Home /News /jalpaiguri /
India-Bangladesh Rail Service: বহু অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে উত্তরবঙ্গ থেকে শুরু হল ভারত-বাংলাদেশ রেল পরিষেবা

India-Bangladesh Rail Service: বহু অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে উত্তরবঙ্গ থেকে শুরু হল ভারত-বাংলাদেশ রেল পরিষেবা

আজ অপেক্ষার মিতালী এক্সপ্রেসকে স্বাগত জানাতে তৈরী জলপাইগুড়ি

আজ অপেক্ষার মিতালী এক্সপ্রেসকে স্বাগত জানাতে তৈরী জলপাইগুড়ি

India-Bangladesh rail service বহু প্রতীক্ষার অবসান চালু হল আন্তর্জাতিক রেল যোগাযোগ। জলপাইগুড়ির ওপর দিয়ে চলবে ভারত বাংলাদেশ রেল যোগাযোগ।

  • Share this:

    #জলপাইগুড়িঃ আজ থেকে শুরু হতে যাচ্ছে বহু প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে আন্তর্জাতিক রেল যোগাযোগ জলপাইগুড়ির ওপর দিয়ে। শুরু হচ্ছে ভারত বাংলাদেশ রেল যোগাযোগ। বহু দিনের দাবি মিটিয়ে আজ বাংলাদেশের মাটিতে পা রাখবে মিতালী এক্সপ্রেস। জলপাইগুড়ি তে এখন চলছে জোর কদমে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। চলছে লাইন পরীক্ষার জোর কদমে কাজ।

    বুধবার ১১ টা বেজে ৪৫ মিনিটে নিউ জলপাইগুড়ি হয়ে ১২ টা বেজে ১৫ তে জলপাইগুড়ি টাউন স্টেশনের উপর দিয়ে যাবে। এর পর ১ টা বেজে টা পনেরো মিনিটে হলদিবাড়ি স্টেশনে দাঁড়াবে। তারপর বাংলাদেশের উপর দিয়ে যাবে এই ট্রেনটি। যদিও এখন পর্যন্ত এই ট্রেনটি জলপাইগুড়ি তে থামার কোন ধরনের সিদ্ধান্ত নেই। তাই কিছু শহরবাসী জানিয়েছেন জলপাইগুড়ি টাউন স্টেশনে ট্রেনটি থামলে যারা বাংলাদেশ যাবে তাদের সুবিধা হত।

    এই প্রসঙ্গে উল্লেখ্য, এই ট্রেনেএ টিকিট বিক্রি ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে।এই মিতালী এক্সপ্রেসের যাত্রা শুরুর জন্য জোর তৎপরতা শুরু হয়েছে হলদিবাড়ি স্টেশনেও। আজ রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণ ও বাংলাদেশ রেলপথমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন ভার্চুয়ালি ট্রেনের উদ্বোধন করবেন। তারপরই নিউ জলপাইগুড়ি থেকে যাত্রা যাত্রা শুরু করবে এই ট্রেনটি। তবে এই ট্রেনটির টিকিট আর পাঁচটা ট্রেনের মত অনলাইনে মিলছে না। নির্দিষ্টি টিকিট কাউন্টার থেকেই মিলছে। নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশনে এই ট্রেনের টিকিট পাওয়া যাচ্ছে। এই টিকিট কাটার জন্য পাসপোর্ট, ভিসার প্রয়োজন আছে। বাংলাদেশের চিলাহাটি সহ একাধিক স্টেশন থেকে এই টিকিট পাওয়া যাচ্ছে।

    অত্যাধুনিক এই ট্রেনটিতে সব ধরনের সুবিধাই থাকছে। এসি কেবিন বার্থের ভাড়া ৪,৯০৫ টাকা, এসি কেবিন চেয়ারকার ৩৮০৫ টাকা অন্যদিকে এসি চেয়ারকারে ২৭০৭ টাকা ভাড়া। এই ট্রেনে ৫ বছর পর্যন্ত ছোটোদের ভাড়া অর্ধেক মূল্যে। জলপাইগুড়ি সংলগ্ন হলদিবাড়িতে এই ট্রেন থামছে কিছুক্ষণের জন্য। এই ‌যাত্রাপথের মোট ৫৯৫ কিমি রাস্তার ৬৯ কিমি রয়েছে জলপাইগুড়িতে। রবিবার ও বুধবার করে এই ট্রেন জলপাইগুড়ির ওপর দিয়ে যাবে। ঢাকা থেকে সোমবার ও বুধবার ছাড়বে।

    আজ এই ট্রেনকে অভ্যর্থনা জানাতে জলপাইগুড়ি নাগরিক মঞ্চের সদস্যরা উপস্থিত হবেন। রেল পরিষেবা সম্পর্কিত বেশ কয়েকটি ব্যানার ডিস প্লে করা হবে। ইতিমধ্যেই তারা জলপাইগুড়ি স্টেশনে উপস্থিত হয়েছেন।তবে, জলপাইগুড়ির অনেক স্থানীয় মানুষের দাবি, এই ট্রেনটি জলপাইগুড়ি স্টেশনে থামা দরকার। এতে অনেক ক্ষেত্রেই উন্নয়ন হবে মানুষের।

    Geetasree Mukherjee

    Published by:Piya Banerjee
    First published:

    Tags: Bangla News, India-Bangladesh Rail Service

    পরবর্তী খবর