• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • 'নিজের জামা নিজে কাচতে পারবে তো?', কলকাতা মেডিক্যালে হেনস্থার অভিযোগ ৮৬-এর অসুস্থ বৃদ্ধকে

'নিজের জামা নিজে কাচতে পারবে তো?', কলকাতা মেডিক্যালে হেনস্থার অভিযোগ ৮৬-এর অসুস্থ বৃদ্ধকে

ফের কলকাতা মেডিক্যালে রোগী হেনস্থার অভিযোগ

ফের কলকাতা মেডিক্যালে রোগী হেনস্থার অভিযোগ

ফের কলকাতা মেডিক্যালে রোগী হেনস্থার অভিযোগ

  • Share this:

#কলকাতা: গড়িয়ার বাসিন্দা বছর ৮৬-এর সুরথ নাথ মৈত্র দীর্ঘদিন ধরেই সিওপিডি-তে আক্রান্ত। মাঝে মধ্যে তীব্র শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। কয়েকদিন আগে স্থানীয় একটি নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়েছিল, দিনকয়েক থাকার পর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরেন । তবে শয্যাশায়ী ছিলেন। শনিবার সকালে ফের আচমকাই শুরু হয় তীব্র শ্বাসকষ্ট। পরিবারের সদস্যরা বৃদ্ধকে শম্ভুনাথ পণ্ডিত হাসপাতালে নিয়ে যান, শ্বাসকষ্ট থাকায় সেখানকার ফিভার ক্লিনিকে চিকিৎসকরা তাঁকে পরীক্ষা করে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে রেফার করে দেন। এরপর কলকাতা মেডিক্যালের জরুরি বিভাগে রোগীকে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাঁকে গ্রিন বিল্ডিংয়ের ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটে ভর্তির সুপারিশ করেন।

এরপরই 'নাটক'-এর সূত্রপাত। স্ট্রেচারে তীব্র শ্বাসকষ্টে ছটফট করছেন  ৮৬ বছরের বৃদ্ধ, নিয়ে যাওয়ার সময় হাসপাতালে চুক্তিভিত্তিক কর্মীরা রীতিমতো তার পরিবারের সদস্যদের হুমকির সুরে বলেন, '' রোগী নিজের জামা কাপড় নিজে কাচতে পারবেন তো? আমরা কিন্তু জামাকাপড় কাচতে পারব না।'' এ'কথা শুনে ভিরমি খাওয়ার যোগাড় ছেলে সঞ্জয় মৈত্র এবং মেয়ে মৌসুমী মৈত্রের। সঞ্জয় মৈত্রের অভিযোগ, '৮৬ বছরের এক শয্যাশায়ী বৃদ্ধের যা শারীরিক অবস্থা, তা দেখে যে-কোনও স্বাভাবিক মানুষের মায়া হয়,সেখানে এদের কি শরীরে দয়া মায়া বলে কিছু নেই ? কীভাবে এই মানুষটাকে নিজের জামা কাপড় নিজে কাচার কথা বলতে পারেন এরা! আমরা এই বিষয়টি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানাব।'

গোটা বিষয়টি নিয়ে জানতে চাওয়া হলে কলকাতা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের এক আধিকারিক বলেন, আমরা চেষ্টা করছি যাতে এই ধরনের অভিযোগ না ওঠে। কেন এই অভিযোগ, কারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

AVIJIT CHANDA

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published: