KKR vs PBKS: জিতলেও নাইটদের টপ অর্ডার নিয়ে প্রশ্ন থাকছে

KKR vs PBKS: জিতলেও নাইটদের টপ অর্ডার নিয়ে প্রশ্ন থাকছে

ফের ফ্লপ গিল এবং রানা

২০ বল বাকি থাকতে জয় দাপট বয়ান করে তো বটেই। কিন্তু জয়ের ভেতরেও যে প্রশ্নটা বড় হয়ে দেখা দিচ্ছে তা হল কেকেআর টপ অর্ডার

  • Share this:

    #আমেদাবাদ: জায়গা বদলে ভাগ্য বদল! অবশেষে নতুন সপ্তাহে নতুন ভাগ্য খুঁজে পেল কলকাতা নাইট রাইডার্স। চেন্নাই এবং মুম্বই পর্ব দুঃস্বপ্নের চেয়ে কিছু কম ছিল না শাহরুখ খানের দলের কাছে। কিন্তু নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে এসে বহু আকাঙ্ক্ষিত জয় পেল দুবারের চ্যাম্পিয়ন দল। স্কোরবোর্ড সবসময় সঠিক কথা বলে না। কেকেআর ম্যাচ জিতেছে ৫ উইকেটে। দেখে মনে হবে বেশ দাপটের সঙ্গে। ২০ বল বাকি থাকতে জয় দাপট বয়ান করে তো বটেই। কিন্তু জয়ের ভেতরেও যে প্রশ্নটা বড় হয়ে দেখা দিচ্ছে তা হল কেকেআর টপ অর্ডার।

    বেশ কয়েকটা ম্যাচ ধরে টানা ফ্লপ শো দেখাচ্ছে এই টপ অর্ডার। ব্যাটিং কোচ ডেভিড হাসি নিশ্চিত ছিলেন এবার অন্তত বড় রান করবেন শুভমান গিল। কিন্তু কোথায় কী? প্রতিভা থাকা এক ব্যাপার, কিন্তু মাঠে নেমে পারফর্ম করা অন্য ব্যাপার। এদিনও ব্যর্থ গিল। শামির বলে আড়াআড়ি খেলতে গিয়ে এলবি ডব্লিউ হলেন। একদিকে যখন আরসিবি দলের তরুণ তারকা দেবদত্ত পারিকাল স্বপ্নের ব্যাটিং করছেন, তখন অন্যদিকে শুভমনের টানা ব্যর্থতা হতাশ করছে ক্রিকেটপ্রেমীদের।

    পাশাপাশি অন্য ওপেনার নীতিশ রানা প্রথম দুটো ম্যাচে অর্ধশতরান করার পর শেষ চার ম্যাচে কিছুই করেননি। আজ যেভাবে ফুলটস বলে আউট হলেন তা স্কুল পর্যায় হলেও শাস্তির মুখে পড়তে হয়। চার নম্বরে সুনীল নারিন কার্যত ব্যর্থ। তাঁকে ব্যবহার করা উচিত ব্যাটিং পাওয়ার প্লের সময়। সেক্ষেত্রে রানাকে তিন নম্বরে নামানো যেতেই পারে। কিন্তু কে শোনে কার কথা? আজ দল জিতেছে বলে হয়তো এসব প্রশ্ন উঠবে না। ধামাচাপা পড়ে যাবে। কিন্তু এই জায়গাটা উন্নতি করতে না পারলে আগামীদিনে শাহরুখ খানের দলের কপালে দুঃখ আছে।

    আজ ১২৩ তুলতে গিয়েই যেভাবে নাভিশ্বাস উঠে গিয়েছিল, তাতে শুনতে খারাপ লাগলেও করোনা  রুগির অক্সিজেনের অভাব বলে মনে হচ্ছিল। সুনীল গাভাসকার এবং ব্রায়ান লারার মত কিংবদন্তীরা সন্ধিহান কেকেআর ব্যাটিংয়ের টপ অর্ডার নিয়ে। ধারাবাহিকতা দেখাতে না পারলে এই চাপ টানা অধিনায়ক ইয়ন মর্গ্যান নিতে পারবেন না। যাই হোক, দিনের শেষে গুরুত্বপূর্ণ জয় এবং দুই পয়েন্ট কেকেআরের গুমোট পরিবেশে নতুন খোলা বাতাস বয়ে আনল।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: