কেমন মানুষ ডোনাল্ড ট্রাম্প? মার্কিন প্রেসিডেন্টের চরিত্র কেমন? হাতের লেখায় উত্তরের খোঁজ

কেমন মানুষ ডোনাল্ড ট্রাম্প? মার্কিন প্রেসিডেন্টের চরিত্র কেমন? হাতের লেখায় উত্তরের খোঁজ

হস্তলিপি বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কয়েক লাইন হাতের লেখায় কোনও মানুষের পুরো চরিত্র বোঝা সম্ভব নয়।

  • Share this:

#কলকাতা: ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রথম ভারত সফরে তাঁর হাতের লেখা নিয়ে হইচই পড়ে গিয়েছে। ব্যক্তি হিসেবে কেমন ডোনাল্ড ট্রাম্প? কিরকম তাঁর চরিত্র? মার্কিন প্রেসিডেন্টের হাতের লেখা বিশ্লেষণ করে নিউজ18 বাংলাকে জানালেন হস্তলিপি বিশেষজ্ঞরা শুভ্রবরণ চক্রবর্তী। । আহমেদাবাদের সবরমতী আশ্রম কিম্বা তাজমহলের ভিজিটার্স বুকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট লিখে রাখলেন মনের কথা। বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী দেশের, সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি। তাই ট্রাম্পের হাতের লেখা নিয়েও হইচই শুরু হয়ে গিয়েছে সোশাল মিডিয়ায়। প্রেসিডেন্টের হাতের লেখার ধরন কাঁটাছেড়া করতে শুরু করে দিয়েছেন নেটিজেনরা। সবরমতী আশ্রম এবং তাজমহলের ভিজিটার্স বুকে খোদ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জোড়া হাতের লেখা বার্তা সংবাদমাধ্যমের দৌলতে এখন ভাইরাল। সেই হাতের লেখার ধরণ দেখে গ্রাফোলজিস্ট বা হস্তলিপি বিশেষজ্ঞ শুভ্রবরণ-এর মতে, ডোনাল্ড ট্রাম্প একজন উচ্চাকাঙ্খী মানুষ। সেই সঙ্গে আগ্রাসীও। তাঁর দাবি, হাতের লেখার থিকনেস বা ঘনত্ব দেখে বোঝা যায় মানুষটির সম্পর্কে অনেক অজানা তথ্য। ভিজিটার্স বুকে ট্রাম্পের হাতের লেখা দেখে হস্তলিপি বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, তিনি একজন রাগী মানুষ। প্রচণ্ড আত্মবিশ্বাসী। সেই সঙ্গে শৌখিনও। সুগন্ধি পছন্দ করেন । হাতের লেখা দেখে সেই মানুষটির কী ধরনের খাবার পছন্দ তার খোঁজও মেলে বলে দাবি হস্তলিপি বিশেষজ্ঞের। কলকাতার হস্তলিপি বিশেষজ্ঞ শুভ্রবরণ চক্রবর্তীর কথায়, মার্কিন প্রেসিডেন্টের হাতের লেখা দুটি আমি ভাল করে খুঁটিয়ে-খুঁটিয়ে দেখেছি।

কলকাতার হস্তলিপি বিশেষজ্ঞ শুভ্রবরণ চক্রবর্তীর কথায়, মার্কিন প্রেসিডেন্টের হাতের লেখা দুটি আমি ভাল করে পর্যবেক্ষণ করে সেই লেখার অ্যাঙ্গেল বা কোণ দেখে আমার মনে হয়েছে যে, তিনি যেটা বিশ্বাস করেন সেটা খুব জোরালোভাবে বিশ্বাস করেন। যে কাজটা করেন তার নেপথ্যে তাঁর এনার্জি লেভেল বা শক্তিস্তর অত্যন্ত বেশি। যে কোনও ব্যাপারে নিজের মতামত প্রকাশ করার ব্যাপারে অন্যের মতামতের বিষয়ে প্রায় ভাবনার মধ্যেই রাখেন না ডোনাল্ড ট্রাম্প। ট্রাম্পের দুটি হাতের লেখা বিচার করে বিশেষজ্ঞরা এও বলছেন, মানুষের পারফরমেন্স- কর্মক্ষমতা এবং যোগ্যতাই তাঁর কাছে শেষ কথা। এককথায় প্রয়োজনীয় মানুষই তাঁর কাছে প্রিয়জন। ডোনাল্ড ট্রাম্প একজন অত্যন্ত চাপযুক্ত মানুষ। যেকোনও কঠিন পরিস্থিতি তিনি খুব সহজেই মোকাবিলা করতে পারেন। অন্তত ভিজিটার বুকে মার্কিন প্রেসিডেন্টের হাতে লেখা বার্তা দেখে এমনটাই জানাচ্ছেন হস্তলিপিবিদরা। প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে দেশের মাটিতে পা রাখার পর থেকেই একের পর এক আয়োজন মুগ্ধ করে দিয়েছে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে৷ তিনি বারবার সে কথা বলেওছেন ৷ সবরমতী আশ্রম থেকে বেরিয়ে আসার পথে ভিজিটার্স লগ বুকে লিখে এসেছেন ‘প্রাণের বন্ধু’ নরেন্দ্র মোদির কথা৷ আর মোতেরায় লাখ লাখ লোকের সামনে দাঁড়িয়ে সেই মোদিকেই প্রশংসায় ভরিয়ে দিলেন ট্রাম্প ৷ বললেন, ‘একজন চাওয়ালা হিসাবে জীবন শুরু করেছিলেন মোদি৷ তারপর তিনি এখন দেশের প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন৷ তাই তিনি শুধু এই দেশের জন্য না, সারা পৃথিবীর জন্য একটি উদাহরণ'। মার্কিন প্রেসিডেন্টের ভারত সফরের প্রথম দিন। শুরু থেকেই ভারতের রঙে রঙিন সস্ত্রীক ট্রাম্প। মোদির শহরের আঞ্চলিকতায় জমজমাট ট্রাম্পের সফর। জমকালো নাচ-গানে বারেবারে মজলেন ট্রাম্প-মেলানিয়া-ইভাঙ্কা। প্রেমের জন্য কতটা পথ হাঁটা যায়? প্রেমিকদের অনেকেই বলেন, কেন তাজমহল পর্যন্ত। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও সেই প্রেমিক গোত্রেরই মানুষ নিশ্চয়। ঝটিকা ভারত সফরে এসে তাজমহলকে দ্রষ্টব্য স্থানের বাইরে রাখেননি ডোনাল্ড ট্রাম্প। স্ত্রী মেলানিয়াকে নিয়ে গোধূলির আলোয় তাজমহল দেখলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। ভিজিটার্স বুকে লিখলেন, 'প্রেরণা দেয় তাজমহল। সবার সম্ভ্রম আদায় করে নেয় তাজমহল। ভারতের বৈচিত্রময় ঐতিহ্যের সাক্ষী এই তাজমহল। ভারতকে ধন্যবাদ।' একদিকে সবরমতী আশ্রম দর্শনের পর তার নিজে হাতে লেখা বার্তা। অন্যদিকে তাজমহল দর্শনের পরও মার্কিন প্রেসিডেন্টের নিজের হাতে লেখা দ্বিতীয় বার্তা প্রকাশ্যে আসার সঙ্গে সঙ্গেই ডোনাল্ড ট্রাম্পের হাতের লেখা নিয়ে হইচই এখন সব মহলে।

Venkateswar Lahiri 

First published: February 25, 2020, 9:28 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर