• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • BJP IS CONSIDERING SMRITI IRANI AND SWAPAN DASGUPTA AS REPLACEMENT OF MUKUL ROY DMG

মুকুলের জায়গায় স্মৃতি না স্বপন? বিজেপি-র অন্দরে ঘুরছে দুই নাম

মুকুলের জায়গায় স্বপন না স্মৃতি?

বিজেপি-তে (BJP) সর্বভারতীয় সহ সভাপতির দশটি পদ রয়েছে৷ কার্যক্ষেত্রে যাই হোক না কেন, সম্মানের দিক থেকে এই পদের গুরুত্ব যথেষ্ট আর এই সূত্রেই উঠে আসছে মূলত দু' জনের নাম৷

  • Share this:

    #কলকাতা: তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন মুকুল রায়৷ ফলে খালি হয়েছে বিজেপি-র সর্বভারতীয় সহ সভাপতির পদ৷ মুকুলের জায়গায় কাকে এই দায়িত্ব দেবে বিজেপি? কারণ মুকুলের ছেড়ে আসা পদে বিজেপি এমন কাউকে বসাতে চাইছে, যিনি বাঙালি না হলেও অন্তত বাংলার সঙ্গে কিছুটা যোগ আছে৷

    ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনের পর বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্ব বুঝতে পেরেছেন, বাংলার মানুষের সমর্থন পাওয়ার জন্য বাঙালি কোনও মুখকেই সামনে রেখে এগোতে হবে৷ উদাহরণ হিসেবে উঠে আসছে শুভেন্দু অধিকারীর নাম৷ তৃণমূল থেকে বিজেপি-তে গিয়েও ধর্মীয় মেরুকরণ নিয়ে কট্টর অবস্থান নিয়েছেন শুভেন্দু৷ তাঁকে রাজ্যের বিরোধী দলনেতার মতো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বও দিয়েছে দল৷

    বিজেপি-তে সর্বভারতীয় সহ সভাপতির দশটি পদ রয়েছে৷ কার্যক্ষেত্রে যাই হোক না কেন, সম্মানের দিক থেকে এই পদের গুরুত্ব যথেষ্ট আর এই সূত্রেই উঠে আসছে মূলত দু' জনের নাম৷ সাম্প্রতিক কালে বাংলা থেকে এই গুরুত্বপূর্ণ পদে বসানো হয়েছিল একমাত্র মুকুল রায়কে৷ মুকুল দল ছাড়ায় এখন তাঁর পরিবর্ত হিসেবে দু'টি নাম বিজেপি-র অন্দরমহল সূত্রে পাওয়া যাচ্ছে৷ তার মধ্যে একজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি৷ প্রথমে শোনা গিয়েছিল কৈলাস বিজয়বর্গীয়র জায়গায় ভূপেন্দ্র যাদবকে বাংলার পর্যবেক্ষক হিসেবে দায়িত্ব দিয়ে স্মৃতিকে সহকারী পর্যবেক্ষক করা হতে পারে৷ কিন্তু বিজেপি সূত্রে খবর, মুকুলের জায়গায় স্মৃতি ইরানিকে নিয়ে আসার সম্ভাবনা যথেষ্ট জোরাল৷

    কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে স্মৃতি ইরানি বাংলায় যথেষ্ট সাবলীল৷ তাঁর সাজসজ্জাতেও বাঙালি ছোঁয়া থাকে৷ বিধানসভা নির্বাচনেও বাংলায় এসে দাপিয়ে প্রচার করেছেন স্মৃতি৷ এ রাজ্যে তিনি যথেষ্ট জনপ্রিয়ও৷ ফলে বাঙালি না হলেও মুকুলের ছেড়ে যাওয়া পদে তাঁর কথা গুরুত্ব দিয়েই ভাবা হচ্ছে৷ প্রশ্ন হচ্ছে, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হওয়া সত্ত্বেও স্মৃতিকে এই গুরুত্বপূর্ণ পদে আনা হবে কি না৷

    মুকুলের জায়গায় দ্বিতীয় যে নামটি ভাবা হচ্ছে তিনি হলেন স্বপন দাশগুপ্ত৷ বিধানসভা নির্বাচনে পরাজিত হয়ে ফের সাংসদ পদেই ফিরেছেন স্বপন৷ পর্যবেক্ষকদের মতে, শহুরে বাঙালিদের মধ্যে এখনও খুব ভাল সাড়া পায়নি বিজেপি৷ ভোটের ফলেও দেখা যাচ্ছে কলকাতা এবং শহরতলির আসনগুলিতে কার্যত দাঁত ফোটাতে পারেনি গেরুয়া শিবির৷ প্রেসিডেন্সি রেঞ্জের ৭৫টি আসনের মধ্যে মাত্র একটিতে জিতেছে তারা৷ এই পরিস্থিতিতে শহুরে বাঙালির সমর্থন পেতে স্বপন দাশগুপ্তের মতো উচ্চশিক্ষিত নেতাকে সর্বভারতীয় সহ সভাপতির মতো গুরুত্বপূর্ণ পদে আনার কথা ভাবা হচ্ছে বলে সূত্রের খবর৷ স্বপনবাবু নিজে অবশ্য ঘনিষ্ঠ মহলে দাবি করেছেন, এ রকম কোনও সম্ভাবনার কথা তাঁর জানা নেই৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: