corona virus btn
corona virus btn
Loading

আদালতে চলছে গরমের ছুটি, পার পেয়ে যাবে সিংহশাবক পাচারকারীরা?

আদালতে চলছে গরমের ছুটি, পার পেয়ে যাবে সিংহশাবক পাচারকারীরা?
photo: News18 Bangla
  • Share this:

#বারাকপুর: গরমের ছুটিতে বন্ধ আদালত। তাই চাইলেও সিংহশাবক পাচারে অভিযুক্তদের জামিনের বিরোধিতা করে আবেদন করা যাচ্ছে না। আন্তর্জাতিক স্তরে যোগাযোগ থাকায়, অভিযুক্তদের দেশ ছাড়ারও আশঙ্কা রয়েছে। সব বুঝেও ঠুঁটো জগন্নাথ ওয়াইল্ড লাইফ ক্রাইম কন্ট্রোল ব্যুরো। সিংহ-লেঙ্গুর শাবক পাচারে অভিযুক্তদের হাতে নাগালে পেয়েও ধরে রাখতে পারেনি ওয়াইল্ড লাইফ ক্রাইম কন্ট্রোল ব্যুরো। জামিন অযোগ্য অপরাধ সত্ত্বেও, তিন অভিযুক্ত ওয়াসিম রেহমান, ওয়াজিদ আলি ও গুলাম গাউসকে জামিন দিয়েছিল বারাকপুর আদালত। তখনই বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞরা বলেছিলেন, আদালতে সম্ভবত মামলার গুরুত্ব বোঝাতে পারেননি ক্রাইম কন্ট্রোল ব্যুরোর আইনজীবীরা। ভুল শোধরানোর একটা উপায় ছিল। নিম্ন আদালতে অভিযুক্তদের জামিনের বিরোধিতা করা। কিন্তু গরমের ছুটিতে আদালত বন্ধ থাকায়, এখন তাও সম্ভব হচ্ছে না। এই পরিস্থিতিতে রীতিমতো বিপাকে ওয়াইল্ড লাইফ ক্রাইম কন্ট্রোল ব্যুরো। তাদের দাবি, জামিনের পর থেকেই ৩ অভিযুক্তের গতিবিধিতে নজরদারি চালানো হচ্ছে৷ সোর্স মারফৎ নজরদারি চলছে রাজ্যের সীমান্ত এলাকাগুলিতেও৷ কিন্তু আন্তর্জাতিক স্তরে যোগাযোগ রয়েছে অভিযুক্তদের৷ তাই যে কোনও মুহূর্তে তাদের দেশ ছাড়ার আশঙ্কা রয়েছে৷ কিন্তু সব জেনেও ঠুঁটো জগন্নাথ ওয়াইল্ড লাইফ ক্রাইম কন্ট্রোল ব্যুরো৷

তদন্তকারীরা জানতে পেরেছেন, ওয়াসিম-ওয়াজিদের সামনে রেখে আড়ালে কাজ করছে আরেক পাচারচক্রী। আন্তর্জাতিক পশুপাচার চক্রের অন্যতম পাণ্ডা ছোটন মিঞা ছোটন মিঞা সিংহপাচারে ধৃত ওয়াসিমের বাবা৷ ছেলেকে সামনে রেখে পর্দার আড়ালে কাজ করে ছোটন৷ বিদেশে দু’বার পুলিশের হাতে ধরা পড়েছিল ওয়াসিম৷ দু’বারই তাকে জামিনে ছাড়ানোর ব্যবস্থা করে ছোটন৷ এতকিছুর জানার পরেও আন্তর্জাতিক পাচারচক্রের শিঁকড়ে পৌঁছতে পারবেন তদন্তকারীরা? প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে ওয়াইল্ড লাইফ ক্রাইম কন্ট্রোল ব্যুরোর একের পর এক গাফিলতিতে।

First published: June 3, 2019, 8:19 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर