জোর করে রং দিলে করতে হবে হাজতবাস, কড়া বার্তা লালবাজারের

জোর করে রং দিলে করতে হবে হাজতবাস, কড়া বার্তা লালবাজারের
photo source collected

দোলযাত্রা যাতে নির্বিঘ্নে মিটে যায় সেজন্য শহরজুড়ে মোট তিন হাজার অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হবে।

  • Share this:

#কলকাতা:  "খেলবো হোলি রং দেব না, তাই কখনও হয়!" রং খেলাকে কেন্দ্র করে শহরের আইন-শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রাখতে জনপ্রিয় এই বাংলা গানের লাইনকেই একটু অন্যভাবে ব্যাখ্যা করছে লালবাজার। পুলিশের সোজাসাপ্টা বক্তব্য, যারা রং খেলবেন তারা নিজেরা আনন্দে মাতুন, রাস্তায় বা এলাকায় অন্য কাউকে জোর করে রং দেওয়ার চেষ্টা করবেন না। এতে হিতে বিপরীত হতে পারে অর্থাৎ জোর করে রং দেওয়ার অভিযোগ পেলে যে রেহাই মিলবে না সেটাই স্মরণ করিয়ে দিতে চাইছে লালবাজার।

অন্যান্য বছরের মতো এ বছরও দোলযাত্রা এবং হোলি নির্বিঘ্নে সম্পন্ন করতে চাইছে কলকাতা পুলিশ। সবকিছু শান্তিপূর্ণভাবে যাতে মিটে যায় সেজন্য সবরকম ব্যবস্থা করা হলেও প্রত্যেকবার বেশকিছু ক্ষেত্রেই জোর করে রং দেওয়ার অভিযোগ আসে। তাই এবার আরও কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। এবছর রং খেলার অনেক আগে থেকেই প্রত্যেক থানা এলাকায় পাঠানো হচ্ছে সতর্কবার্তা। সেখানে বলা হচ্ছে, যদি জোর করে রং দেওয়ার অভিযোগ আসে তাহলে কঠোরতম পদক্ষেপ নিতে পিছপা হবে না পুলিশ। কলকাতা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার (সদর) শুভঙ্কর সিনহা সরকার বলেন, "জোর করে রং দেওয়া কিংবা কোনও রকম বেআইনি কার্যকলাপের অভিযোগ পেলে কড়া আইনগত ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।"

লালবাজার সূত্রের খবর, দোলযাত্রা যাতে নির্বিঘ্নে মিটে যায় সেজন্য শহরজুড়ে মোট তিন হাজার অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হবে। প্রত্যেক থানা এলাকায় মাইকে করে প্রচার করা হবে কেউ যাতে জোর করে রং না দেন সে বিষয়ে। রং খেলার দিন অলিগলিতে ঘুরে টহল দেবে সাদা পোশাকের পুলিশ। সতর্কতার জন্য বিলি করা হবে লিফলেট। কলকাতা পুলিশের এক ডিসি জানিয়েছেন, বহু ক্ষেত্রেই অভিযোগ আসে বহুতল বাড়ির ছাদ থেকে রং মেশানো জল ছুড়ে মারার। তিনি বলেন, "এধরণের ঘটনা আটকাতে বহুতল বাড়ির ছাদ থেকেও নজরদারি চালানো হবে।"

এর পাশাপাশি রং খেলার দিন শহরের বিভিন্ন জায়গায় নাকা চেকিং করবে পুলিশ। কেউ মদ্যপান করে গাড়ি কিংবা মোটর বাইক চালাচ্ছে কিনা তা পরীক্ষা করা হবে। এছাড়া মদ্যপ অবস্থায় কোনও এলাকায় কেউ যদি বিশৃঙ্খলা ছড়ানোর চেষ্টা করে কিংবা বেলেল্লাপনা করে তাহলেও পুলিশ ব্যবস্থা নেবে। প্রয়োজনে গ্রেফতার করা হবে। লালবাজারের এক পদস্থ কর্তা বলেন, "আমরা সাধারণ মানুষকে অনুরোধ করব কোথাও কোনও গোলমাল কিংবা জোর করে রং দেওয়ার ঘটনা করতে দেখলে কিংবা তাদের সাথে ঘটলে তারা যেন ১০০ ডায়ালে ফোন করে জানায়। কিংবা লালবাজার কন্ট্রোল রুমকে জানান। খবর পেলেই পুলিশ দ্রুত ব্যবস্থা নেবে।"

মহিলাদের নিরাপত্তার জন্য শহরের বিভিন্ন প্রান্তে টহল দেবে কলকাতা পুলিশের বিশেষ প্রশিক্ষিত 'উইনার্স' বাহিনীও। মহিলাদের কেউ কটুক্তি করলে কিংবা জোর করে রং দিতে গেলে গ্রেফতার করবে এই বাহিনী।

সুজয় পাল
First published: March 4, 2020, 11:09 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर