‘ডিএ সরকারি কর্মীদের আইনি অধিকার’, স্যাটের রায় খারিজ করে জানাল হাইকোর্ট

‘ডিএ সরকারি কর্মীদের আইনি অধিকার’, স্যাটের রায় খারিজ করে জানাল হাইকোর্ট

মামলা ফেরানো হল স্টেট অ্যাডিমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনালে

  • Share this:

#কলকাতা: ডিএ মামলায় কলকাতা হাইকোর্টে খারিজ হয়ে গেল স্যাটের রায় ৷ শুক্রবার বিচারপতি দেবাশিস করগুপ্ত এবং বিচারপতি শেখর ববি শরাফের ডিভিশন বেঞ্চ স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিল মহার্ঘভাতা সরকারি কর্মীদের আইনি অধিকার, দয়ার দান নয় ৷ মামলা ফেরানো হল স্টেট অ্যাডিমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনালে ৷

১৬ মাস ধরে আইনি যুক্তি, পাল্টা যুক্তির লড়াই শেষে এদিন সরকারি কর্মীদের মহার্ঘভাতা নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ রায় শোনাল কলকাতা হাইকোর্ট ৷ সরকারি কর্মীদের মহার্ঘভাতা আইনসিদ্ধ অধিকার এই দাবিতে সিলমোহর দিল আদালত ৷ ২০১৭ সালে স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুনাল (স্যাট)-এ মহার্ঘভাতা নিয়ে মামলার শুনানির সময় রাজ্য সরকার জানিয়েছিল ডিএ সরকারি কর্মীদের অধিকার নয়। মহার্ঘ ভাতা দেওয়া না দেওয়া সরকারের ইচ্ছের অধীন ৷ সরকারের এই দাবিতে সিলমোহর দিয়েছিল স্যাটও ৷ এই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে মামলা করে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের সংগঠন ৷ সেই মামলাতেই এল এই রায় ৷

‘তাড়াহুড়ো করে রায় দিয়েছিল ট্রাইব্যুনাল’, মত হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের ৷ নতুন করে রায় পর্যলোচনা করার জন্য দুটি বিষয় স্যাটের কাছে ফেরত পাঠিয়েছে হাইকোর্ট ৷

১) কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারি কমর্চারীরা সমান হারে ডিএ পাবেন কিনা?

২) দিল্লি ও চেন্নাইয়ে কর্মরত রাজ্যের কিছু সরকারি কর্মচারী, এ রাজ্যে কর্মরত সরকারি কর্মচারীদের থেকে বেশি হারে মহার্ঘ ভাতা পান ৷ ফলে একই পদে কাজ করা সত্ত্বেও তৈরি হচ্ছে বেতন বৈষম্য ৷ এক্ষেত্রে প্রশ্ন তাদের সমানহারে ডিএ কি পাবেন রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা?

দুই মাসের মধ্যে সিদ্ধান্ত নিতে হবে স্যাটকে ৷

এক বছর ধরে হাইকোর্টে বিচারাধীন ছিল রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের ডিএ মামলা ৷ এর মাঝেই মামলা চলাকালীন নতুন হারে ডিএ ঘোষণা করে রাজ্য সরকার ৷ তবে সেই ডিএ লাগু হবে ২০১৯ জানুয়ারি থেকে ৷ এখন রাজ‍্য সরকারি কর্মীরা ১০০ শতাংশ ডিএ পান আর কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীরা পান ১৪৭ শতাংশ। এখনও ফারাক ৪৭ শতাংশ।

First published: 01:49:14 PM Aug 31, 2018
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर