শোভনের অপেক্ষায় প্রায় ৫০ মিনিট রাস্তায় দাঁড়িয়েছিলেন বৈশাখী!

শোভনের অপেক্ষায় প্রায় ৫০ মিনিট রাস্তায় দাঁড়িয়েছিলেন বৈশাখী!

সূত্রের খবর, শুধু শোভনের নাম দেখে রেগে যান বৈশাখী। ঘনিষ্ঠ মহলে জানান, মঙ্গলবার রাজ্য বিজেপি দফতরে যাবেন না।

  • Share this:

#কলকাতা: দিল্লিতে শোভন-বৈশাখীর যোগদানের দিন অস্বস্তি বাড়িয়েছিলেন দেবশ্রী রায়। আর আজ বিজেপি রাজ্য দফতরে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সংবর্ধনার আগে অস্বস্তি বাড়ল দু’পক্ষেই। রাজ্য নেতৃত্বের বিরুদ্ধে প্রকাশ করলেন বৈশাখী। রাজ্য সভাপতির বক্তব্যের প্রতিবাদ জানালেন প্রকাশ্যেই।

মঙ্গলবার শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সংবর্ধনা। সোমবার রাজ্য বিজেপির ট্যুইটে শুরু বিতর্ক। সূত্রের খবর, শুধু শোভনের নাম দেখে রেগে যান বৈশাখী। ঘনিষ্ঠ মহলে জানান, মঙ্গলবার রাজ্য বিজেপি দফতরে যাবেন না। বৈশাখীর অবস্থানকে সমর্থন করেন শোভনও। খবর গড়ায় দিল্লি পর্যন্ত। দিল্লির নির্দেশেই ভুল শুধরে নেয় রাজ্য বিজেপি। ক্ষমা চাওয়া হয় শোভন-বৈশাখীর কাছে। তবুও এদিন বেলা পর্যন্ত চলে টালবাহানা। এরমধ্যে আর এক বিতর্ক। বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের মান ভাঙাতে রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের মন্তব্য, ‘যেমন ডালের সঙ্গে ভাত, শোভনের সঙ্গে তেমন বৈশাখী ৷’

নির্ধারিত সময়ের প্রায় আধঘণ্টা পর শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গেই বিজেপির রাজ্য দফতরে আসেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। হাজির থাকেন শোভনের সঙ্গে সংবর্ধনায়। কিন্তু সাংবাদিক বৈঠকে রাজ্য বিজেপি সভাপতিকে পাল্টা জবাব দিয়ে দিলীপের অস্বস্তি বাড়ালেন বৈশাখী। বলেন, ‘আমাকে অপমান করা হয়েছে। ‌জুতো মেরে গরুদানে বিশ্বাসী নই। গোটা ঘটনায় আমি খুব ব্যথিত।’‌

প্রথম দিনেই কী সংঘাত শুরু ? বৈশাখীর জবাবে এই প্রশ্ন রাজনৈতিক মহলের। তবে এখানেই শেষ নয়। বিকেল ৪:২৩ থেকে ০৫:১০ পর্যন্ত আবার অন্য ছবি রাজ্য বিজেপি দফতরের সঙ্গে।

দফতরের মধ্যে চলছে বিজেপির পরিষদীয় দলের বৈঠক। বাইরে গাড়িতে অপেক্ষায় বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন এই বৈঠকে শোভনের সঙ্গে যোগ দিতে গেলে বৈশাখীকে বাইরে অপেক্ষা করতে অনুরোধ করা হয়। বৈঠক শেষ করে দফতরে বাইরে আসেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। দফতরের সামনে তাঁর হাতে ফুল দেন কর্মীরা।

গাড়িতে ওঠেন শোভন। সেখানেই শুরু বৈশাখীর সঙ্গে খানিকক্ষণের আলোচনা। অবশেষে বেড়িয়ে যায় তাঁদের গাড়ি। রাজনৈতিক মহলের দাবি, প্রথম দিনেই রাজ্য বিজেপিতে ঝড় তুললেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। বুঝিয়ে দিলেন প্রয়োজনে লড়াই জারি রাখবেন তিনি।

First published: August 20, 2019, 9:24 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर