corona virus btn
corona virus btn
Loading

বাড়ি হবে দর্শনধারী, পরিবেশ দূষণমুক্ত! বাতিল মাস্কের অভিনব ব্যবহার শেখালেন শিক্ষক

বাড়ি হবে দর্শনধারী, পরিবেশ দূষণমুক্ত! বাতিল মাস্কের অভিনব ব্যবহার শেখালেন শিক্ষক

যত্রতত্র এই মাস্ক ফেলে যাতে কেউ পরিবেশ দূষণ না করেন তার জন্য অভিনব পথ দেখালেন মদারাট পপুলার একাডেমির জীববিদ্যা বিভাগের শিক্ষক চিত্তরঞ্জন নস্কর ।

  • Share this:

Arpan Mondal

কোভিড-19 সংক্রমণে মানুষের জীবনে ছন্দপতন ঘটেছে। সম্পূর্ণ পাল্টে গিয়েছে জীবনের গতিবিধি। যত দিন যাচ্ছে নিজের চরিত্র বদলাচ্ছে এই মারণ ভাইরাস  । যে কারণে ঘন ঘন বদলাচ্ছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশিকাও। করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে শুরু থেকেই মাস্ক বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে প্রথমেই n95 মাস্ক অথবা ভাল্ব যুক্ত মাস্ক বেশি নিরাপদ বলে জানানো হয়েছিল  কিন্তু পরবর্তীকালে সংস্থার পক্ষ থেকে সেই ভাল্ব যুক্ত মাক্স ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হল ।

ফলে এই মূল্যবান মাস্কগুলি বাতিল হয়ে যায়। তাই যত্রতত্র এই মাস্ক ফেলে যাতে কেউ পরিবেশ দূষণ না করেন তার জন্য অভিনব পথ দেখালেন মদারাট পপুলার একাডেমির জীববিদ্যা বিভাগের শিক্ষক চিত্তরঞ্জন নস্কর ।তিনি জানান, বাতিল হয়ে যাওয়া এই মাস্কগুলি যেখানে সেখানে না ফেলে যদি রংবেরঙের ওই মাস্ক গুলিতে ফুল গাছ লাগানো যায় তা হলে একদিকে যেমন বাড়ির শোভা বৃদ্ধি পাবে, অপরদিকে পরিবেশও দূষণ মুক্ত হবে। তাই খুব সহজেই কিভাবে এই ভাল্বযুক্ত মাস্কগুলি দিয়ে ফুল গাছের বাহারি ঝুলন্ত পট বানানো যায় তা নিজের হাতে করে দেখালেন চিত্তরঞ্জন বাবু।

দক্ষিণ বারাসাত উত্তর খাটসাড়া গ্রামের বাসিন্দা পেশায় শিক্ষক চিত্তরঞ্জন নস্কর ছোট থেকেই গাছ ভালোবাসেন, তাই নিজের বাড়ি লাগোয়া জায়গার পাশাপাশি নিজের বাড়ির ছাদে একটি বাগানও বানিয়েছেন তিনি। কী নেই তার সেই ছাদ বাগানে। ছাদেই ফুটিয়েছেন পদ্মফুল, ফলিয়েছেন স্ট্রবেরি ও ড্রাগন ফলের মতো ফল।

প্রেসিডেন্সি কলেজের বোটানি বিভাগের প্রাক্তনী চিত্তরঞ্জন বাবু শিক্ষকতার ফাঁকে গাছ নিয়ে চর্চা করেই চলেছেন। মরসুমি ফুলের পাশাপাশি রেয়ার ভ্যারাইটি ফল ও ফুল চাষকে তিনি হবি হিসেবে বেছে নিয়েছেন। তাই তার বাগানে ফলাচ্ছেন মুসাম্বি লেবু থেকে আঙ্গুরের মত ফল, বাদ যায়নি চেরি ফল ও।গাছপ্রেমী পরিবেশ বান্ধব এই শিক্ষক এ বার বাতিল মাস্কের মাধ্যমে ফুল চাষ করে দূষণ মুক্ত পরিবেশ গড়ার ডাক দিলেন।

Published by: Simli Raha
First published: August 17, 2020, 10:22 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर