• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • নজির গড়ল রাজ্য, গুরুতর আহত ২ পড়ুয়ার জন্য ৫৮ কিমি রাস্তা হল গ্রিন করিডর

নজির গড়ল রাজ্য, গুরুতর আহত ২ পড়ুয়ার জন্য ৫৮ কিমি রাস্তা হল গ্রিন করিডর

এতদিন শুধুমাত্র অঙ্গ প্রতিস্থাপনের জন্য গ্রিন করিডর তৈরির নজির ছিল। ইতিহাসের চাকা ঘুরল শুক্রবার।

এতদিন শুধুমাত্র অঙ্গ প্রতিস্থাপনের জন্য গ্রিন করিডর তৈরির নজির ছিল। ইতিহাসের চাকা ঘুরল শুক্রবার।

এতদিন শুধুমাত্র অঙ্গ প্রতিস্থাপনের জন্য গ্রিন করিডর তৈরির নজির ছিল। ইতিহাসের চাকা ঘুরল শুক্রবার।

  • Share this:

    #কলকাতা: ৩৮ মিনিটে ৫৮ কিলোমিটার। নজির গড়ল রাজ্য। এই প্রথম দুর্ঘটনায় আহত দুই শিশুর প্রাণ বাঁচাতে গ্রিন করিডর। গতকাল হুগলির পোলবায় পুলকার দুর্ঘটনায় আহত হয়ে আশঙ্কাজনক দিব্যাংশু ভগত, ঋষভ সিং।

    এতদিন শুধুমাত্র অঙ্গ প্রতিস্থাপনের জন্য গ্রিন করিডর তৈরির নজির ছিল। ইতিহাসের চাকা ঘুরল শুক্রবার। এদিন সকালে হুগলির পোলবায় পুলকার দুর্ঘটনায় গুরুতর জখম দুই স্কুল পড়ুয়াকে বাঁচাতে গ্রিন করিডরের সিদ্ধান্ত নিল প্রশাসন। কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে দ্রুত চিকিৎসার জন্য আটান্ন কিলোমিটার রাস্তাকে গ্রিন করিডর হিসেবে চিহ্নিত করা হল।

    সকাল সাড়ে ন'টায় ইমামবড়া জেলা হাসাপাতালেই প্রাথমিক বৈঠক। প্রশাসনের সঙ্গে বৈঠকে বসেন চুঁচুড়ার বিধায়ক অসিত মজুমদার। জেলা প্রশাসন একটি নোট পাঠায় স্বাস্থ্য দফতরকে। গুরুত্ব বুঝে তা পুলিশের কাছে পাঠায় স্বাস্থ্য দফতর। এরমধ্যেই কলকাতা ও হাওড়া পুলিশের সাহায্য চায় হুগলি পুলিশ। সকাল সোয়া ১০টা নাগাদ আহত ঋষভকে নিয়ে প্রথম অ্যাম্বুলান্স ছাড়ে ইমামবড়া হাসপাতাল থেকে।

    হুগলির হাসপাতাল থেকে দিল্লি রোড হয়ে ডানকুনির মাইতিপাড়ায় আসে অ্যাম্বুল্যান্স। সেখান থেকে মোড় নেয় কলকাতার দিকে।

    মূলত ডানকুনির মাইতিপাড়া থেকে এসএসকেএম পর্যন্ত দীর্ঘ ৩০ কিলোমিটার রাস্তা অতিক্রম করে মাত্র ১৮ মিনিটে।

    Published by:Simli Raha
    First published: