corona virus btn
corona virus btn
Loading

মিড ডে মিলের চাল নিয়ে সমস্যা, কেন্দ্রের সাহায্য না পেয়ে রাজ্যের তরফে চাল বিতরণ

মিড ডে মিলের চাল নিয়ে সমস্যা, কেন্দ্রের সাহায্য না পেয়ে রাজ্যের তরফে চাল বিতরণ
নিজস্ব চিত্র

মিড ডে মিল ও আইসিডিএসে চাল সরবরাহ নিয়ে চলছে কেন্দ্র-রাজ্য চাপানউতোর। আগামী ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত কোনওরকম চাল দিতে পারবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে এফসিআই।

  • Share this:

#কলকাতা: মিড ডে মিল ও আইসিডিএসে চাল সরবরাহ নিয়ে চলছে কেন্দ্র-রাজ্য চাপানউতোর। আগামী ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত কোনওরকম চাল দিতে পারবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে এফসিআই। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রের চূড়ান্ত মনোভাব বুঝতে আগামী ২২ ডিসেম্বর বৈঠক ডাকল রাজ্য সরকার। অভিযোগ বাচ্চাদের খাদ্য নিয়ে নোংরা রাজনীতি করছে কেন্দ্র।

মিড ডে মিল ও আইসিডিএসে চাল সরবরাহ করা যাবে না। রাজ্যকে চিঠি দিয়ে জানিয়ে দিল এফসিআই। চাল না থাকাতেই এই সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছে কেন্দ্র। কেন্দ্রের ভূমিকায় ক্ষুব্ধ রাজ্য। পালটা দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছেন রাহুল সিনহা।

আইসিডিএস ও মিড-ডে মিলের চাল নিয়ে এফসিআইয়ের বিরুদ্ধে কড়া অবস্থান রাজ্যের। কেন্দ্রের চূড়ান্ত মনোভাব বুঝতে আগামী ২২ ডিসেম্বর বৈঠক ডেকেছে রাজ্য। আপাতত জাতীয় খাদ্য সুরক্ষার জন্য মজুত চাল স্কুলে-স্কুলে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্যের খাদ্য দফতর।

চাল পাঠাচ্ছে রাজ্য দার্জিলিং বাদে উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে বাচ্চাদের জন্য চাল পাঠানো শুরু হয়েছে দক্ষিণবঙ্গে চাল পাঠানো হবে আগামী শুক্রবার থেকে প্রতি তিন মাস অন্তর আইসিডিএস এবং মিড-ডে মিলের জন্য প্রয়োজন ৫৭৬২৯ মেট্রিক টন চাল উত্তরবঙ্গের জন্য পাঠানো হয়েছে ১১২২০ মেট্রিক টন চাল বাকি ৪৬৪০৯ মেট্রিক টন চাল পাঠানো হবে শুক্রবার

এফসিআই ইতিমধ্যেই রাজ্যকে জানিয়েছে আগামি েফব্রুয়ারি পর্যন্ত তারা কোনও চালই সরবরাহ করতে পারবে না।

এফসিআইয়ের দাবি - তাদের হাতে পর্যাপ্ত চাল নেই - ফলে মিড ডে মিল ও আইসিডিএসে চাল দেওয়া যাবে না

ফেব্রুয়ারির পর আদৌ তারা চাল দিতে পারবে কিনা তা নিয়েও শুরু হয়েছে সংশয়। এফসিআইয়ের পরিবর্তে রাজ্য সরকার যে চাল দিচ্ছে তার পরিবর্তে কেন্দ্রের তরফে টাকা পাবে রাজ্য। সেই টাকা কবে পাওয়া যাবে তা নিয়েও তৈরি হয়েছে সংশয়। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রের চূড়ান্ত মনোভাব জানতে আগামী বাইশে ডিসেম্বর বৈঠক ডেকেছে রাজ্য।

ইতিমধ্যেই কেন্দ্রের তরফ থেকে রাজ্যের কাছে প্রস্তাব এসছে ভিন রাজ্য থেকে চাল নিয়ে আসার। কিন্তু এই প্রস্তাবে রাজি নয় রাজ্য সরকার। রাজ্যের বক্তব্য নিম্নমানের চাল সরবরাহ করতে চায় কেন্দ্র। যা বাচ্চাদের স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর।

রাজ্য অবশ্য আস্বস্ত করছে তাদের হাতে যা চাল আছে তা দিয়ে আগামি ছমাস চলবে।

First published: December 19, 2017, 12:38 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर