Home /News /kolkata /
Kolkata News: হরিদেবপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে বালকের অসহায় মৃত্যু, চূড়ান্ত গাফিলতির ইঙ্গিত রিপোর্টে!

Kolkata News: হরিদেবপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে বালকের অসহায় মৃত্যু, চূড়ান্ত গাফিলতির ইঙ্গিত রিপোর্টে!

মারাত্মক ঘটনা ঘটে যেতে পারে

মারাত্মক ঘটনা ঘটে যেতে পারে

Kolkata News: হরিদেবপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে বালকের মৃত্যুর ঘটনায় কলকাতা পুরসভার বিশেষ তদন্ত কমিটির রিপোর্ট জমা পড়ল।

  • Share this:

#কলকাতা: হরিদেবপুর কাণ্ডে রিপোর্ট জমা পড়লো। থার্ড পার্টি কে দিয়ে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিলেন ফিরহাদ হাকিম। সেইমতো বিদ্যুৎ বিশেষজ্ঞ এবং যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক দের নিয়ে তৈরি হয়েছিল বিশেষ কমিটি। সেই কমিটির রিপোর্ট জমা পড়ল কলকাতা পুরসভায়। পাশাপাশি কলকাতা পুরসভার বিভাগীয় তদন্ত চলছে। হরিদেবপুর কাণ্ড নিয়ে চলছে পুলিশের তদন্তও।

হরিদেবপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে বালকের মৃত্যুর ঘটনায় কলকাতা পুরসভার বিশেষ তদন্ত কমিটির রিপোর্ট জমা পড়ল। কমিশনারের কছে রিপোর্ট জমা পড়েছে। চূড়ান্ত গাফিলতির ইঙ্গিত মিলল রিপোর্টে। পুরসভার কর্মীদের গাফিলতি র স্পষ্ট ইঙ্গিত। মেয়র ফিরহাদ হাকিমের নির্দেশে গঠিত বিশেষ তদন্ত কমিটি। কমিটিতে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদ্যুৎ বিশেষজ্ঞের নেতৃত্বে কমিটি দুদিনের মধ্যে রিপোর্ট জমা দিল। পুরসভা সূত্রের খবর, তিনটি বিষয়ে বিশেষ উল্লেখ রিপোর্টে।

আরও পড়ুন: 'টোটো চালক-চিকিৎসককেও ডাকছে, তারপর...', দুর্গাপুরে গর্জে উঠলেন মমতা! নিশানায় কে?

সংশ্লিষ্ট বিতর্কিত পোস্টে যে আলোর সংযোগ রয়েছে, সেখানে কোনোরকম আর্থিং এর কাজ করা হয়নি ৷ পোস্টের তারগুলি সঠিকভাবে জোড়া ছিল না৷ ওয়েল্ডিংও নিয়মমেনে করা হয়নি ৷ নিয়মিত নজরদারির স্পষ্ট অভাব। ওই আলো লাগানোর পর কয়েক মাস পার হলেও জন্য কোন পরিদর্শন করা হয়নি। গত রবিবার ২৬ জুন সন্ধেয় হরিদেবপুরের হাফিজ মহম্মদ ইশাক রোডে জমা জলে আলোর পোস্ট স্পর্শ করতেই তড়িদাহত হয় নীতীশ যাদব৷ এই ঘটনায় কলকাতা পুরসভা, সিইএসসি এবং বিএসএনএল কর্তৃপক্ষ একে অপরের ঘাড়ে দোষ চাপাতে শুরু করে ৷

আরও পড়ুন: সংস্কার চলছিল রবীন্দ্রভবনের, হঠাৎ বন্ধ কাজ, নেপথ্যে এক প্রাণী!

এই ঘটনায় মেয়র এবং পৌরনিগমের কমিশনারের নির্দেশে বিশেষ কমিটি তদন্ত শুরু হয় ৷ এই প্রসঙ্গে ফিরহাদ হাকিমের মন্তব্য, রিপোর্ট জমা পড়েছে কমিশনারের কাছে। আমি নিজেও দেখিনি। আইনের চোখে সবাই সমান। অযোগ্যদের পদে থাকার অধিকার নেই। আপনার অপদার্থতার জন্য কারো প্রাণ যদি যায় আপনিও শাস্তি পাবেন। ধামাচাঁপা দেওয়ার কোনো জায়গা নেই। কারণ অনুসন্ধান করা, যাতে আর পুনরাবৃত্তি না হয়। অনেক অফিসাররা খুব ক্যাজুয়াল নেন, অ্যাকশন না নিলে এই ক্যাজুয়ালনেস যাবে না। আসি যাই, মাইনে পাই এর দিন শেষ। বাংলায় কর্মসংস্কৃতি ফেরাতে চাই। ৩৪ বছরে যা ছিল না।

Published by:Suman Biswas
First published:

Tags: Haridevpur, Kolkata Municipality

পরবর্তী খবর