কলকাতা

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

প্রতিহিংসার জন্যই তাপসের মৃত্যু, ‘সাহেব’র শেষ যাত্রায় এসে বিস্ফোরক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

প্রতিহিংসার জন্যই তাপসের মৃত্যু, ‘সাহেব’র শেষ যাত্রায় এসে বিস্ফোরক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

এজেন্সির চাপে মৃত্যু অভিযোগ তৃণমূল নেত্রীর

  • Share this:

#কলকাতা:  অভিনেতার শেষযাত্রায় রাজনৈতিক তরজা ৷প্রখ্যাত অভিনেতা ও তৃণমূলের প্রাক্তন সাংসদ তাপস পালের শেষযাত্রায় এসে সরাসরি বিজেপির দিকেই আঙুল তুললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ রবীন্দ্র সদনে প্রয়াত তাপস পালকে শেষযাত্রায় সম্মান জানাতে গিয়ে বিস্ফোরক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ তৃণমূলনেত্রীর অভিযোগ, চার্জশিট ছাড়াই জেলবন্দি করে রাখা হয় তাপসকে ৷ এই চাপেই অসময়ে মৃত্যু তাপস পালের ৷

এজেন্সি লেলিয়ে রাজনীতির অভিযোগ বহুদিন ধরেই করেই আসছেন নেত্রী ৷ এবার সরাসরি বিজেপিকে তাপস পালের মৃত্যুর জন্য দায়ী করলেন তিনি ৷বলেন, ‘মানুষের জীবন শেষ করে দিচ্ছে বিজেপি ৷ কেন্দ্রের এজেন্সির চাপে তিন জনের মৃত্যু ৷ চার্জশিট ছাড়াই জেলবন্দি তাপস ৷ কেন্দ্রের চাপে আমাদের তিন জন মারা গেল ৷ বিজেপি’র চাপে আহত, ক্ষতবিক্ষত তাপস ৷ দিনের পর দিন লাঞ্ছনা, গঞ্জনার শিকার ৷ বড় অসময়ে মৃত্যু হল তাপসের ৷ প্রতিহিংসার জন্যই তাপসের মৃত্যু ৷’ ২০১৬ সালের ৩০ ডিসেম্বর কলকাতা থেকে তাপস পালকে গ্রেফতার করে সিবিআই। ভুবনেশ্বরে নিয়ে যাওয়া হয় তৃণমূল সাংসদকে। বারবার তাপসের জামিনের বিরোধিতা করে সিবিআই বলেছে,  তাপস পাল চিটফান্ড কেলেঙ্কারির ষড়যন্ত্রের অন্যতম মাথা। তাঁকে জামিন দিলে তদন্তে সমস্যা হবে৷ ভুবনেশ্বরের জেলে থাকতে হয়েছে দু’বছরেরও বেশি। ২০১৮-য় জামিন পেয়েও জীবনের স্বাভাবিক ছন্দে ফেরা হয়নি। তুহিন সিনহার ছবিতেই তাপস পালের শেষ অভিনয়। শুটিং শেষের আগেই চলে গেলেন নায়ক। সোমবার রাতে শহরে ফেরে তাপস পালের শবদেহ ৷ মঙ্গলবার সকাল ১১টা নাগাদ শিল্পীকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে রবীন্দ্র সদনে নিয়ে যাওয়া হয় মরদেহ ৷ সেখানে নায়ককে শেষবারের মতো দেখতে হাজির হয় টলিপাড়া ৷ আসে সাধারণ মানুষও ৷ রবীন্দ্র সদনেই অভিনেতা ও দলের প্রাক্তন সাংসদকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে আসেন তৃণমূল নেত্রী ৷তৃণমূলনেত্রীর অভিযোগের পর শুরু রাজনৈতিক তরজা। বিজেপির সুরেই সরব বাম-কংগ্রেসও। অভিনেতা থেকে নেতা হতে যাওয়াই কাল হয়েছে। মনে করেন তাপস পালের ঘনিষ্ঠ অনেকেই। মৃত্যুর পরও রাজনীতি তাঁকে ছাড়ল না।
Published by: Elina Datta
First published: February 19, 2020, 8:17 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर