• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • HEAVY TO VERY HEAVY RAIN LASHED IN BENGAL READ ALERT FOR NORTH BENGAL SDG

Red Weather Alert: বদলে গেল আবহাওয়া, শুক্র-শনিতে প্রবল বৃষ্টি! রাজ্যের 'এই' জেলাগুলিতে লাল সর্তকতা জারি...

বদলে গেল আবহাওয়া। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই মেঘলা আকাশ। কোথাও হালকা থেকে মাঝারি আবার কোথাও ভারী বৃষ্টি শুরু হয়েছে। শুক্র-শনিতে প্রবল বৃষ্টির পূর্বাভাস।

বদলে গেল আবহাওয়া। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই মেঘলা আকাশ। কোথাও হালকা থেকে মাঝারি আবার কোথাও ভারী বৃষ্টি শুরু হয়েছে। শুক্র-শনিতে প্রবল বৃষ্টির পূর্বাভাস।

  • Share this:

#কলকাতা: বদলে গেল আবহাওয়া। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই মেঘলা আকাশ। কোথাও হালকা থেকে মাঝারি আবার কোথাও ভারী বৃষ্টি শুরু হয়েছে।  শুক্র-শনিতে প্রবল বৃষ্টির পূর্বাভাস। উত্তরবঙ্গ জুড়ে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টি চলবে আগামী ৪৮ ঘণ্টা। শুক্র ও শনিবার প্রবল বৃষ্টির লাল সর্তকতা জলপাইগুড়ি, কোচবিহার আলিপুরদুয়ারে। দার্জিলিং, কালিম্পংয়েও ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টি হবে। ভারী বৃষ্টি হবে মালদহ উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুরে। রবিবার পর্যন্ত ভারী বৃষ্টি চলবে উত্তরবঙ্গে। দক্ষিণবঙ্গের নদিয়া মুর্শিদাবাদ, বীরভূম ও পশ্চিম বর্ধমানে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস। কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের বাকি জেলাতেও বজ্রবিদ্যুৎ-সহ হালকা মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে। বৃষ্টি না হলে জলীয়বাষ্প বেশি থাকার কারণে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি বাড়বে।

উত্তর প্রদেশ থেকে অসম পর্যন্ত নিম্নচাপ অক্ষরেখা বিস্তৃত। সক্রিয় মৌসুমী অক্ষরেখা। ফলে বঙ্গোপসাগর থেকে প্রচুর জলীয় বাষ্প ঢুকছে রাজ্যে। প্রবল বৃষ্টির জেরে আলিপুর আবহাওয়া দফতরের তরফে ইতিমধ্যেই উত্তরবঙ্গের পার্বত্য এলাকায় ধস নামতে পারে বোলএ আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে। সমতলে নদীর জলস্তর বাড়বে। নিচু এলাকা প্লাবনের আশঙ্কা।

আজ কলকাতায় কার্যত মেঘলা আকাশ। বজ্রবিদ্যুৎ-সহ দু-এক পশলা বৃষ্টির সম্ভাবনা। জলীয় বাষ্পের কারণে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তিও বজায় থাকবে। বৃহস্পতিবার সকালে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৬ ডিগ্রী। গতকাল সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৪.৩ ডিগ্রী। বাতাসে জলীয়বাষ্পের সর্বোচ্চ পরিমাণ ৯৪ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় বৃষ্টি হয়েছে ১৪.৫ মিলিমিটার। বিক্ষিপ্তভাবে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টি দক্ষিণবঙ্গের প্রায় সব জেলায়। বীরভূম, পশ্চিম বর্ধমান, নদিয়া, মুর্শিদাবাদে দু-এক পশলা ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস। উত্তরবঙ্গ লাগোয়া জেলাগুলিতে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে শুক্র ও শনিবার।

ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি চলবে উত্তরবঙ্গ জুড়ে। শুক্র ও শনি প্রবল বৃষ্টির সম্ভাবনা। বৃহস্পতিবার ভারী বৃষ্টির সর্তকতা  কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ারে। অতি ভারী বৃষ্টির সর্তকতা দার্জিলিং, কালিম্পং, জলপাইগুড়ি এবং ভারী বৃষ্টির  সর্তকতা মালদহ, উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুরে। শুক্রবার ও শনিবার প্রভুর বৃষ্টির লাল সর্তকতা জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার জেলায়। ২০০ মিলিমিটারের বেশি বৃষ্টিপাতের আশঙ্কা। অতিভারী বৃষ্টির  সর্তকতা দার্জিলিং, কালিম্পংয়ে। ভারী বৃষ্টির সর্তকতা মালদহ উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুরে। রবিবারেও ভারী বৃষ্টির সর্তকতা দার্জিলিং, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার এবং জলপাইগুড়ি জেলাতে।

শনিবার পর্যন্ত অতিভারী বৃষ্টি হবে বিহারে। আজ প্রবল বর্ষণের সম্ভাবনা অসম ও মেঘালয়। উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্য মনিপুর, মিজোরাম, নাগাল্যান্ড, ত্রিপুরা ও অরুণাচল প্রদেশেও ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস। আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, ১৯ জুন থেকে মৌসুমী বায়ু থমকে গিয়েছে উত্তর-পশ্চিম ভারতে। দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ুর অবস্থান এই মুহূর্তে ভিলওয়ারা, ঢোলপুর, আলীগড়, মিরাট, আম্বালা ও অমৃতসরের ওপর। গত কয়েকদিন একই জায়গায় অবস্থান করছে মৌসুমী বায়ু। আগামী কয়েকদিন মৌসুমী বায়ু এগিয়ে যাওয়ার কোনও পরিস্থিতি নেই বলে জানাচ্ছে আবহাওয়া দফতর। কয়েকদিন পঞ্জাব, চন্ডিগড়, হরিয়ানা, দিল্লি, এবং উত্তর প্রদেশের একাংশে তাপ -প্রবাহের সম্ভাবনা। পাকিস্থান থেকে শুকনো পশ্চিমী বাতাসের প্রভাবে এই তাপপ্রবাহ জানিয়েছে মৌসম ভবন।

Biswajit Saha 

Published by:Shubhagata Dey
First published: