• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • DILIP GHOSH BJP STATE PRESIDENT ON FAKE CBI SANATAN ROYCHOWDHURY SANJ

Dilip Ghosh : সনাতন-বিজেপি যোগে অস্বস্তিতে গেরুয়া শিবির, 'পাঁচ টাকা চাঁদা দিয়ে সদস্যপদ নিলেই যোগ প্রমাণিত হয়?'

এড়ালেন দিলীপ

বস্তুত জালিয়াতিতে অভিযুক্ত সনাতনের (Fake CBI) কাছ থেকে বিজেপির সদস্যপদের রসিদ ও অন্যান্য নথি মিলতেই সনাতন যে তাঁদের দলের কেউ নয় তাই নিজের বক্তব্যের মাধ্যমে স্পষ্ট করেছেন দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)।

  • Share this:

#কলকাতা : "পাঁচ টাকা চাঁদা দিলে কিম্বা মিসডকল ( Missed call ) দিয়ে সদস্যপদ নিলেই যে সে বিজেপির কার্যকর্তা হয়ে গেল এমনটা নয়। মোবাইলের মিসডকলের মাধ্যমে কে সদস্য হচ্ছে তা আমাদের পক্ষে জানা সম্ভব নয়। আমরা চাই তৃণমূল সরকারের আমলে যে দুর্নীতি উনি করেছেন তার তদন্ত করে অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিক পুলিশ।" ভুয়ো সিবিআই সনাতন রায়চৌধুরীর (Fake CBI Sanatan Roychowdhury) কাছ থেকে বিজেপির সদস্যপদের রসিদ, রাজ্য সরকারের আইনি উপদেষ্টার ভুয়ো ভিজিটিং কার্ড এবং বিজেপির ন্যাশনাল এগজিকিউটিভ মেম্বারের কার্ড বাজেয়াপ্ত হওয়ার পরে এভাবেই সনাতন বিজেপি যোগ ওড়ালেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

বস্তুত জালিয়াতিতে অভিযুক্ত সনাতনের কাছ থেকে বিজেপির সদস্যপদের রসিদ ও অন্যান্য নথি মিলতেই সনাতন যে তাঁদের দলের কেউ নয় তাই নিজের বক্তব্যের মাধ্যমে স্পষ্ট করেছেন দিলীপ ঘোষ। ভুয়ো সিবিআই সনাতন রায়চৌধুরীকে (Fake CBI Sanatan Roychowdhury) গ্রেফতারের পর তাকে জেরা করতেই একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে আসতে শুরু করেছে। জানা যায় শুধু CBI আধিকারিক নয়, বিভিন্ন জায়গার বিভিন্ন দফতরের আধিকারিক বলে পরিচয় দিত সনাতন। তার কাছ থেকে বিজেপির সদস্যপদের (BJP Membership) রসিদ, রাজ্য সরকারের আইনি উপদেষ্টার ভুয়ো ভিজিটিং কার্ড এবং বিজেপির ন্যাশনাল এগজিকিউটিভ মেম্বারের কার্ড বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।

দেবাঞ্জনকাণ্ডের রেশ কাটতে না কাটতেই কলকাতায় ফের নীল বাতি লাগানো গাড়ি বাজেয়াপ্ত হয়। গাড়িতে সিবিআই স্টিকার পাওয়া যায়। এরপরেই গ্রেফতার হয় অভিযুক্ত। পুলিশ সূত্রে খবর, বরানগরের বাসিন্দা সনাতন রায়চৌধুরী কলকাতা হাইকোর্টের আইনজীবী। অভিযোগ, রাজ্য সরকারের স্ট্যান্ডিং কাউন্সিল ও সিবিআইয়ের কৌঁসুলি পরিচয়ে গড়িয়াহাট থানা এলাকায় ১০ কোটি টাকার সম্পত্তি আত্মসাতের চেষ্টা করেন ওই আইনজীবী। নীল বাতি লাগানো গাড়িতে সিবিআই স্টিকার দেখে সন্দেহ হয় পুলিশের। বয়ানে অসঙ্গতি মেলায় গতকাল সিঁথি এলাকা থেকে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে গড়িয়াহাট থানার পুলিশ।

এদিকে সনাতন রায়চৌধুরীর কাছ থেকে বিজেপির সদস্যপদের রসিদ মিলতেই অস্বস্তিতে বিজেপি। সনাতনের সঙ্গে যে তাদের দলের কোনও যোগ নেই , সে কথাই এখন বলে দায় ঝেড়ে ফেলতে চাইছে বিজেপি। যদিও বিজেপির বক্তব্য প্রসঙ্গে শাসকদলের মন্তব্য, 'বেকায়দায় পড়ে এখন দায় ঝেড়ে ফেলতে চাইছে ওরা'।

Published by:Sanjukta Sarkar
First published: