বিপর্যয় সামলে ফের ছুটবে "উর্বি", ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর কাজ শুরু করতে চায় KMRCL

বিপর্যয় সামলে ফের ছুটবে

ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য ফের ছুটতে চায় সুড়ঙ্গ তৈরির টানেল বোরিং মেশিন " উর্বি"।

  • Share this:

ARNAB HAZRA #কলকাতা: বিপর্যয় সামলে ফের ছুটবে "উর্বি"। শিয়ালদহমুখী সুড়ঙ্গের কাজ শুরু করতে চায় কেএমআরসিএল। সোমবার হাইকোর্টে জানাল কেএমআরসিএল। ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য ফের ছুটতে চায় সুড়ঙ্গ তৈরির টানেল বোরিং মেশিন " উর্বি"।   ১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ থেকে হঠাৎ স্লিপ খেয়েছে বাঙালি'র স্বপ্ন।  সৌজন্যে বৌবাজার বিপর্যয়। "চান্ডি",অন্য টিবিএম এখনও সুড়ঙ্গে দমবন্ধ হয়ে আটকে। আর কাজ শুরু করতে পারবে কিনা তা নিয়ে সংশয়। এই অবস্থায় সোমবার কলকাতা হাইকোর্টে কেএমআরসিএল নতুন করে কাজ শুরু করার আবেদন রাখল। "উর্বি" কে দিয়ে  শিয়ালদা পর্যন্ত সুড়ঙ্গ তৈরির কাজ এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই মেট্রো কর্তৃপক্ষ। ৭০০-৮০০ মিটার সুড়ঙ্গ তৈরি করলেই উর্বী শিয়ালদহ পৌঁছে যাবে। সাড়ে তিন মাস কাজ বন্ধ থাকার পর ফের কাজ শুরু করতে চাইছে কেএমআরসিএল। এর আগে কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশ এই উর্বিকে ৫ মিটার শিয়ালদা অভিমুখে এগোনো হয়। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিয়ে এই প্রক্রিয়া চলে। উর্বির এই পরীক্ষার পর ইঞ্জিনিয়াররা এখন নিশ্চিত সুড়ঙ্গ তৈরীর কাজ শুরু হলে আর কোন অসুবিধা হবে না। তাই শিয়ালদার মুখে সুড়ঙ্গ তৈরীর কাজ শুরু করতে চাওয়া আদালতের কাছে। প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ কাজ শুরুর আবেদন লিখিত আকারে জানানোর নির্দেশ দিয়েছে কেএমআরসিএল-কে। শুক্রবার এই "কাজশুরু" আবেদনের শুনানি হবে আদালতে।

জনস্বার্থ মামলাকারীর  তরফে আইনজীবী ঋজু ঘোষাল জানান, " বিশেষজ্ঞ কমিটির রিপোর্ট খতিয়ে দেখেই আমরা এ বিষয়ে আমাদের মত জানাব আদালতকে।" কেএমআরসিএল সূত্রে খবর, উর্বি শিয়ালদহ পর্যন্ত সুড়ঙ্গ তৈরি সম্পূর্ণ করলে, তাকে দিয়েই চান্ডির কাজটাও করানো যাবে। সে ক্ষেত্রে বড় অন্তরায় কলকাতা হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা। তাই হাইকোর্টে সুড়ঙ্গ তৈরীর কাজ শুরুর আবেদন। ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্প গোটা দেশে এক সোনালী প্রকল্প। হুগলি নদীর নিচে দিয়ে টানেল তৈরীর কাজ ইতিমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। বউবাজার বিপর্যয় কিছুটা হলেও ব্যাকফুটে ঠেলে দিয়েছিল কেএমআরসিএল-কে। বউবাজার বিপর্যয় সামলে, পুনর্বাসনের সমস্যা কাটিয়ে উঠে নতুন উদ্যমে ছুটতে চাইছে "উর্বি"।

First published: December 16, 2019, 9:58 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर