Home /News /kolkata /
East West Metro || এক সপ্তাহ গড়াতেই ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর যাত্রী সংখ্যা পেরলো ৪০ হাজার, সৌজন্যে ২১ জুলাই 

East West Metro || এক সপ্তাহ গড়াতেই ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর যাত্রী সংখ্যা পেরলো ৪০ হাজার, সৌজন্যে ২১ জুলাই 

East West Metro || এসপ্ল্যানেড, চাঁদনি চক, দক্ষিণেশ্বর, দমদম, কালীঘাট, গড়িয়ার মতো স্টেশন ব্যবহারকারীদের সংখ্যা ছিল সবচেয়ে বেশি৷ বিশেষ করে এসপ্ল্যানেড স্টেশনে সকাল থেকে বিকেল ৩টে পর্যন্ত হাজার হাজার যাত্রী ওঠা নামা করেছেন। এঁদের একটা বড় অংশ সমাবেশে যোগ দিতেই গিয়েছিলেন  বলে মত রেলের।

আরও পড়ুন...
  • Share this:

#কলকাতা: ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর চাকা গড়াতেই গ্রিন লাইনে যাত্রী সংখ্যা ৪০ হাজার পেরিয়ে গেল। ২১ জুলাই সমাবেশে একটা বড় অংশের মানুষ ব্যবহার করেছেন মেট্রোপথ৷ সেক্টর ফাইভ থেকে শিয়ালদহ পর্যন্ত নয়া মেট্রোপথে যাত্রীর সংখ্যা ৪০ হাজারের গন্ডি পেরিয়ে গিয়েছে৷ মেট্রো রেল সূত্রে খবর, ইস্টওয়েস্ট পথে বৃহস্পতিবার যাত্রী সংখ্যা ছিল ৪১ হাজার ৯৫৬ জন৷ সাধারণত মেট্রো চালুর পর থেকে যাত্রী সংখ্যার গড় ছিল ৩০ হাজারের আশেপাশে। এক ধাক্কায় সেই গড় ছাপিয়ে প্রায় ১০ হাজার যাত্রী বাড়িয়ে নিল তৃণমূল কংগ্রেস। সব মিলিয়ে যাত্রী মেলায় খুশি মেট্রোরেল।

মেট্রোরেলের তরফে জানানো হয়েছে ধীরে ধীরে শিয়ালদহ মেট্রো স্টেশন ব্যবহারকারীর সংখ্যা বাড়ছে। বৃহস্পতিবারের ছবি বলছে যাত্রী বেশি ছিল শিয়ালদহ, করুণাময়ী ও সেন্ট্রাল পার্ক মেট্রো স্টেশন থেকে। অন্যদিকে উত্তর-দক্ষিণ মেট্রোপথেও যাত্রী ছিল ৫ লক্ষের উপরে। সাধারণত এই পথে যাত্রী হচ্ছিল ৪ লক্ষ ৮০ হাজারের কাছাকাছি। সেই সংখ্যা ছাপিয়ে গিয়েছে। ২১ জুলাই সমাবেশে যাত্রী হয়েছে ৫ লক্ষ ২ হাজার ৩০ জন। এসপ্ল্যানেড, চাঁদনি চক, দক্ষিণেশ্বর, দমদম, কালীঘাট, গড়িয়ার মতো স্টেশন ব্যবহারকারীদের সংখ্যা ছিল সবচেয়ে বেশি৷ বিশেষ করে এসপ্ল্যানেড স্টেশনে সকাল থেকে বিকেল ৩টে পর্যন্ত হাজার হাজার যাত্রী ওঠা নামা করেছেন। এঁদের একটা বড় অংশ সমাবেশে যোগ দিতেই গিয়েছিলেন  বলে মত রেলের। তবে অফিসযাত্রীও ছিলেন৷

আরও পড়ুন: জেব্রার পালের মধ্যে বাঘটাকে চোখে পড়ছে? দৃষ্টিশক্তি আর বুদ্ধিমত্তার পরীক্ষায় আজ বসবেন না কি?

আরও পড়ুন: হার মানবে সিনেমাও! দিনেদুপুরে ঘোড়ার পিঠে উঠে বসল কুকুর! ভাইরাল ভিডিওতে উত্তাল নেটদুনিয়া

২১ জুলাই ভিড় হবে ধরে নিয়েই মেট্রোয় যাবতীয় ব্যবস্থা রেখেছিল রেল। অতিরিক্ত টিকিট কাউন্টার, অতিরিক্ত কর্মী এমনকি যাত্রীদের সুবিধায় ছিল প্রচুর নিরাপত্তা রক্ষীও৷ ফলে ভিড় থাকলেও অসুবিধা হয়নি মেট্রো ব্যবহারকারীদের। মেট্রো রেলের আধিকারিকরা জানাচ্ছেন, বাস, ট্যাক্সির সংখ্যা কম ছিল। অ্যাপ ক্যাবের ভাড়া যথাযথ নয়৷ এই অবস্থায় মেট্রো ছিল শহরের বিভিন্ন প্রান্তে যাতায়াতের সহজ উপায়৷ তাই বেশিরভাগ মানুষ মেট্রো ব্যবহার করেছেন। আগামী দিনে যাত্রী আরও বাড়বে বলে আশাবাদী তাঁরা৷

Published by:Rachana Majumder
First published:

Tags: East-West Metro

পরবর্তী খবর