corona virus btn
corona virus btn
Loading

চালু হচ্ছে ফুলবাগান পর্যন্ত মেট্রো, পরিকাঠামো খতিয়ে দেখলেন সেফটি কমিশনার

চালু হচ্ছে ফুলবাগান পর্যন্ত মেট্রো, পরিকাঠামো খতিয়ে দেখলেন সেফটি কমিশনার

২৬ বছর পরে ফের কলকাতায় চালু হচ্ছে পাতালে মেট্রো স্টেশন

  • Share this:

#কলকাতা: দীর্ঘ দিন বাদে কলকাতায় ফের চালু হতে চলেছে পাতালে মেট্রো স্টেশন। ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত এই ফুলবাগান মেট্রো স্টেশন। যাত্রী পরিষেবা চালু করার আগে চাই কমিশনার অফ রেলওয়ে সেফটির চূড়ান্ত ছাড়পত্র। শুক্রবার তাই KMRCL ও কলকাতা মেট্রোর আধিকারিকদের উপস্থিতিতেই ফুলবাগান পরিদর্শন করলেন কমিশনার অফ রেলওয়ে সেফটি। ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পে প্রথম পাতাল স্টেশন হিসেবে যাত্রা শুরু করবে ফুলবাগান।

শহর কলকাতায় দীর্ঘ ২৬ বছর পরে আবার নতুন করে চালু হবে পাতালে কোনও স্টেশন। তাই কে এম আর সি এল এবং কলকাতা মেট্রো রেল উভয় পক্ষই উত্তেজিত ছিলেন কমিশনার অফ রেলওয়ে সেফটির পরিদর্শন ঘিরে। তিনি চূড়ান্ত ছাড়পত্র দিলেই যাত্রী পরিষেবা চালু করা যাবে এই অংশে। চলতি বছরের ফ্রেব্রুয়ারি মাসেই স্টেশনের যাবতীয় কাজ শেষ হয়ে গিয়েছিল। কথা ছিল ৩ মাস আগেই কমিশনার অফ রেলওয়ে সেফটি পরিদর্শন সারবেন। লক্ষ্য ছিল পয়লা বৈশাখে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে ২৬ বছর পর ফের পাতাল স্টেশন উদ্বোধন হবে। যদিও করোনা এসে সেই পরিকল্পনায় জল ঢেলে দিল। তবে ভেতরে ভেতরে সব প্রস্তুতি সেরে রাখা হয়েছিল। আনলক অধ্যায়ের মাঝেই আজ কমিশনার অফ রেলওয়ে সেফটি পরিদর্শন করলেন এই স্টেশন। এদিন সকালে সল্টলেক স্টেডিয়াম থেকে মেট্রোয় চেপে ফুলবাগান পর্যন্ত আসেন সি আর এস। সঙ্গে ছিলেন ইঞ্জিনিয়ার ও আধিকারিকরা। সল্টলেক সেক্টর ফাইভ থেকে সল্টলেক স্টেডিয়াম পর্যন্ত মেট্রো পরিষেবা চালু হয়ে গিয়েছে। কিন্তু এই পথে কতটা লাভজনক হবে যাত্রী পরিষেবা তা নিয়ে প্রথম থেকেই প্রশ্ন ছিল। তাই খুব শীঘ্রই ফুলবাগান পর্যন্ত মেট্রো চালিয়ে ক্ষতির ভার কমানোর চেষ্টা শুরু করেছিলেন মেট্রো রেলের আধিকারিকরা। গত কয়েক মাস ধরে এই রুটে মেট্রো চালানোর বিষয়ে ভীষণ রকম আশাবাদী ছিলেন মেট্রো রেলের আধিকারিকরা। তাই ক্ষতির হাত থেকে বাঁচার পরিকল্পনা তৈরি করেছেন তাঁরা৷ তাই গত তিন মাস থেকেই ফুলবাগান মেট্রো চালু করার কথা ভাবনা-চিন্তা করা হচ্ছে৷

ফুলবাগান স্টেশনে আজ তৎপরতা ছিল চোখে পড়ার মতন। সল্টলেক স্টেডিয়াম থেকে মেট্রো ছাড়ার পরেই ফুলবাগানে মাটির তলায় প্রবেশ করে। সি আর এস এই অংশে সিগন্যালিং ব্যবস্থার পরীক্ষা করেন প্রতি মুহূর্তে। এছাড়া স্বয়ংক্রিয় বাকি সমস্ত পদ্ধতি দেখেন। দেখেন প্ল্যাটফর্মে ট্রেন এসে দাঁড়ানো ও বেড়িয়ে যাওয়া পর্যন্ত যাত্রীর সময়। প্ল্যাটফর্ম স্ক্রিন ডোর খোলা বা বন্ধ হওয়ার সময়। এমনকি ট্রেনের মধ্যে ও প্ল্যাটফর্মে ঘোষণা। এছাড়া যাত্রীদের ঢোকা বা বেরনোর অবস্থা। সেক্টর ফাইভ থেকে সল্টলেক স্টেডিয়াম পর্যন্ত মেট্রো চালিয়ে ইতিমধ্যেই ট্রেনিং সেরে ফেলেছেন চালকেরা। তাই সুড়ঙ্গ পথে আর নতুন করে সেই পরীক্ষা করতে হবে না। যদিও এদিন রেকের ব্রেকিং সিস্টেম আরও একবার পরীক্ষা করা হয়।

অন্যদিকে সেক্টর ফাইভ থেকে ফুলবাগান পর্যন্ত মেট্রো চালালে, ট্রেনের অভিমুখ বদলের জায়গা প্রস্তুত করতে হবে। ফুলবাগান স্টেশন ছেড়ে শিয়ালদহ স্টেশনের দিকে এগনোর পথেই তৈরি করা হয়েছে ক্রস ওভার। সেই ক্রসওভারে সিগন্যাল, পয়েন্ট এবং প্যানেল সংক্রান্ত সমস্ত কাজ শেষ করা হয়েছে। মেট্রো চালিয়ে পরীক্ষা পর্যন্ত সেরে ফেলা হয়েছে। ফলে ট্রেন ঘুরিয়ে নিয়ে আসতে কোনও অসুবিধা হচ্ছে না। এই অংশের কাজও দেখেন সি আর এস। সি আর এস পরিদর্শন সফল হওয়ায় মুখের হাসি চওড়া হয়েছে মেট্রোরেল আধিকারিকদের। স্টেশনের বাকি কাজ হয়ে গিয়েছে। কিছুদিন আগেই ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্প পরিদর্শনে গিয়েছিলেন মেট্রোরেলের জেনারেল ম্যানেজার। ফুলবাগান পর্যন্ত মেট্রো চালু হয়ে গেলে যাত্রী বাড়বে ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রো পথে। এর পরেই তাদের লক্ষ্য শিয়ালদহ পর্যন্ত দ্রুত মেট্রো চালু।

ABIR GHOSHAL

Published by: Ananya Chakraborty
First published: June 12, 2020, 5:58 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर