corona virus btn
corona virus btn
Loading

ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোয় বিপত্তি, প্ল্যাটফর্মে ট্রেন এলেও খুলল না স্ক্রিনডোর

ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোয় বিপত্তি, প্ল্যাটফর্মে ট্রেন এলেও খুলল না স্ক্রিনডোর
ফাইল ছবি

সোমবার প্ল্যাটফর্মের স্বয়ংক্রিয় কাচের দরজাই খোলেনি সল্টলেক স্টেডিয়াম স্টেশনে।

  • Share this:

#কলকাতা: কলকাতা মেট্রোর ধারা বজায় রাখল ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো।

প্রথমে শুরুর দিন কয়েকের মধ্যে স্টেশনে না থেমেই চলে গিয়েছিল ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো। এরপর সোমবার প্ল্যাটফর্মের স্বয়ংক্রিয় কাচের দরজাই খুলল না।

কলকাতা মেট্রো নিয়ে অভিযোগের শেষ নেই। দরজা সঠিক সময়ে বন্ধ না হওয়া, এসি থেকে জল পড়া, আগুন আতঙ্ক, আত্মহত্যা-সহ একাধিক বিষয় নিয়ে তিতিবিরক্ত যাত্রীরা. সল্টলেক সেক্টর ফাইভ থেকে সল্টলেক স্টেডিয়াম পর্ধন্ত মেট্রো চালু হোয়ার পর কলকাতাবাসীর আশা ছিল, এবারে হয়তো আর এই ধরণের কোনও সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে না। কিন্তু কোথায় কী!

মেট্রো কর্তৃপক্ষের তরফে জানা গিয়েছে, সেক্টর ফাইভ স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে মেট্রোর জ্ন্য অপেক্ষা করছিলেন জনা-কয়েক যাত্রী। সময়মতো ট্রেনও আসে। কিন্তু খোলেনি প্ল্যাটফর্মে বসানো স্বয়ংক্রিয় দরজা বা স্ক্রিন ডোর। অনেক চেষ্টা করে চালকও ওই দরজা খুলতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মী এসে চাবি দিয়ে দরজা খোলেন। তাতে ট্রেন ছাড়তে দেরিও হয়।

মেট্রোর আধিকারিকরা জানিয়েছেন, প্রযুক্তিগত ভাবে এগিয়ে থাকতে এবং ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোয় আত্মহত্যা রুখতে প্ল্যাটফর্মে স্ক্রিন ডোর বসানো হয়েছে। এক-একটি প্ল্যাটফর্মে ২৪টি স্ক্রিন ডোর রয়েছে। ট্রেন এলে কামরার দরজার সঙ্গে ওই দরজাগুলি খুলে যায়, যাত্রীদের ওঠানামা হয়ে গেলে আবার সেগুলি বন্ধ হয়ে যায়। যাত্রীদের অভিযোগ, এ দিন দুপুর ১টা ৫০ মিনিটে সেক্টর ফাইভ স্টেশনে সল্টলেক স্টেডিয়ামগামী মেট্রো এসে থামলে, প্ল্যাটফর্মের স্ক্রিন ডোর খোলেনি। ফলে ট্রেনের দরজাও খোলেনি। এরপর যাত্রীদের ছোটাছুটি দেখে তা স্টেশন মাস্টারের নজরে আসে। তখন তাঁর নির্দেশে চাবি দিয়ে স্ক্রিনডোর খোলা হয়। তারপর ট্রেনের কামরার দরজা খুললে যাত্রীরা উঠে যান।

First published: February 25, 2020, 2:46 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर