবীণ মন্ত্রী (Sadhan Pande)৷

সাধন পান্ডের মৃত্যুতে গভীর শোকপ্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)৷ রাজ্যের প্রবীণ মন্ত্রীর মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করেছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ও৷

শারীরিক অসুস্থতা সত্ত্বেও ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনেও নিজের কেন্দ্র মানিকতলা থেকে জয়ী হয়েছিলেন সাধন পান্ডে৷ মন্ত্রিসভায় জায়গাও পেয়েছিলেন তিনি৷ তাঁকে ক্রেতাসুরক্ষা এবং স্বনির্ভর গোষ্ঠী ও স্বনিযুক্তি দফতরের দায়িত্ব দেওয়া হয়৷ ২০১১ সালে তৃণমূল ক্ষমতায় আসার পর থেকেই রাজ্যের ক্রেতা সুরক্ষা মন্ত্রীর দায়িত্ব সামলেছেন প্রবীণ এই মন্ত্রী৷

যদিও সাধন পান্ডের অসুস্থতার কারণে পরবর্তী সময়ে ক্রেতাসুরক্ষা ও স্বনির্ভর দফতরের দায়িত্ব দেওয়া হয় সুব্রত মুখোপাধ্যায়কে৷ কিন্তু তাঁর প্রয়াণে ফের ওই দুই দফতরের হাত বদল হয়৷ ফলে দফতরহীন মন্ত্রী হিসেবেই থেকে গিয়েছিলেন সাধন পান্ডে৷

সাধন পান্ডের মৃ্ত্যুতে শোকজ্ঞাপন করে মুখ্যমন্ত্রী ট্যুইটারে লেখেন, 'আমাদের প্রবীণ সতীর্থ, দলের নেতা এবং ক্যাবিনেট মন্ত্রী সাধন পান্ডে আজ সকালে মুম্বইতে প্রয়াত হয়েছেন৷ তাঁর সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে অসাধারণ সম্পর্ক ছিল৷ এই ক্ষতিতে গভীর ভাবে ব্যথিত৷ তাঁর পরিবার, বন্ধু এবং অনুগামীদের আমার আন্তরিক সমবেদনা জানাই৷'

সাধন পান্ডের প্রয়াণে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফে  প্রকাশিত শোকবার্তায় মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, 'দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক সহকর্মী সাধনদার সঙ্গে আমার অত্যন্ত হৃদ্য সম্পর্ক ছিল। তাঁর মৃত্যুতে রাজনৈতিক  জগতের  অপূরণীয় ক্ষতি হল।  আমি আমার অগ্রজকে হারালাম।'

মানিকতলার আগে বড়তলা কেন্দ্র থেকে পাঁচবার বিধায়ক নির্বাচিত হন সাধন পান্ডে৷

সাধন পান্ডের মৃত্যুতে শোকজ্ঞাপন করেছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ও৷ ট্যুইটারে তিনি লেখেন, 'আজ রাজ্যের প্রবীণ মন্ত্রী সাধন পান্ডের মৃত্যু সংবাদে আমি গভীর ভাবে ব্যথিত৷ রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠে তাঁর সঙ্গে আমার দারুণ ব্যক্তিগত সম্পর্ক ছিল৷ তাঁর পরিবার, বন্ধু এবং অনুগামীদের আন্তরিক সমবেদনা জানাই৷ ওম শান্তি!'

১০ বছর আগে কিডনি প্রতিস্থাপন করা হয়েছিল সাধন পান্ডের। তারপরে সাবধানে থাকতেন তিনি। বিধানসভা ভোটের প্রচারের সময়েও একবার অসুস্থ হয়ে পড়েন। গত জুলাই মাসের মাঝামাঝি ফের গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন সাধন পান্ডে। ফুসফুসের সংক্রমণে আক্রান্ত মন্ত্রীকে ১৬ জুলাই রাতে কলকাতার এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। করোনাতেও আক্রান্ত হন তিনি৷ কয়েক দিন ভেন্টিলেশনে রাখা হয় তাঁকে। সেপ্টেম্বরে মুম্বইয়ের এক হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। সেখানেই আজ সকাল ১০.৩৫ মিনিট নাগাদ মৃত্যু হয় তাঁর৷

সাধন পান্ডের দেহ আজই কলকাতায় নিয়ে আসা হবে বলে খবর৷ দমদম বিমানবন্দরে তাঁর পরিবারের লোকজন দেহ নিয়ে আসবেন৷ সেখানে উপস্থিত থাকবেন রাজ্যের দমকল মন্ত্রী সুজিত বসু এবং রাজ্যের নারী ও শিশুকল্যাণ দপ্তরের মন্ত্রী শশী পাঁজা৷ তারপর প্রয়াত মন্ত্রীর দেহ নিয়ে যাওয়া হবে পিস ওয়ার্ল্ডে৷ সেখানে আজ রাতে সাধন পান্ডের মরদেহ শায়িত থাকবে৷ আগামিকাল তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Sadhan pande

পরবর্তী খবর