ভোটপ্রচারে অন্য মেজাজে প্রার্থীরা, কারও গলায় গান, কারও হাতে বাজনা!

ভোটপ্রচারে অন্য মেজাজে প্রার্থীরা, কারও গলায় গান, কারও হাতে বাজনা!
  • Share this:

#কলকাতা: জেলায় জেলায় রবিবাসরীয় প্রচার শুধু জমজমাট নয়, রঙিনও। কোথাও ভোটপ্রচারের মাঝে নাচ। কেউ বা গাইলেন কীর্তন। কেউ আবার ভোটারদের বাড়ি গিয়ে হাত লাগালেন রান্নায়। কঠিন লড়াই। তাই রবিবাবার সকাল থেকেই বনগাঁয় ভোটপ্রচার জমজমাট। বিজেপি প্রার্থী শান্তনু ঠাকুরের লড়াই তাঁর জেঠিমা, তৃণমূল প্রার্থী মমতাবালা ঠাকুরের সঙ্গে। সকাল থেকেই প্রচার। মাঝে দলের সমর্থকদের চা বানিয়ে খাওয়ালেন শান্তনু। প্রচার করলেন চাঁদপাড়া বাজার এলাকায়। প্রচারে পিছিয়ে নেই মমতাবালা ঠাকুরও। বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটারদের সঙ্গে কথা বললেন, কখনও বা ছোট্ট শিশুকে কোলে তুলে নিলেন বনগাঁ কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী। প্রচারের ফাঁকে রান্নার কাজেও হাত লাগালেন মমতাবালা।

প্রচার তো আছেই, তার সঙ্গেই ধামসা, মাদলের তালে পা মেলালেন আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী মুনমুন সেন। বারাবনির পাঁচগাছিয়ায় কর্মিসভা শুরুর আগে আদিবাসী মহিলাদের মঞ্চে ডেকে তাঁদের সঙ্গে নাচ করলেন। রবিবাসরীয় প্রচারে পাওয়া গেল আর এক তারকা প্রার্থী শতাব্দী রায়কেও। নিজের কেন্দ্রে এবার হ্যাটট্রিকের লক্ষ্যে শতাব্দী। নলহাটি এক ব্লকের বিভিন্ন গ্রামে ছোট ছোট সভা করে প্রচার সারলেন শতাব্দী। প্রচারে বেরিয়ে অন্য রূপে দেখা গেল মালদহ এবং জলপাইগুড়ি কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থীদেরও।

চিকিৎসা ছেড়ে ভোটের ময়দানে জলপাইগুড়ির জয়ন্ত রায়। কাঁধে স্টেথোস্কোপ ছেড়ে ভোটের বাজারে হাতে করতাল তুলে নিতে দেখা গেল বিজেপি প্রার্থীকে। কর্মীদের নিয়ে দিনবাজারে গিয়েছিলেন। বাজারের একপাশে বসেছিল কীর্তনের আসর। সেখানেই কীর্তনিয়াদের গানের সাথে সঙ্গ দিলেন তিনি। বেরিয়ে এসে সাংবাদিকদের অনুরোধে গানও গাইলেন বিজেপি প্রার্থী।

পিছিয়ে নেই মালদহ দক্ষিণের বিজেপি প্রার্থী শ্রীরূপা মিত্র চৌধুরিও। রবিবার ইংরেজবাজারের বিভিন্ন ওয়ার্ডে প্রচারের ফাঁকে কখনও টোটোয় চড়ে বসলেন, কখনও বা পথচলতি মানুষের সঙ্গে খোশমেজাজে গল্পে মাতলেন। সেই সঙ্গে গানও গাইলেন মালদা দক্ষিণের বিজেপি প্রার্থী।

First published: 03:09:15 PM Apr 01, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर