তৃণমূল বিধায়ক খুনে রক্ষাকবচ পেলেন মুকুল, CID-কে তদন্ত অগ্রগতি রিপোর্ট পেশের নির্দেশ হাইকোর্টের

তৃণমূল বিধায়ক খুনে রক্ষাকবচ পেলেন মুকুল, CID-কে তদন্ত অগ্রগতি রিপোর্ট পেশের নির্দেশ হাইকোর্টের

নদিয়ার তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক খুনে মুকুল রায়কে রক্ষাকবচ দিল কলকাতা হাইকোর্ট

  • Share this:

ARNAB HAZRA

#কলকাতা: নদিয়ার তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক খুনে মুকুল রায়কে রক্ষাকবচ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। ৪ মাস মুকুল-কে গ্রেফতার করতে পারবে না সিআইডি। সিআইডি গ্রেফতারে নিষেধাজ্ঞা নির্দেশ বিচারপতি জয়মাল্য বাগচী এবং বিচারপতি শুভ্রা ঘোষের ডিভিশন বেঞ্চের। তিন মাসের মধ্যে সিআইডিকে তদন্তের অগ্রগতি রিপোর্ট পেশ করতেও নির্দেশ আদালতের। ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, সরস্বতী পুজোর দিন নদিয়ায় খুন হন কৃষ্ণগঞ্জের বিধায়ক সত্যজিৎ বিশ্বাস। হাঁসখালী থানায় এফআইআর-এ মুকুল রায়ের নাম আসে। লোকসভা ভোটের আগেই এমন খুনে মুকুল রায়ের নাম জড়িয়ে যাওয়ায় কলকাতা হাইকোর্টে সে যাত্রায় আগাম জামিন চেয়ে আবেদন করেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়।

হাইকোর্ট নদিয়া জেলায় ঢোকার ওপর নিষেধাজ্ঞা চাপিয়ে রক্ষাকবচ দেয় মুকুলকে। এরপর তদন্ত এগোতেই, সিআইডি চার্জশিট থেকে নাম বাদ যায় মুকুল রায়ের। আগাম জামিনের আবেদনটি প্রাসঙ্গিকতা হারায়। আগাম জামিনের আবেদনটি প্রত্যাহার করে নেন মুকুল। এরপর সময় গড়াতেই নতুন মোড় নেয় কৃষ্ণগঞ্জের তৃণমূল বিধায়ক খুনের মামলা। খুনের মামলায় সন্দেহভাজন অভিযুক্ত হিসেবে মুকুলের বিরুদ্ধে আরও তদন্ত করতে চায় সিআইডি। সিআইডি-র আবেদন রানাঘাট আদালত মঞ্জুর করে। ২০মার্চ ২০২০ মধ্যে সিআইডিকে মুকুলের বিরুদ্ধে তদন্ত রিপোর্ট জমা দিতে নির্দেশ দেয় নিম্ন আদালত।

এই অবস্থায় ফের গ্রেফতারের আশঙ্কা তৈরি হয় মুকুল রায়ের। আবারও হাইকোর্টে আগাম জামিন চেয়ে আবেদন করেন মুকুল। সোমবার আগাম জামিনের শুনানিতে রাজ্যের এ্যাডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত জানান, খুনের মামলায় মূল অভিযুক্তের একটি ফোনের কথোপকথন সিআইডির হাতে এসেছে। যেখানে মুকুল রায়ের নাম সামনে আসছে। তাই মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে এই তদন্ত এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। যদিও মুকুলের আইনজীবী শুভাশিস দাশগুপ্ত জানান, রানাঘাট আদালতের নির্দেশের ভুল ব্যাখ্যা করছে রাজ্য।

উভয় পক্ষের সওয়াল-জবাবের পর মুকুল রায়কে রক্ষাকবচ দেয় হাইকোর্ট। তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের পর থেকেই মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে একের পর এক মামলা হয়েছে । নদিয়ার বিধায়ক খুনের মামলা তেমনই একটি। অবশ্য প্রতিবারের মতো এবারও মিথ্যা মামলা বলে পুলিশের অভিযোগ উড়িয়েছেন মুকুল।

First published: January 6, 2020, 10:11 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर