রাজ্য জুড়ে চিকিৎসকদের কর্মবিরতি, সংকটে স্বাস্থ্য পরিষেবা

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jun 14, 2019 04:39 PM IST
রাজ্য জুড়ে চিকিৎসকদের কর্মবিরতি, সংকটে স্বাস্থ্য পরিষেবা
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jun 14, 2019 04:39 PM IST

#কলকাতা: উত্তরবঙ্গ মেডিক্যালে জারি অচলাবস্থা। আউটডোর বন্ধে বিপাকে রোগীরা। চরম হয়রানি দূর থেকে আসা রোগীদের। হাতেগোনা চিকিৎসক পরিষেবা দিচ্ছেন। জরুরি বিভাগ সামলাতে হিমশিম দশা।

উত্তরবঙ্গ মেডিক্যালে অচলাবস্থা অব্যাহত। ইস্তফা দিলেন দুই চিকিৎসক। অধ্যক্ষের কাছে ইস্তফাপত্র জমা দিলেন চিকিৎসক উত্তম মজুমদার ও নির্মল বেরা। নির্মল বেরা মনোরোগ বিভাগের প্রধান। পাশাপাশি উত্তরবঙ্গ মেডিক্যালে আজও আউটডোর বন্ধ থাকায় বিপাকে পড়েন রোগীরা। চরম ভোগান্তির মধ্যে দূর থেকে আসা রোগীরা। জরুরি বিভাগে রয়েছেন হাতে গোনা মাত্র কয়েকজন ডাক্তার। তাই রোগীদের সামলাতে রীতিমত সামলাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে ডাক্তারদের।

চিকি‍ৎসার গাফিলতিতে রোগী মৃত্যুর অভিযোগ উত্তরবঙ্গ মেডিক্যালে। দশ-ই জুন থেকে বুকে ব্যথা নিয়ে হাসপাতালে ভরতি ছিলেন শিলিগুড়ির মিলনপল্লির বাসিন্দা প্রদীপ চৌধুরী।আজ সকালে মৃত্যু হয় তাঁর। পরিবারের অভিযোগ, গত কয়েকদিন হাসপাতালে অচলাবস্থা চলায় চিকিৎসাই হয়নি সত্তর বছরের প্রদীপ চৌধুরীর। তার জেরেই মৃত্যু হয়েছে বৃদ্ধের।

বর্ধমান মেডিক্যালেও অচলাবস্থা। আউটডোরের বাইরে রোগীদের লম্বা লাইন। আউটডোরে দেখা নেই চিকিৎসকদের। হাসপাতালের জরুরি বিভাগ চালু।

মুখ্যমন্ত্রীকে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে। এই দাবিতে সকাল থেকে পরিষেবা বন্ধ রেখে অবস্থান বিক্ষোভে মেদিনীপুর মেডিক্যালের জুনিয়র ডাক্তাররা। চিকিৎসা না পেয়ে বিক্ষোভ দেখান রোগীর আত্মীয়রাও। একাধিকবার জুনিয়র ডাক্তারদের দিকে মারমুখী হয়ে তেড়ে যান তাঁরা। এক দিকে ক্ষুব্ধ রোগীর আত্মীয়দের সামাল দেওয়া, অন্য দিকে ডাক্তারদের নিরাপত্তা দিতে গিয়ে হিমশিম খেতে হয় পুলিশকে।

Loading...

অচলাবস্থা অব্যাহত কল্যাণীর জেএনএম হাসপাতালে । বন্ধ আউটডোর। জরুরি বিভাগ খোলা থাকলেও, সেখানেও অনিয়মিত পরিষেবা। দাবি রোগীর আত্মীয়দের। হাতে গোনা কয়েকজন সিনিয়র চিকিৎসক রোগী দেখছেন। দেখা নেই জুনিয়র ডাক্তারদের। বাড়ছে রোগীর সংখ্যা। অবিলম্বে আউটডোর পরিষেবা চালুর দাবিতে হাসপাতালের সামনে দফায়-দফায় পথ অবরোধ করেন রোগীর আত্মীয়রা। বিভিন্ন ওয়ার্ডে রোগীর সংখ্যা কমছে। গত তিনদিন কোনও নতুন রোগী ভরতি নেওয়া হয়নি হাসপাতালে।

সিউড়ি হাসপাতালে পরিষেবা স্বাভাবিক । হাসপাতালে খোলা জরুরি বিভাগ। আউটডোরে রোগী দেখছেন চিকিৎসকরা । ইস্তফা দিয়েও কাজে যোগ দিয়েছেন সিউড়ি সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালের চিকিৎসকরেরা। বৃহস্পতিবারই স্বাস্থভবনে ই-মেল করে গণ-ইস্তফা দেন হাসপাতালের সাতষট্টিজন চিকিৎসক। বুকে কালো ব্যাজ পরে চিকিৎসা করছেন তাঁরা। তাঁদের দাবি, ইস্তফা গৃহীত হলেই কাজ ছাড়বেন।

সিউড়ি সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালে রোগীর আত্মীয়কে মারধরের অভিযোগ। কাঠগড়ায় হাসপাতালের নিরাপত্তারক্ষীরা। প্রসবযন্ত্রণা নিয়ে হাসপাতালে ভরতি বীরভূমের ক্ষতিপুরের বাসিন্দা। জরুরি কাগজ দিতে আজ সকালে হাসপাতালের ভিতর ঢুকতে যান তাঁর বাবা। অভিযোগ, তাঁকে হাসপাতালে ঢুকতে বাধা দেন নিরাপত্তারক্ষী ও মারধর করা হয়। পরে কর্তব্যরত পুলিশ ও চিকিৎসকরা এসে পরিস্থিতি সামাল দেন।

আন্দোলন তুলে নেওয়ার তিন ঘণ্টা পর ফের কর্মবিরতিতে ডাক্তাররা। বৃহস্পতিবার সন্ধায় মু্র্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে জুনিয়র ডাক্তাররা আন্দোলন তুলে নেন জুনিয়র ডাক্তাররা। কিন্তু তিন ঘণ্টা পর ফের আন্দোলন শুরু করেন তাঁরা। অভিযোগ, আন্দোলন তুলে নেওয়ার জন্য তাঁদের উপর চাপ দেওয়া হয়। জুনিয়র ডাক্তারদের সমর্থন জানিয়ে স্বাস্থ্য অধিকর্তাকে চিঠি দেন সিনিয়র ডাক্তাররা। তাঁদের হুমকি, পড়ুয়াদের গায়ে হাত পড়লে গণ ইস্তফা দেওয়া হবে। এনআরএসের জুনিয়র ডাক্তার মারধরের ঘটনায় রাজ্যের অন্যান্য মেডিক্যাল কলেজের মতোই মঙ্গলবার থেকে কাজ বন্ধ মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে।

বাঁকুড়া মেডিক্যালে ফের বন্ধ আউটডোর। প্রতিবাদে পথ অবরোধ রোগীর আত্মীয়দের । অবিলম্বে আউটডোর চালুর দাবিতে হাসপাতালের সামনে অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান রোগী ও তাঁদের আ্ত্মীয়রা। গতকাল খোলা থাকার পর আজ সকাল থেকে ফের বন্ধ আউটডোর। তবে খোলা হাসপাতালের জরুরি বিভাগ। যদিও চিকিৎসক কম থাকায় প্রয়োজনীয় চিকিৎসা পরিষেবা মিলছে না অভিযোগ রোগীর আত্মীয়দের।

এবার বিক্ষোভে নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীরা। আসানসোল জেলা হাসপাতালে জরুরি বিভাগের সামনে বিক্ষোভ। হাসপাতাল চত্বরে প্রতিবাদ মিছিল। এনআরএসের ঘটনার প্রতিবাদে মিছিল। হাসপাতালের পরিষেবা স্বাভাবিক আছে। এমনই দাবি নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীদের।

First published: 04:37:41 PM Jun 14, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर