corona virus btn
corona virus btn
Loading

বড় সিদ্ধান্ত নিল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ! মাধ্যমিকের উত্তরপত্র জমা দেওয়ার প্রক্রিয়া স্থগিত

বড় সিদ্ধান্ত নিল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ! মাধ্যমিকের উত্তরপত্র জমা দেওয়ার প্রক্রিয়া স্থগিত
ফাইল ছবি

প্রধান পরীক্ষকদের উত্তরপত্র জমা দিতে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের আসতে হবে না পরবর্তী নির্দেশ না হওয়া পর্যন্ত।

  • Share this:

#কলকাতাঃ করোনা সংক্রমণ রুখতে এবার গুরুত্বপূর্ণ সিধান্ত নিল মধ্যশিক্ষা পর্ষদে। শিক্ষকদের মাধ্যমিকের উত্তরপত্র জমা দেওয়ার প্রক্রিয়া স্থগিত রাখার নির্দেশ জারি করা হল। রবিবার মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায় এই নির্দেশিকা জারি করেন। নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে, সাম্প্রতিক পরিস্থিতিতে মূল্যায়নকারী শিক্ষকদের আপাতত উত্তরপত্র জমা দিতে যেতে হবে না প্রধান পরীক্ষকদের কাছে। তেমনই প্রধান পরীক্ষকদের উত্তরপত্র জমা দিতে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের আসতে হবে না পরবর্তী নির্দেশ না হওয়া পর্যন্ত।

তবে পর্ষদের তরফে জানানো হয়েছে, এই বর্ধিত সময়ের মধ্যে যেন মূল্যায়ন করা উত্তরপত্রগুলি পুনরায় মূল্যায়ন করেন শিক্ষকরা। কারণ যেকোনও  সময় মূল্যায়ন করা উত্তরপত্র গুলি জমা করার নির্দেশ দেওয়া হতে পারে। অন্যদিকে, রাজ্যে সোমবার বিকেল পাঁচটা থেকে 'লক ডাউন' ঘোষণার পরপরই 'মিড ডে মিল' দেওয়ার ক্ষেত্রে বিশেষ নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। স্কুল শিক্ষা দফতরের তরফে প্রত্যেকটি জেলার শিক্ষকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, তাঁরা যেন সোমবার দুপুর তিনটের মধ্যে মিড ডে মিল প্রাপ্ত শিশুদের অভিভাবকদের দু'কেজি করে চাল ও আলু দেওয়ার প্রক্রিয়া শেষ করে ফেলেন।

এদিকে, করোনা সংক্রমণের আশঙ্কায় ইতিমধ্যেই উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা ১৫ই এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত রাখার নির্দেশ জারি করেছে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ। কিন্তু মাধ্যমিক পরীক্ষা শেষ হয়ে গেলেও শিক্ষকরা উত্তরপত্র কীভাবে জমা দেবেন তা নিয়ে উদ্বিগ্ন  ছিল রাজ্যের শিক্ষক মহল। বিশেষত রবিবার রাত থেকে ৩১শে মার্চ পর্যন্ত ট্রেন বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর উদ্বেগ প্রকাশ করেন শিক্ষকরা। কীভাবে শিক্ষকরা প্রধান পরীক্ষকদের কাছে মাধ্যমিকের উত্তরপত্র জমা দিতে যাবেন, তা নিয়ে দফায় দফায় অভিযোগ পৌঁছয় পর্ষদের কাছে। সোমবার বিকেল থেকে লকডাউন ঘোষণার পরপরই নড়েচড়ে বসে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। শেষমেশ পরবর্তী নির্দেশ না হওয়া পর্যন্ত মাধ্যমিকের উত্তরপত্র জমা দেওয়ার প্রক্রিয়া স্থগিত রাখল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ।

অন্যদিকে, সোমবার বিকেল পাঁচটা থেকে রাজ্যে 'লক ডাউন' ঘোষণার পরপরই মিড ডে মিলের আওতায় চাল ও আলু কীভাবে দেওয়া হবে তা নিয়ে বৈঠকে বসে স্কুল শিক্ষা দফতরের আধিকারিকরা। ইতিমধ্যেই শনিবার থেকেই অনেক স্কুলে দু-কেজি করে আলু ও চাল দেওয়ার প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। তবে স্কুল শিক্ষা দফতরের তরফে রবিবারই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সোমবার দুপুর তিন'টের মধ্যে প্রথম থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত মিড ডে মিল প্রাপ্ত শিশুদের অভিভাবকদের চাল ও আলু দেওয়ার প্রক্রিয়া শেষ করতে হবে।

SOMRAJ BANDOPADHYAY

Published by: Shubhagata Dey
First published: March 22, 2020, 7:48 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर