corona virus btn
corona virus btn
Loading

হাসপাতালের অক্সিজেন পাইপলাইনের বহুমূল্য তামার তার চুরি, হাতেনাতে গ্রেফতার ৩ ঠিকা শ্রমিক

হাসপাতালের অক্সিজেন পাইপলাইনের বহুমূল্য তামার তার চুরি,  হাতেনাতে গ্রেফতার ৩ ঠিকা শ্রমিক
ফাইল ছবি

করোনা রোগীদের নিয়ে ব্যস্ত থাকার কারণে হাসপাতালের বহু জায়গায় অনেক মূল্যবান সামগ্রী চুরি হচ্ছে বলে অভিযোগ ।

  • Share this:

#কলকাতা: প্রায় দেড় মাস হল কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল করোনা হাসপাতাল হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে । করোনা রোগীদের নিয়ে ব্যস্ত থাকার কারণে হাসপাতালের বহু জায়গায় অনেক মূল্যবান সামগ্রী চুরি হচ্ছে বলে অভিযোগ ।

কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল , করোনা হাসপাতাল রূপে চিহ্নিত হওয়ার পর নবগঠিত সুপার স্পেশালিটি ব্লক এবং গ্রিন বিল্ডিং-এ মূলত করোনা আক্রান্ত এবং করোনা আক্রান্ত সন্দেহে রোগীদের ভর্তি করা হয় । মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে অন্যান্য প্রায় সমস্ত বিল্ডিং খালি পড়ে রয়েছে । শনিবার শতাব্দী প্রাচীন এমসিএইচ বিল্ডিংয়ের পেছনে দোতলার গ্রিল ও লোহার তার জাল কেটে চোরেরা প্রবেশ করে বলে অভিযোগ । দোতলা এবং তিনতলার মেল ও ফিমেল মেডিসিন বিভাগ ও কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগে অক্সিজেন সরবরাহ করা হয় যে পাইপের মাধ্যমে , সেই পাইপের ভেতরের তামার তার কাটে চোরেরা । প্রায় ৮৫০ ফুট তামার তার কেটে ফেলে চোরেরা ।

এরপর বিকালে ওই তার নিয়ে বের হওয়ার সময় অক্সিজেন দেখভাল করা কর্মীরা হাতেনাতে তিনজনকে পাকড়াও করে। যে পরিমাণ তামার তার চুরি করেছিল চোরের  দল , তার বর্তমান বাজার মূল্য প্রায় দু-লক্ষ টাকা । বউ বাজার থানার পুলিশ ৩ জনকে গ্রেফতার করে । হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে ,  প্রথমে মনে করা হয়েছিল মাদক সেবনকারীরা এই কাজের সঙ্গে যুক্ত । কিন্তু পরে জানা যায় , হাসপাতালের বিভিন্ন ইমারতি কাজে নিযুক্ত ঠিকা শ্রমিকদের কয়েকজন এই সমস্ত চুরির কাজে লিপ্ত ।

ধৃতদের মধ্যে মহম্মদ নাসির , মহম্মদ রসুল , দক্ষিণ ২৪ পরগনার ক্যানিং জীবনতলার বাসিন্দা এবং শেখ রবিউল কলেজ স্ট্রিট কলাবাগান বস্তির বাসিন্দা । কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে হাসপাতালের সুপার ডক্টর ইন্দ্রনীল বিশ্বাস জানান, "করোনা পরিস্থিতির সুযোগ নিয়ে হাসপাতালের বিভিন্ন জায়গায় মূল্যবান সামগ্রী চুরি হচ্ছে । ব্যস্ত থাকায় হাসপাতালের বিভিন্ন জায়গায় নজরদারির ফাঁক থাকছে , সেই সুযোগেই বিভিন্ন জায়গায় চুরি হচ্ছে । আমরা পুলিশকে জানিয়েছি আরও কড়া নজরদারি করার জন্য । হাসপাতালে তরফ থেকেও নজরদারি আরও বাড়ানো হবে । যেভাবে চুরি হচ্ছে তাতে হাসপাতালে অনেক ক্ষতি হচ্ছে ।"

ABHIJIT CHANDA

Published by: Shubhagata Dey
First published: June 21, 2020, 6:47 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर