corona virus btn
corona virus btn
Loading

হাইকোর্টে ‘ডেঙ্গি’ নিয়ে জোড়া জনস্বার্থ মামলা

হাইকোর্টে ‘ডেঙ্গি’ নিয়ে জোড়া জনস্বার্থ মামলা
File Photo: Calcutta High Court

হাইকোর্টে ‘ডেঙ্গি’ নিয়ে জোড়া জনস্বার্থ মামলা

  • Share this:

 #কলকাতা: রাজ্যের ডেঙ্গি পরিস্থিতি নিয়ে হাইকোর্ট জোড়া মামলা। আইনজীবী অনিন্দ্যসুন্দর দাসের পর এবার মামলা করল বিজেপির আইনজীবী সেল। ডেঙ্গি পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে বিশেষ কমিটি গঠন ছাড়াও, মৃত ও আক্রান্তের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ আবেদন জানানো হয়েছে। ডেঙ্গি নিয়ে রাজনীতি করছে বিজেপি। কটাক্ষ তৃণমূল কংগ্রেসের।

রাস্তায় নেমে মিছিল, স্বাস্থ্যভবন ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখিয়েই এতদিন ডেঙ্গির বিরুদ্ধে আন্দোলন জারি ছিল। এবার সরাসরি হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা করল বিজেপি। আগেই আইনজীবী অনিন্দ্যসুন্দর দাস রাজ্যের ডেঙ্গি পরিস্থিতি নিয়ে জনস্বার্থ মামলা করেন। এবার সেই পথেই হাটল বিজেপি। মামলার আবেদনে বেশকিছু তথ্য তুলে ধরে তারা। বিজেপির দাবি, ২০১০ থেকে ২০১৬ পর্যন্ত রাজ্যে বহু মানুষের মৃত্যু হয়েছে ৷

বিজেপি-র নজরে ‘ডেঙ্গি’

- রাজ্য                     আক্রান্ত         মৃত - পশ্চিমবঙ্গ         ১৭,৭০২        ৩৪ - পঞ্জাব                   ১০,৪৭৫        ১১ - গুজরাত                ৭,৮৬৯       ১৪ - উত্তরপ্রদেশ           ৭,৫১২       ৪২ - মহারাষ্ট্র                  ৬,৭০৮       ৩২

ডেঙ্গিতে আক্রান্তের সংখ্যায় শীর্ষে থাকলেও, রাজ্য কেন সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয়নি? আদালতে সেই প্রশ্নও তোলেন বিজেপি-র আইনজীবী শুভঙ্কর চক্রবর্তী।

জনস্বার্থ মামলায় বিজেপির আবেদন,

- নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে ডেঙ্গি পরিস্থিতি - পরিস্থিতি মোকাবিলায় যথাযথ পদক্ষেপের নির্দেশ দিক হাইকোর্ট - প্লেটলেট, ওষুধ সরবরাহ স্বাভাবিক করার আবেদন - নিরপেক্ষ উচ্চ পর্যায়ের কমিটি গঠন (করা হোক) - ডেঙ্গিতে মৃতের পরিবারকে ১০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ (দেওয়া হোক) - অর্থের অভাব আছে, সেরকম আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য ৫ লক্ষ টাকা (দিক রাজ্য) - পুরসভা ও পঞ্চায়েতগুলি কী পদক্ষেপ নিয়েছে, তার রিপোর্ট তলব (করা হোক) - কোনও দফতরের গাফিলতি ধরা পড়লে জরুরি পদক্ষেপ

যদিও ডেঙ্গি নিয়েও বিজেপি রাজনীতি করছে বলে মন্তব্য করেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ‘শূন্য কলসি বেশি বাজে ৷ বিজেপির কথা আর কাজে কোনও মিল নেই ৷’

ডেঙ্গি নিয়ে রাজনীতি হোক বা না হোক, রাজ্যে মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। একইসঙ্গে বাড়ছে আতঙ্ক।

First published: November 2, 2017, 7:57 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर