‘সানাকে এসবের বাইরে রাখুন, ও বাচ্চা মেয়ে রাজনীতি বোঝে না’, ট্যুইটারে আর্জি সৌরভের

‘সানাকে এসবের বাইরে রাখুন, ও বাচ্চা মেয়ে রাজনীতি বোঝে না’, ট্যুইটারে আর্জি সৌরভের

মেয়ের এই পোস্টে জল অনেক দূর গড়াতে পারে বুঝেই আগেভাগে সাবধানী মহারাজের ট্যুইট ৷

  • Share this:

#কলকাতা: সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে প্রতিবাদে জ্বলছে দেশ ৷ প্রতিবাদ, বিক্ষোভ, মিছিল, মিটিং, স্লোগানের হুঙ্কার ধ্বনিত হচ্ছে কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারি ৷ তার মাঝে সৌরভ কন্যা সানার বলিষ্ঠ পোস্টে চাঞ্চল্য ছড়ায় সোশ্যাল মিডিয়ায় ৷ বিতর্কের জল গড়াতে না গড়াতেই তড়িঘড়ি নেটিজেনদের কাছে পিতা সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের আর্জি, তাঁর বাচ্চা মেয়ে সানাকে এসবের বাইরে রাখার ৷ সৌরভের মতে, সানা এখনও অনেক ছোট ৷ রাজনীতির গভীরতা বোঝার মতো বয়স তাঁর হয়নি ৷

সবে ১৮-য় পা দিয়েছেন সৌরভকন্যা সানা ৷ কিন্তু ইতিমধ্যেই তাঁর বলিষ্ঠ কন্ঠস্বরের প্রশংসায় ভরিয়ে দিচ্ছেন নেটিজেনরা ৷ নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের তীব্র প্রতিবাদ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় এদিন একটি পোস্ট দিলেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের একমাত্র মেয়ে সানা গঙ্গোপাধ্যায় ৷

ইনস্টাগ্রাম পোস্টে কোনও রাখঢাক না রেখেই সরাসরি সংঘ পরিবারকে নিশানা করেন সানা। লেখক খুশবন্ত সিংয়ের ‘দ্য এন্ড অফ ইন্ডিয়া’ বইয়ের একটি অংশ শেয়ার করেছেন তিনি। যেখানে মোদি সরকারের নয়া আইনের বিরোধিতাকেই ইঙ্গিত করা হয়েছে। সানার পোস্ট মুহূর্তে প্রশংসা কেড়ে নেয় নেটিজেনদের ৷ কেউ কেউ আবার তার মতের সমালোচনাও শুরু করেন ৷ বিসিসিআই প্রেসিডেন্টের মেয়ে বলে কথা তাই মুহূর্তেই ভাইরাল সেই পোস্ট ৷ জল্পনা শুরু হয় নাগরিকত্ব আইন নিয়ে  সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের কী মনোভাব তা নিয়েও ৷ এই মুহূর্তে CAA NRC নিয়ে উত্তপ্ত রাজ্য থেকে জাতীয় রাজনীতি ৷ সেই উত্তাপের আঁচ মেয়ের গায়ে লাগার আগেই সাবধানী বাবার ট্যুইটারে আর্জি, ‘সানাকে এই সব ইস্যু থেকে বাইরে রাখুন ৷ ওই পোস্টটি সত্যি নয় ৷ রাজনীতির এত গূঢ় তত্ত্ব বোঝার মতো বয়স হয়নি ওর ৷ ও একেবারে বাচ্চা মেয়ে ৷’

অষ্টাদশী সানা তাঁর ইনস্টাগ্রামের স্টেটাসে লেখেন, 'যাঁরা ভাবছেন আমরা মুসলিম ও খ্রিস্টান নই, তাই চিন্তার কোনও কারণ নেই, তাঁরা মূর্খের স্বর্গে বাস করছেন। আজ বামপন্থী, ইতিহাসবিদ ও পশ্চিমি সংস্কৃতি পছন্দ করা যুবাদের নিশানা করছে সংঘ। এর পরের ধাপে যে মেয়েরা স্কার্ট পরেন, তাঁরা নীতিপুলিশের দ্বারা আক্রান্ত হতে পারেন। হয়তো দাঁতের মাজনের বদলে টুথপেস্ট ব্যবহারের কারণে সঙ্ঘ পরিবার আপনার জন্য শাস্তি বরাদ্দ করেছেন। দেখা হলে জয় শ্রীরাম না বললে, যাঁরা হাত মিলিয়ে, বা চুমু খেয়ে শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন তাঁদের নিশানা হওয়ার আশঙ্কা থাকবে।’’ সানার কথায়, 'নয়া এই ভারতে কেউই নিরাপদ নয়'।

এর আগেও সানা ইনস্টাগ্রামে বাবা সৌরভের একটি পোস্টে কমেন্ট করে সকলের নজর কেড়েছিলেন ৷ তাঁর বুদ্ধিমত্তা আর স্বপ্রতিভ বক্তব্য এবারও নেটিজেনদের মন জয় করে নিয়েছে ৷ তবে এবারে মেয়ের এই পোস্টে জল অনেক দূর গড়াতে পারে বুঝেই আগেভাগে সাবধানী মহারাজের ট্যুইট ৷

First published: 12:34:59 AM Dec 19, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर