বর্ষবরণে বিশৃঙ্খলা এড়াতে শহর জুড়ে কড়া নিরাপত্তা

বর্ষবরণে বিশৃঙ্খলা এড়াতে শহর জুড়ে কড়া নিরাপত্তা
Representative Image (REUTERS/Ezra Acayan)

বর্ষবরণে বিশৃঙ্খলা এড়াতে শহর জুড়ে কড়া নিরাপত্তা

  • Share this:

 #কলকাতা: উৎসবের মরশুমে কলকাতা ও সল্টলেকে কড়া সতর্কতা। কোনও রকম অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে প্রস্তুত পুলিশ। পানশালা, রেস্তোরাঁগুলির জন্যেও একাধিক নির্দেশকা জারি করা হয়েছে। ইভ টিজিং রুখতে থাকবে অ্যান্টি মলেস্টেশন টিম। শপিং মল, বিনোদন পার্কসহ কলকাতা ও সল্টলেকের গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাগুলিতে নজরদারিতে ঘুরবে স্পেশাল মোবাইল ভ্যান।

২০১৮-র কাউন্ট ডাউন শুরু। বর্ষবরণের রাত নিরাপদ করতে প্রস্তত কলকাতা পুলিশ। নতুন বছরে সব রকম নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে উদ্যোগী বিধাননগর কমিশনারেটও। বাড়তি নজর দেওয়া হয়েছে মহিলাদের নিরাপত্তায়। ইভটিজিং রুখতে শহরের সর্বত্র ঘুরবে অ্যান্টি মলেস্টেশন স্কোয়াড ৷

ইভ টিজারদের দৌরাত্ম্য রুখতে

-- সাদা পোশাকে থাকবে মহিলা পুলিশকর্মী

-- বিনোদন পার্ক, মল, পুলিশ কিয়স্কে থাকবে হেল্প ডেস্ক

পানশালা, রেস্তোরাঁগুলির জন্যেও থাকছে কড়াকড়ি। জারি করা হয়েছে একাধিক নির্দেশকা। ড্রাগ ব্যবহার রুখতে মোতায়েন করা হচ্ছে সাদা পোশাকের পুলিশ।

পানশালায় কড়া নজরদারি

-- রাত ২ টোর পর মদ পরিবেশন করা যাবে না

-- ১৮ বছরের নীচে কেউ মদ্যপান করতে পারবে না

-- পার্কিং, নিরাপত্তার সুষ্ঠু ব্যবস্থা না থাকলে কড়া ব্যবস্থা

শহরের গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাগুলিতে পুলিশ মোতায়েন থাকবে। পুলিশের শীর্ষ কর্তারাও সজাগ থাকবেন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলিতে।

--পার্ক স্ট্রিট এলাকায় ১১টি ওয়াচ টাওয়ার ও ১৫টি পুলিশ বুথ

-- কলকাতা পুলিশের ১৪টি কুইক রেসপন্স টিম

-- ট্রমা কেয়ার অ্যাম্বুল্যান্স থাকছে ২৬টি

-- গঙ্গার ঘাটেও টহলদারি

-- প্রতিটি মেট্রো স্টেশনে অতিরিক্ত পুলিশ

-- বিধাননগর এলাকায় ৭০০ পুলিশ মোতায়েন

-- নিক্কো পার্ক, ইকো পার্ক, শপিং মল, সেক্টর ফাইভে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন

ইকো পার্ক চত্বরে যানজট এড়াতে বিমানবন্দরগামী গাড়িগুলির রুট বদল হয়েছে। বিমানবন্দরগামী গাড়িগুলি নারকেল বাগান, ইকোস্পেস, আকাঙ্খা মোড় হয়ে বিমানবন্দর যাবে। বিকেল চারটে থেকে আটটা পর্যন্ত ইকো পার্কের সামনে দিয়ে কোনও গাড়ি চলবে না। ইকো পার্কে যাওয়ার জন্য বিশেষ ১১৫টি বাসের ব্যবস্থা করা হবে। বর্ষবরণে মধ্যরাত পর্যন্ত শহরে চলবে মেট্রো রেল ৷

First published: 10:29:58 AM Dec 31, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर