‘করোনা মোকাবিলায় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে,উত্তর দিতে বলা হয়নি’, মুখ্যমন্ত্রীকে ট্যুইট রাজ্যপালের

জানা গিয়েছে, ২০২০-২১ অর্থবর্ষে রাজভবনের জন্য বরাদ্দ করা বাজেট গত বছরের তুলনায় ৫০ শতাংশ কমানো হয়েছে৷ সরকারের ওই শীর্ষ আমলার অবশ্য দাবি, করোনা অতিমারির কারণে শুধু রাজভবন নয়, নিজেদের সব দফতরেরই বাজেট কমাতে বাধ্য হয়েছে রাজ্য সরকার৷ সেপ্টেম্বর থেকে আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত ব্যয় সংকোচনের সিদ্ধান্ত বহাল রাখছে রাজ্য সরকার৷

রাজ্যে করোনাভাইরাস মোকাবিলা কে কেন্দ্র করে ক্রমশই রাজ্য রাজ্যপাল সংঘাতের পারদ চড়ছে।

  • Share this:

#কলকাতা: রাজ্যে করোনাভাইরাস মোকাবিলা কে কেন্দ্র করে ক্রমশই রাজ্য রাজ্যপাল সংঘাতের পারদ চড়ছে। করোনাভাইরাস মোকাবিলায় রাজ্যে সোশ্যাল ডিসটেন্স থেকে শুরু করে লকডাউন এর বিধি কোন কিছুই মানা হচ্ছেনা বলে গত সপ্তাহ থেকেই সরব হয়েছেন রাজ্যপাল। বুধবার কার্যত মুখ্যমন্ত্রীকে টুইট করে খোঁচা দিয়ে লকডাউন সফল করতে কেন্দ্রীয় আধাসামরিক বাহিনী নামানোর পক্ষেও সওয়াল করেন। যদিও রাজ্যপালের এই টুইটের পাল্টা উত্তর বুধবারই নবান্ন থেকে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নাম না করে রাজ্যপালের এই মন্তব্যের সমালোচনায় করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্যের পাল্টা উত্তর দিলেন রাজ্যপাল জাগদীপ ধনকার। এদিন তিনি টুইট করে বলেন "করোনা মোকাবিলায় মুখ্যমন্ত্রীকে যে পরামর্শ গুলি দেওয়া হয়েছে সেগুলি নিয়ে ব্যবস্থা নিন, কোনো প্রতিক্রিয়া নয়। বর্তমান পরিস্থিতির সময় নয় সমালোচনা করার। যারা লকডাউন এর বিধি মানছে না তাদের কড়া হাতে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। যে সমস্ত আধিকারিকরা তা পারছে না তাদের সরিয়ে দেওয়া উচিত। দ্বিতীয় দফার লকডাউন এর গাইডলাইন জারি হয়েছে। সেগুলি কার্যকরী করুন এবং আপনার ১০০% দিন।"

রাজ্যে ক্রমশই বাড়ছে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। পাল্লা দিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ার পাশাপাশি রাজ্য রাজ্যপাল সংঘাতের আবহ ক্রমশই মাথাচাড়া দিচ্ছে। ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক গত সপ্তাহেই রাজ্যে লকডাউন এর বিধি মানা হচ্ছে না বলে সতর্ক করেছে রাজ্যকে। শনিবার থেকেই রাজ্যে লকডাউন এর বিধি মানা হচ্ছে না বলে সরব হয়েছেন রাজ্যের বিরুদ্ধে। শুধুুু তাই নয় ,কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের পাঠানো চিঠি নিয়ে ও মুখ্যমন্ত্রী কে উদ্দেশ্য করে একাধিকবার টুইট করেছেন রাজ্যপাল। লকডাউন এর বিধি না মানার পাশাপাশি সোশ্যাল ডিসটেন্স মানা হচ্ছে না বলেও ইতিমধ্যেই রাজ্যের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন রাজ্যপাল।

বুধবারই রাজ্যে লকডাউন এর বিধি সফল করার জন্য কেন্দ্রীয় আধাসামরিক বাহিনীর পক্ষে সওয়াল করেছিলেন রাজ্যপাল। যদিও তার পাল্টা উত্তর দিতে দেরিও করেননি মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্যপালের নাম না করে তার মন্তব্যের কার্যত সমালোচনা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তারই পরিপ্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার ফের টুইট করে মুখ্যমন্ত্রী কে কার্যত মনে করিয়ে দিলেন এটা উত্তর দেওয়ার সময় নয়, কাজ করার সময়।

Published by:Akash Misra
First published: