‘একবার ঢুকতে দিন, সামনে মেয়ের বিয়ে, শাড়ি-গয়নাটুকু বের করে নিই’, বউবাজারে বাড়ির ধ্বংসস্তূপের পাশে দাঁড়িয়ে আর্তি

এমন সময়েই মাথায় ভাঙল আকাশ ৷ মেট্রোর টানেল খোঁড়ার জেরে আচমকায় ধসে পড়ল নতুন রঙ হওয়া ১৩ এ নম্বরের শীল বাড়ি ৷

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 03, 2019 04:41 PM IST
‘একবার ঢুকতে দিন, সামনে মেয়ের বিয়ে, শাড়ি-গয়নাটুকু বের করে নিই’, বউবাজারে বাড়ির ধ্বংসস্তূপের পাশে দাঁড়িয়ে আর্তি
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 03, 2019 04:41 PM IST

#কলকাতা: বাড়ির গায়ে সদ্য পড়েছিল রঙের পোঁচ ৷ গত একবছর ধরে চলছিল প্রস্তুতি ৷ বাড়ির ছোট মেয়ের বিয়ে উপলক্ষে চলছিল জোর প্রস্তুতি ৷ শপিং, গয়না গড়ানোর পাশাপাশি চলছিল বাড়ি মেরামতি ও সারানোর কাজ ৷ এমন সময়েই মাথায় ভাঙল আকাশ ৷ মেট্রোর টানেল খোঁড়ার জেরে আচমকায় ধসে পড়ল নতুন রঙ হওয়া ১৩ এ নম্বরের শীল বাড়ি ৷ চোখের নিমেষে ধুলোয় মিশে গেল তিনপুরুষের ভিটে সঙ্গে ধ্বংসস্তূপের নীচে চাপা পড়ল বিয়ের জন্য কেনা নতুন শাড়ি, বেনারসী, গয়না সহ আরও যে কত কিছু ৷

বিয়ের বাকি আর চারমাস ৷ তার মাঝেই এমন ঘটনায় গুলিয়ে গিয়েছে সব হিসেব ৷ মেয়ের বিয়ের আনন্দে মশগুল ছিলেন ১৩ এ দুর্গা পিতুরী লেনের বাসিন্দারা ৷ আর আজ চিন্তা মাথার ছাদ নিয়ে ৷ মঙ্গলবার সকাল থেকে অস্তিত্বই নেই ১৩ এ দুর্গা পিতুরী লেনের ৷ এক সপ্তাহ আগেই নতুন গোলাপী রঙের বাড়ি ছিল যেখানে আজ সেখানে স্বপ্নের ধংসস্তুপ ৷ এক কাপড়ে বেরিয়ে আসার সময় নিতে পারেননি শেষ সম্বলগুলোও ৷ সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউর এক হোটেলের ঘরে বসে শীল পরিবারের আর্তি যাতে মেয়ের বিয়ের জিনিসগুলি যদি উদ্ধার করা যায় ৷

আগামী ২২ জানুয়ারি এবাড়ির বাসিন্দা এম.এ ছাত্রী তৃষা শীলের বিয়ে ঠিক হয়েছে ৷ সে নিয়েই এখন গোটা পরিবারের চিন্তিত ৷ বিয়ের জন্য কেনা লক্ষাধিক টাকার গয়না শাড়ি ছাড়াও বিয়ের খরচ বাবদ জমা করা ১২ লক্ষ নগদ টাকাও এখন ধ্বংসস্তূপের নীচে অরক্ষিত ৷ মাথার ছাদ কবে ফিরবে তার ঠিক নেই কিন্তু আপাতত মেয়ের বিয়েটা ঠিকভাবে দেওয়া নিয়েই সংশয়ে পরিবার ৷ একবার কোনওভাবে ধ্বংসস্তুপে ঢুকতে দেওয়ার আর্জি জানাচ্ছেন তারা ৷

First published: 03:05:41 PM Sep 03, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर