Home /News /kolkata /
উচ্চপ্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে ফের জটিলতা, মামলার নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত স্থগিতাদেশ হাইকোর্টের

উচ্চপ্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে ফের জটিলতা, মামলার নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত স্থগিতাদেশ হাইকোর্টের

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

২০১৫ সালে উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা হয় । তারপরে কেটে গিয়েছে ৫ বছর । কিন্তু আজও পাশ করা পরীক্ষার্থীরা নিয়োগের মুখ দেখল না ।

  • Share this:

#কলকাতা: পরীক্ষা দেওয়ার পর পাশ করেও চাকরি পাওয়ার জন্য এখন তাকিয়ে থাকতে হয় আদালতের দিকে । আর সেই আদালতের রায়েই ফের উচ্চ প্রাথমিক শিক্ষকের নিয়োগ প্রক্রিয়ায় জটিলতা তৈরি হল ।

প্রায় ১৪০০০ শিক্ষক নিয়োগ সম্পূর্ণ হওয়ার কথা ছিল ২০১৭ সালের মধ্যে । ২০১৫ সালে উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা হয় । তারপরে কেটে গিয়েছে ৫ বছর । কিন্তু আজও পাশ করা পরীক্ষার্থীরা নিয়োগের মুখ দেখল না । নতুন করে নিয়োগের উপর নিষেধাজ্ঞা চাপিয়ে দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট । পরীক্ষার্থী ভানু রায়ের মামলায় বিচারপতি বিবেক চৌধুরী নির্দেশে জানিয়েছেন , মামলার নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত উচ্চ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ করা যাবে না । নিয়োগ করতে হলে হাইকোর্টের অনুমতি নিতে হবে স্কুল সার্ভিস কমিশনকে।

ভানু রায়ের আইনজীবী ফিরদৌস শামীম জানান, "উচ্চ প্রাথমিক মেধাতালিকায় প্রচুর অস্বচ্ছতা রয়েছে । সেই অস্বচ্ছতার একাধিক প্রমাণ আমরা আদালতের সামনে পেশ করেছি । হাইকোর্ট তা বিবেচনা করে নিয়োগে স্থগিতাদেশ দিয়েছে ।" কলকাতা হাইকোর্টে ভানু রায়ের মামলায় অভিযোগ ছিল , মেধা তালিকায় স্বজনপোষণের যথেষ্ট প্রমাণ রয়েছে । ইন্টারভিউ দেওয়া নম্বর নিয়েও অস্বচ্ছতা রয়েছে বিস্তর । এমনকি অনলাইন আবেদন পূরণের ক্ষেত্রেও দু'রকম পদ্ধতি সামনে এসেছে । তার মধ্যে একটি ক্ষেত্রে পরীক্ষার্থীর ছবি সহ আবেদনপত্র, অন্যটির ক্ষেত্রে ছবি ছাড়া ।

তবে এটাই প্রথম নয় , এর আগে প্রশিক্ষণহীনদের ইন্টারভিউতে ডাকা হয়েছে এই অভিযোগ নিয়ে একাধিক মামলা হয় কলকাতা হাইকোর্টে । ২০১৯ সালে বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্যের নির্দেশে ইন্টারভিউতে ডাক পাওয়া প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করতে নির্দেশ দেওয়া হয় কমিশনকে । হাইকোর্টের নির্দেশে উচ্চ প্রাথমিক-এর ইন্টারভিউ দেওয়া ২৪,৫৬৪ নিয়োগপ্রার্থীর তালিকা সে বছর ১০ জুলাই বিকেলে প্রকাশ্যে আসে । তালিকায় ছিল প্রার্থীর নাম, টেট-এ প্রাপ্ত নম্বর,  অ্যাকাডেমিক স্কোর । এরপরেই তাতে একাধিক অসঙ্গতির অভিযোগ জমা পড়ে হাইকোর্টে । সেই মামলার শুনানি আজও চলছে । এ দিকে সোমবার ভার্চুয়াল শুনানির পর বিচারপতি বিবেক চৌধুরির এমন নিষেধাজ্ঞায় ভবিষ্যতে উচ্চ প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া আরও  দীর্ঘায়িত হবে বলে মনে করা হচ্ছে ।

ARNAB HAZRA

Published by:Shubhagata Dey
First published:

Tags: Kolkata High court, Recruitment, Upper Primary

পরবর্তী খবর