বাসযাত্রা এখন আরও সহজ! দূরপাল্লার বাসের টিকিট বুকিং অ্যাপের মাধ্যমে, রইল বিস্তারিত...

বাসযাত্রা এখন আরও সহজ! দূরপাল্লার বাসের টিকিট বুকিং অ্যাপের মাধ্যমে, রইল বিস্তারিত...

দূরপাল্লার বাসের টিকিট বুকিং অ্যাপের মাধ্যমে (ফাইল ছবি)

গণপরিবহণে বিনোদনমূলক সফর এবং দূরপাল্লার বাতানুকূল ভলভো বাসের সফর যাত্রীদের কাছে পৌঁছে দিতে ‘ওয়েস্ট বেঙ্গল ট্রান্সপোর্ট কর্পোরেশন-ভার্সন ১.০’ নামের অ্যাপ তৈরি করেছে ডব্লুবিটিসি।

  • Share this:

#কলকাতা: গণপরিবহণে বিনোদনমূলক সফর এবং দূরপাল্লার বাতানুকূল ভলভো বাসের সফর যাত্রীদের কাছে পৌঁছে দিতে ‘ওয়েস্ট বেঙ্গল ট্রান্সপোর্ট কর্পোরেশন-ভার্সন ১.০’ নামের অ্যাপ তৈরি করেছে ডব্লুবিটিসি। যার মাধ্যমে দূরপাল্লার বাতানুকূল বাস, বিশেষ ট্রাম ও জলযানে ভ্রমণের টিকিট কাটা যাবে। এমনকি পুজোর সময়ে মণ্ডপ ঘুরতে বিশেষ বাস পরিষেবা বা গঙ্গাবক্ষে বিসর্জন দেখার জন্য ভেসেলে আসন সংরক্ষণের সুযোগও মিলবে একই অ্যাপ থেকে।

তবে প্রতিদিন স্বল্প দূরত্বের রুটে রাজ্য পরিবহণ নিগমের যে সব বাস চলে, তার টিকিট অ্যাপ থেকে কাটা যাবে না। পরিবহণ দফতরের অধীনস্থ ওয়েস্ট বেঙ্গল ট্রান্সপোর্ট কর্পোরেশনের অফিসারেরা জানিয়েছেন,খুব শীঘ্রই অ্যান্ড্রয়েড এবং অ্যাপল ফোনে এই সুবিধা পাওয়া যাবে। অ্যাপ ডাউনলোড করার পরে যাত্রীকে নিজের নাম নথিভুক্ত করতে হবে। ওটিপি এবং পাসওয়ার্ডের প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হলেই নির্দিষ্ট অ্যাপটি থেকে যাত্রীরা বুক করতে পারবেন।

এই অ্যাপের মাধ্যমেই হবে টিকিট বুকিং। এই অ্যাপের মাধ্যমেই হবে টিকিট বুকিং।

আগামী ১০ ফেব্রুয়ারি থেকে ভেসেলে অ্যাপের মাধ্যমে টিকিট বুকিং করা যাবে। বাসের ক্ষেত্রেও শীঘ্রই এই পরিষেবা চালু হবে। দূরপাল্লার বাসের এখনও পর্যন্ত ২২টি রুটকে এর আওতায় আনা হয়েছে। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল, বারাসত-দীঘা, করুণাময়ী-দীঘা, কলকাতা-বোলপুর, কলকাতা-পুরুলিয়া, বারাসত-আসানসোল, কলকাতা-দুর্গাপুর- আসানসোল, কলকাতা-জয়রামবাটি, কলকাতা-মায়াপুর প্রমুখ। পাশাপাশি, পূজা পরিক্রমা স্পেশাল বাসের বুকিং এই অ্যাপের মাধ্যমে করা যাবে। ট্রামের ক্ষেত্রে এই মুহূর্তে ‘পাটরানি’তে তা কার্যকর হবে। কলকাতা হেরিটেজ রিভার ক্রুজ ও বোট লাইব্রেরি এই দু’টি জলপথ মাধ্যম আপাতত এই অ্যাপে যুক্ত হবে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তার অ্যাপের পরিসর আরও বৃদ্ধি করা হবে।

ইতিমধ্যেই একাধিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে রাজ্য পরিবহণ নিগমের মাধ্যমে। সংস্থার এক আধিকারিক জানাচ্ছেন রিয়েল টাইম ট্র‍্যাকার থাকার কারণে নির্দিষ্ট সময়ে বাস যেমন পাওয়া যাচ্ছে, তেমনি ভাবেই কোন স্টপেজে কখন বাস থাকছে সেটাও এবার জানা সহজ হয়ে যাবে। এছাড়া পথদিশার মাধ্যমে যেমন সময় জানা যায় তেমনই জানা সহজ হবে।

ABIR GHOSHAL

Published by:Shubhagata Dey
First published: