Home /News /kolkata /

গুজব ঠেকাতে দাওয়াই সাইবার বিশেষজ্ঞদের, কড়া আইন আনার ভাবনা

গুজব ঠেকাতে দাওয়াই সাইবার বিশেষজ্ঞদের, কড়া আইন আনার ভাবনা

ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে ছড়াচ্ছে গুজবের জাল।

  • Share this:

    #কলকাতা: ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে ছড়াচ্ছে গুজবের জাল। তাতে আইন নিজের হাতে তুলে নিচ্ছেন অনেকেই। কোন দাওয়াইয়ে জালে পোরা যাবে গুজব-চক্রের পাণ্ডাদের? তার পথ বলে দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। সোশ্যাল মিডিয়ায় নিয়ন্ত্রণ রাখতে গেলে, নতুন আইন করতে হবে কেন্দ্রীয় সরকারকে।

    ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপের মতো সোশ্যাল মিডিয়ায় লাগাতার চলছে গুজব। তাতে ভর করেই দৌড়চ্ছে জনরোষ। কিন্তু, গ্রেফতার করা যাবে এমন গুজব-চক্রের পাণ্ডাদের? একইসঙ্গে বিশেষজ্ঞদের মত, কেন্দ্রীয় সরকারকেই তৈরি করতে হবে নয়া নীতি। কোন পথে ধরা যাবে এমন গুজব-চক্রকে? কোন পথে সন্ধান? - স্থানীয় কোনও গোষ্ঠী হলে, ইন্টারনেট প্রোটোকল অ্যাড্রেসের মাধ্যমে সার্ভারের খোঁজ মিলবে - তা থেকেই জানা যাবে গুজব যারা ছড়াচ্ছে তাদের পরিচয় - তবে, বিদেশি কোনও চক্র কাজ করলে তাদের ধরা সহজসাধ্য নয় - কেন্দ্রের নির্দিষ্ট নীতি থাকলে ফেসবুক বা হোয়াটস অ্যাপকেও তথ্য সরবরাহে বাধ্য করা যাবে

    কেমন হবে নয়া নীতি? - সোশ্যাল মিডিয়ায় অপত্তিকর শব্দের একটি তালিকা তৈরি করতে হবে - তাতে ফেসবুক বা হোয়াটসঅ্যাপ নিজে নিজেই সেই শব্দগুলি ব্লক করে দেব - ফলে, এমন পোস্ট অনেকটা এড়ানো যাবে - সোশ্যাল সাইট ব্যবহারকারীদের মধ্যে সচেতনতা বাড়াতে হবে - বিভিন্ন সোশ্যাল সাইটগুলির প্রাইভেসি অপশন সম্পর্কে জানতে হবে - মোবাইলে যে ফোন নম্বর দিয়ে লগ ইন করা হয় তা ভেরিফাই করা প্রয়োজন - উপযুক্ত নথির বদলেই সিমকার্ড মিলবে, এমন নিয়ম চালু করতে হবে

    শক্তপোক্ত আইন হলে ঠেকানো যাবে গুজবের বাড়বাড়ন্ত। কিন্তু, নানা বাধায় তা যে হিমালয় পেরনোর মতো শক্ত তা মানছেন বিশেষজ্ঞরা।

    First published:

    Tags: Death, Murdered Because of Death, Rumour, Rumours on Social Media, Social Media

    পরবর্তী খবর