• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • BIDHAN PARISHAD BILL MAMATA BANERJEE GOVT TO PROPOSE THE HISTORICAL BILL IN ASSEMBLY THIS JULY SANJ

Bidhan Parishad Bill : 'রাজ্য বিধান পরিষদ' গঠনে আরও এক ধাপ! বিধানসভায় গুরুত্বপূর্ণ বিল পেশ ৮ জুলাই

বিধান পরিষদ প্রস্তাব

আগামী ৮ তারিখ বিধানসভায় পেশ হতে চলেছে বিধান পরিষদ (Bidhan Parishad Bill) বিল। সোমবার সর্বদলীয় বৈঠকের পর সাংবাদিক বৈঠকে এই ঘোষণা করলেন রাজ্যের পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee)।

  • Share this:

    #কলকাতা: একুশের নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতার সরকার গঠনের পরেই ইস্তেহারের প্রতিশ্রুতি পালনে মন দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূলের দলীয় ইস্তেহারের মধ্যে অন্যতম ছিল বিধান পরিষদ গঠন। প্রতিশ্রুতি মতোই এবার সেই বিল বিধানসভায় পেশ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শাসক দল। আগামী ৮ তারিখ বিধানসভায় পেশ হতে চলেছে বিধান পরিষদ (Bidhan Parishad Bill) বিল। সোমবার সর্বদলীয় বৈঠকের পর সাংবাদিক বৈঠকে এই ঘোষণা করলেন রাজ্যের পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee)।

    জানা গিয়েছে বাজেট অধিবেশনের শুরুর মুখে রাজ্য বাজেট পেশের পরের দিনই এই গুরুত্বপূর্ণ বিল পেশ করা হবে। পাশাপাশি, বিধানসভা অধিবেশনের পূর্ণাঙ্গ সূচি এদিন জানিয়ে দেন শাসক দলের মহা সচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

    এদিন পার্থ চট্টোপাধ্যায় আরও জানান, রাজ্য বিধানসভার অধিবেশন শুরু হচ্ছে আগামী ২ জুলাই। ওইদিন রাজ্যপালের ভাষণ দিয়ে শুরু হবে অধিবেশন। দুপুর ২টো রাজ্যপালের ভাষণ। এরপরে কিছু সময় সভা বিরাম থাকবে। তারপর ধন্যবাদ জ্ঞাপন। পরে উপাধ্যক্ষ নির্বাচন হবে। পরের দু দিন – ৩ এবং ৪ জুলাই ছুটি। ৫ ও ৬ তারিখ রাজ্যপালের ভাষণের উপর বিতর্ক হবে। ১১ টা থেকে দুপুর ২টো অবধি। এর পর ৭ তারিখ দুপুর দুটোয় বাজেট পেশ। ৮ তারিখ বিধান পরিষদ তৈরির প্রস্তাবে গুরুত্বপূর্ণ বিল পেশ করা হবে।

    ২০১১ সাল থেকেই বিধান পরিষদ গঠনের উদ্যোগ নিয়েছে রাজ্যের তৃণমূল সরকার। এ নিয়ে দীর্ঘ আলাপ আলোচনাও হয়েছে। একুশে ক্ষমতায় ফেরার পরই বিধান পরিষদ গঠনের ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জানিয়েছিলেন, প্রথম বিধানসভা অধিবেশনেই এই বিল পেশ করা হবে বলে জানিয়েছিলেন তিনি। সেই কথা রাখলেন মুখ্যমন্ত্রী। ১৭ মে মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিধান পরিষদ গঠনের সিদ্ধান্ত পাশ হয়। এবার পালা বিধানসভায় প্রস্তাব পাশের।

    সর্বদল বৈঠক প্রশ্নে এদিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, "অধ্যক্ষ সর্বদল ডেকেছিলেন। বিজেপি পরিষদীয় দলের নেতারা অংশ নিয়েছিলেন। আমাদের মন্ত্রী, মুখ্য সচেতক এই বৈঠকে যোগ দিয়েছিলেন। অধ্যক্ষ সবাইকে বিধানসভার রীতি নীতি নিয়ে জানিয়েছেন আজকের বৈঠকে। অনেকেই নতুন আছেন তাই। সবার সমর্থন চাওয়া হয়েছে।"

    বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর সর্বদল বৈঠকে না আসা প্রসঙ্গে পার্থ বাবু এদিন বলেন, বিরোধী দলনেতা আসলে খুশি হতাম। তিনি কেন এলেন না জানি না। যাদের নাম নেই তাদেরকে পাঠিয়েছিলেন। নথিভুক্ত না থাকলে আসা যায় না।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: