• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • PARTHA CHATTOPADHYAY WILL DISTRIBUTE FOOD AMONG STRAYS TO FILL MOTHERS LAST WISH SDG

Partha Chattopadhyay: মায়ের শেষ ইচ্ছে, আগামিকাল শহরের পথ কুকুরদের খাওয়াবেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়...

পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

মা ভালোবাসতেন সারমেয়'দের। বাড়িতেও আছে দুই পোষ্য। মা শিবানী চট্টোপাধ্যায়ের ভালোবাসার সারমেয়দের জন্যে খাবারের আয়োজন করলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee)।

  • Share this:

#কলকাতা: মা ভালোবাসতেন সারমেয়'দের। বাড়িতেও আছে দুই পোষ্য। মা শিবানী চট্টোপাধ্যায়ের ভালোবাসার সারমেয়দের জন্যে খাবারের আয়োজন করলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chattopadhyay)। বুধবার নাকতলায় (Naktala) রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মায়ের শ্রাদ্ধ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। আগামীকাল পারলৌকিক কাজ। এই দিনেই রাস্তার সারমেয়দের জন্যে খাবারের আয়োজন করেছেন তৃণমূলের মহাসচিব।

গড়িয়া, নাকতলা, বেহালা, পর্ণশ্রী, শকুন্তলা পার্ক, সরশুনা, টালিগঞ্জ-সহ বিভিন্ন এলাকায় যেখানে পথ কুকুরদের দেখা মিলবে সেখানে গিয়ে তাদের খাবার পৌঁছে দেবেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের অনুগামীরা। এমন উদ্যোগ নেওয়া কেন? পার্থ বাবুর কথায়, “কুকুরদের ভালবাসতেন মা। মা বলতেন ওরা অবলা জীব। যাতে ওদের কোনও ক্ষতি না হয়, তা দেখতে, ওদের যত্ন নিতে। মা আজ নেই। কিন্তু মায়ের কথা রাখতে হবে। ওরা মায়ের ভালোবাসার পাত্র।”

পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মায়ের প্রয়াণের পর থেকে নাকতলার বাড়িতে আসছেন আত্মীয় স্বজন, পরিচিত, ঘনিষ্ঠ ও শুভানুধ‍্যায়ীরা। যারা আসছেন তারা সকলেই প্রচুর ফল-ফলাদি নিয়েই আসছেন। আর সেই সব বিপুল ফল ফলাদি হাসপাতালে পাঠিয়ে দিয়েছেন পার্থবাবু। অনাথ আশ্রমেও পৌঁছেছে সেই সব ফল। মা-কে হারানোর মুহূর্তেও মানবিক কর্তব্যে অবিচল রয়েছেন রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী তথা শাসক দলের মহাসচিব। মনে রেখে দিয়েছেন মায়ের প্রিয় অবলা জীবগুলোর কথা। অবলা চারপেয়েদের দেখার দায়িত্ব ছেলেকেই যে নিতে বলেছিলেন শিবানী দেবী। তাই বুধবার মায়ের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি জানানোর দিনে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, পারলৌকিক কাজের অন্যতম মৎস্যমুখের দিন দক্ষিণ কলকাতার মুলত বেহালা-নাকতলা এলাকায় পথ কুকুরদের খাওয়াবেন তৃণমূল মহাসচিব।

পাঁচশোর বেশি পথ কুকুরের জন্য মাংস-ভাতের বন্দোবস্ত করার পরিকল্পনা করেছেন তিনি। তার জন্যে যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়ে গেছে। বুধবার অবশ্য পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে হাজির হয়েছিলেন বিভিন্ন ব্যক্তিরা। দলমত নির্বিশেষে হাজির ছিলেন তৃণমূল-বিজেপি দুই রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিরাই। হাজির হয়েছিলেন অভিষেক বন্দোপাধ্যায়। তবে নজর ছিল বিজেপি বিধায়ক মনোজ টিগগার দিকে।

ABIR GHOSHAL

Published by:Shubhagata Dey
First published: