• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • AFTER 17 HOURS YOUNG MAN DEAD BODY FOUND FROM WELL AT BANSHDRONI SR

পাতকুয়ার মিস্ত্রির হাত ধরেই এল সাফল্য, ১৭ঘণ্টা পর উদ্ধার বাঁশদ্রোণীর যুবকের দেহ

১৭ঘণ্টা পর পাতকুয়া থেকে উদ্ধার বাঁশদ্রণী র যুবকের দেহ। পাতকুয়ার মিস্ত্রি মেঘনাথ সরদারের হাত ধরেই এল সাফল্য।

১৭ঘণ্টা পর পাতকুয়া থেকে উদ্ধার বাঁশদ্রণী র যুবকের দেহ। পাতকুয়ার মিস্ত্রি মেঘনাথ সরদারের হাত ধরেই এল সাফল্য।

  • Share this:

SOMRAJ BANDOPADHYAY #কলকাতা: পারল না পুলিশ, বিপর্যয় মোকাবিলা দলের প্রশিক্ষিত ফোর্সও। সাফল্য এল পাতকুয়ার মিস্ত্রির হাত ধরেই। ১৭ ঘণ্টা পর বাঁশদ্রোণীর যুবকের দেহ উদ্ধার সম্ভব হল মিস্ত্রি মেঘনাথ সরদারের হাত ধরেই। সাধারণত বিভিন্ন সরকারি কাজে বিভিন্ন জায়গায় পাতকুয়া তৈরি করতে হয় মেঘনাথ সরদারকে। তবে আজ পর্যন্ত কোন জরুরী অবস্থায় তাঁর ডাক পড়েনি। শুক্রবার সন্ধ্যেবেলাতেই পুলিশ ও বিপর্যয় মোকাবিলা দল খুঁজছিল পাতকুয়ার মিস্ত্রিকে।

শুক্রবার দুপুরে স্নান করতে গিয়ে বাড়ির পাতকুয়া পড়ে যান সম্রাট সরকার। শুক্রবার রাত পর্যন্ত ডুবুরি নামিয়ে বিপর্যয় মোকাবিলা দল ও পুলিশ উদ্ধার করতে পারিনি সম্রাটকে। সম্রাটের দেহ উদ্ধারের পর মেঘনাথ সরকারি চাকরির দাবি রাখলেন।

1733_IMG-20191228-WA0005

বাঁশদ্রোণীর সোনালী পার্কে মা দিদার সঙ্গেই ভাড়া বাড়িতে থাকতেন বছর তিরিশের সম্রাট সরকার। শুক্রবার দুপুরে স্নান করতে গিয়ে পাতকুয়াতে পড়ে জান সম্রাট। দফায় দফায় চেষ্টার পরেও শুক্রবার রাত পর্যন্ত উদ্ধার করা যায়নি সম্রাটকে। সম্রাট মৃগী রোগে আক্রান্ত ছিলেন বলে জানিয়েছে তাঁর পরিবার।

পরিবারের তরফে দাবি শুক্রবার দুপুর আড়াইটে নাগাদ বাড়ি লাগোয়া পাতকুয়া স্নান করতে যান সম্রাট। কিছুক্ষণ পর হঠাৎই আওয়াজ শুনে ছুটে আসেন এক প্রতিবেশী মহিলা। ততক্ষণে ৫০ ফুট গভীরে তলিয়ে গিয়েছেন সম্রাট। খবর পেয়ে ছুটে আসে দমকল ও রিজেন্ট পার্ক থানার পুলিশ। ডাকা হয় বিপর্যয় মোকাবিলা দলকেও। পাম্পের সাহায্যে জল বের করার পর নামানো হয় ডুবুরিও। কিন্তু শেষ পর্যন্ত শুক্রবার রাত কেটে গেলেও উদ্ধার করতে পারা যায়নি ওই যুবককে। শনিবার সকাল থেকে ফের শুরু হয় উদ্ধারকাজ। প্রথমে বিপর্যয় মোকাবিলা ডুবুরিদের নামানো হয়। কিন্তু তাতেও উদ্ধার করা যাচ্ছিল না সম্রাটের দেহ। শেষ পর্যন্ত পাতকুয়ার মিস্ত্রি মেঘনাথ সরদারের হাত ধরেই সাফল্য এল। ১৭ ঘণ্টা পর উদ্ধার হল সম্রাটের দেহ। এ প্রসঙ্গে অবশ্য মেঘনাথ সরদার জানান, ‘সরকারি কাজে বিভিন্ন জায়গায় পাতকুয়ো তৈরীর জন্য তাঁকে ডেকে পাঠানো হয়। কিন্তু এই ধরনের কাজ কোনদিন করেননি।’ সরকারি চাকরির দাবি অবশ্য রেখেছে মেঘনাদ।

Published by:Simli Raha
First published: