corona virus btn
corona virus btn
Loading

রাজ্যের পাশে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়, তৈরি করছে ২০০ লিটার স্যানিটাইজার ও মাস্ক

রাজ্যের পাশে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়, তৈরি করছে ২০০ লিটার স্যানিটাইজার ও মাস্ক

বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের উদ্যোগে বুধবার থেকেই স্যানিটাইজার তৈরির কাজ শুরু হল।

  • Share this:

করোনা মোকাবিলায় আবারো রাজ্যের পাশে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়। রাজ্যের কাছে স্যানিটাইজারের যোগান সচল রাখতে মোট ২০০লিটার স্যানিটাইজার তৈরীর উদ্যোগ নিল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়। স্যানিটাইজার এর পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে উন্নত মানের মাস্ক তৈরি করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের উদ্যোগে রাজাবাজার সাইন্স কলেজ এই স্যানিটাইজার তৈরীর কাজ বুধবার থেকে শুরু করা হয়েছে। অন্যদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জুট টেকনোলজি বিভাগের তরফে উন্নত মানের মাস্ক তৈরি করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। এ প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সোনালী চক্রবর্তী বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন "করোনা মোকাবিলায় রাজ্যকে আমরা সব রকম সহযোগিতা করতে প্রস্তুত। আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করছি স্যানিটাইজার ও মাস্ক তৈরি করে রাজ্য কে দেওয়ার।" তবে শুধু স্যানিটাইজার ও মাস্ক তৈরি করা নয়, লকডাউন চলাকালীন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীরা মানসিক অবসাদে না ভোগেন তার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় সাইকোলজি এবং অ্যাপ্লাইড সাইকলজি বিভাগের তরফে কাউন্সিলিংয়ের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

দেশজুড়ে ক্রমশই ভয়াবহ আকার নিচ্ছে করোনাভাইরাস। এই মুহূর্তে দেশজুড়ে করোনাভাইরাস এ আক্রান্তের সংখ্যা ৫ হাজারের কাছাকাছি।প্রত্যেকটি রাজ্য থেকেই করোনাভাইরাস এ আক্রান্ত হয়েছে।তালিকা থেকে বাদ যায়নি পশ্চিমবঙ্গ।এই মুহূর্তে এ রাজ্য থেকে করোনাভাইরাস এ আক্রান্ত হয়েছেেন প্রায় ৭০এর কাছাকাছি। যদিও অনেক আক্রান্ত ইতিমধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। গোটা দেশজুড়ে ১৪ ই এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। জল্পনা আছে এই লক ডাউন এর সময়সীমা বাড়তেও পারে। এরইমধ্যে রাজ্যজুড়ে স্যানিটাইজার ও মাস্কের যোগান কার্যত চাহিদার তুলনায় বেশি। মূলত বাজারে স্যানিটাইজার যোগান সচল রাখতে বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ে তরফেই স্যানিটাইজার তৈরীর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বুধবার থেকে সেই উদ্যোগে সামিল হল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের উদ্যোগে বুধবার থেকেই স্যানিটাইজার তৈরির কাজ শুরু হল। স্যানিটাইজার এর পাশাপাশি উন্নত মানের মাস্ক তৈরি করেছে বিশ্ববিদ্যালয় জুুট টেকনোলজি বিভাগ। বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার তথা রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক দেবাশীষ দাস জানিয়েছেন " মোট ২০০ লিটার স্যানিটাইজার তৈরি করা হবে। শুক্রবার এর মধ্যেই এই স্যানিটাইজার তৈরি করে রাজ্যের উচ্চশিক্ষা দপ্তরকে পাঠানো হবে।" এর পাশাপাশি প্রায়়় এক মাস লকডাউন এরমধ্যে ছাত্র-ছাত্রীরা মানসিক অবসাদ যাতে না হয় তার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের সাইকোলজি বিভাগের উদ্যোগে শুরু হয়েছে কাউন্সিলিং। প্রসঙ্গত মুখ্যমন্ত্রী ত্রাণ তহবিলে এক সপ্তাহ আগেই বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে ১০ লক্ষ টাকা অনুদান দেওয়া হয়েছে।

সোমরাজ বন্দোপাধ্যায়

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: April 8, 2020, 4:52 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर