Home /News /kolkata /
Kolkata Fraud Case : 'আলুতে বিনিয়োগে বেশি টাকা'! মহিলা প্রতারকের হাতে ১ কোটি খোয়ালেন লণ্ডন ফেরত গবেষক...

Kolkata Fraud Case : 'আলুতে বিনিয়োগে বেশি টাকা'! মহিলা প্রতারকের হাতে ১ কোটি খোয়ালেন লণ্ডন ফেরত গবেষক...

অভিযুক্ত ব্যাঙ্ক আধিকারিক Photo : Collected

অভিযুক্ত ব্যাঙ্ক আধিকারিক Photo : Collected

Kolkata Fraud Case | খাস কলকাতায় চিটফান্ড চক্রের হাতে প্রতারিত হলেন ব্যক্তি। এবার আলুর বন্ডে (Potato Bond) টাকা রাখার নামে হাতিয়ে (Cheat) নেওয়া হল এক কোটি পাঁচ লক্ষ টাকা।

  • Last Updated :
  • Share this:

#কলকাতা : বড়োসড়ো প্রতারণার চক্রের হদিস মিলল খাস কলকাতায়। শহরের বুকে চিটফান্ড চক্রের হাতে প্রতারিত (Kolkata Fraud Case ) হলেন ব্যক্তি। এবার আলুর বন্ডে (Potato Bond) টাকা রাখার নামে হাতিয়ে নেওয়া হল এক কোটি পাঁচ লক্ষ টাকা। এমনই অভিযোগ করেছেন প্রতারিত লন্ডন ফেরত গবেষক। অভিযুক্তের নাম সুপ্তি মুখোপাধ্যায়। অভিযুক্ত ব্যাঙ্ক আধিকারিককে গ্রেফতার করেছে শেক্‌সপিয়র থানার পুলিশ। জানা গিয়েছে নিজেকে ব্যাঙ্ক আধিকারিক

পার্থপ্রতিম রায় নামে ওই গবেষককে কয়েক বছর আগে তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা চাকরি ছেড়ে দেশে ফিরে আসেন। তাঁর সঙ্গে আলাপ হয় সুপ্তি মুখোপাধ্যায় নামে এক মহিলার। যিনি বেসরকারি ব্যাংকের উচ্চপদে কর্মরত (Bank Officer)। অভিযোগ সেই মহিলা ও তাঁর সহযোগীরা গবেষককে বোঝান, ব্যাঙ্কের বদলে আলুর বন্ডে (Potato Bond) টাকা রাখলে বেশি টাকা সুদ মিলবে।

২০১৭ সাল থেকে টাকা রাখা শুরু করেন ওই গবেষক। কিছু টাকা সুদ বাবদ ফেরতও পান। তারপরেই উধাও তাঁরা। এই প্রতারণা চক্রে ওই ব্যাঙ্ক আধিকারিক সুপ্তির স্বামীও জড়িত বলে অভিযোগ। শেক্সপিয়ার সরণি থানা এলাকায় ছিল এই চক্র। ২০২০ তে অভিযোগ দায়ের হয় থানায়। অভিযুক্তরা পলাতক ছিলেন। অবশেষে পুলিশের জালে ধরা পড়েছে অভিযুক্ত মহিলা।

অভিযোগকারীর বক্তব্য অনুযায়ী, ২০১৭ সালের শেষ দিকে সুপ্তি এবং তাঁর স্বামীর মাধ্যমে আলু ব্যবসার বন্ডে বিনিয়োগ করেন তিনি। পরে সুপ্তি তাঁকে বুঝিয়েছিলেন, আরও বেশি বিনিয়োগ করলেই সেবি অনুমোদিত বন্ডের আসল নথি পাওয়া যাবে। সেই মোতাবেক ১ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেন পার্থ। কিন্তু দীর্ঘদিন পেরিয়ে যাওয়ার পরও কোনও কাগজপত্রং হাতে পান না তিনি।

Published by:Sanjukta Sarkar
First published:

Tags: Fraud Case, Kolkata crime