• Home
  • »
  • News
  • »
  • ipl
  • »
  • CHRIS MORRIS VERY HAPPY TO PLAY A VITAL ROLE WITH BAT IN RAJASTHAN WIN RRC

RR vs DC: দলকে জিতিয়ে জবাব ১৬.২৫ কোটির মরিসের

মরিস বলছেন অতিরিক্ত চাপ নেই তাঁর

বৃহস্পতিবার ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে ১৮ বলে ৩৬ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে নিন্দুকদের জবাব দিলেন মরিস। মারলেন চারটি বিশাল ওভার বাউন্ডারি

  • Share this:

    #মুম্বাই: দলের প্রয়োজনে নিজের সেরাটা উজাড় করে দেবেন কথা দিয়েছিলেন। প্রয়োজন হলে ব্যাট এবং বল হাতে দল যেখানে চাইবে সেখানে চ্যালেঞ্জ নিতে তৈরি জানিয়েছিলেন। তাঁর অতীত টি টোয়েন্টি ট্র্যাক রেকর্ড বেশ ঈর্ষণীয়। এবার রেকর্ড পরিমাণ অর্থে তাঁকে যখন দলে নিয়েছিল রাজস্থান রয়েলস, অনেক প্রশ্ন উঠেছিল। বয়স হয়েছে, চোট সমস্যায় ভুগতে হয়েছে। প্রশ্ন ছিল ফিটনেস নিয়ে। তার ওপর আর্চার আগেই ছিলেন না। ছিটকে গিয়েছেন বেন স্টোকস। স্বাভাবিকভাবেই মরিসের ওপর বাড়তি দায়িত্ব এসে পড়বে জানতেন।

    বৃহস্পতিবার ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে ১৮ বলে ৩৬ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে নিন্দুকদের জবাব দিলেন। মারলেন চারটি বিশাল ওভার বাউন্ডারি। তিনি যে ফুরিয়ে যাননি প্রমাণ করলেন। বয়স তাঁর কাছে একটা সংখ্যা মাত্র। ম্যাচ শেষে জানালেন একবারের জন্যও মনে হয়নি দলকে জেতাতে পারবেন না। উল্টোদিকে পার্টনার বলতে ছিলেন জয়দেব উনাদকাট। কিন্তু ক্রিস মরিস জানতেন দিল্লির বোলাররা তাঁকে সমস্যায় ফেলার জন্য ফুল লেন্থ বল করবেন। তাই ক্রিজ থেকে এগিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন। নিশ্চিত ছিলেন যেদিকেই বল করা হোক, তিনি চালাবেন।

    কথায় বলে ভাগ্য সাহসীদের সহায় হয়। এদিন যেন ভাগ্য সঙ্গ দিল এই দক্ষিণ আফ্রিকান অলরাউন্ডারের। যাই ব্যাটে লেগেছে মাঠের বাইরে গিয়েছে। তবে তিনি নিজে ভাগ্যের দোহাই দিতে রাজি নন। পরিষ্কার জানিয়েছেন দলের অনুশীলন চলাকালীন বল করার পাশাপাশি নেটে ব্যাট হাতেও সময় দেন। প্রথম দিন পঞ্জাবের বিরুদ্ধে হেরে গিয়ে খারাপ লেগেছিল। অধিনায়ক সঞ্জুর অসাধারণ ইনিংস দলকে জেতাতে পারেনি। মরিস ঠিক করে রেখেছিলেন সেদিন ব্যাট হাতে যা করতে পারেননি, আজ সুযোগ পেলে করে দেখাবেন। কথা রেখেছেন তিনি।

    চাপের মুখে অনবদ্য লড়াইয়ে দলকে জিতিয়েছেন। তবে ম্যাচের সেরা নির্বাচিত হয়েছেন জয়দেব উনাদকট। তাতে অবশ্য কোনও দুঃখ নেই মরিসের। তিনি বরাবর টিম গেমে বিশ্বাসী। সিনিয়র ক্রিকেটার হিসেবে অন্য কেউ ম্যাচের সেরা হচ্ছে দেখলে তিনি আনন্দিত হবেন। পাশাপাশি জানিয়ে রাখলেন আগামীদিনেও অলরাউন্ডার হিসেবে দলকে সার্ভিস দিতে চেষ্টা করবেন। প্রশ্ন করা হল সবচেয়ে দামি ক্রিকেটার বলে নিজের ওপর কী আলাদা চাপ ছিল? মরিস জানালেন দীর্ঘদিন ক্রিকেট খেলার পরে এখন আর চাপ অনুভব করেন না। পরিস্থিতি বুঝে নিজেকে প্রয়োগ করতে চান। অতিরিক্ত দাম নিয়ে তিনি ভেবে সময় নষ্ট করতে নারাজ।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: