• হোম
  • »
  • খবর
  • »
  • IPL
  • »
  • BIRTHDAY BOY ANDRE RUSSELL FIGHTING INNINGS OF 45 RUNS GIVES OXYGEN TO KKR RRC

KKR vs DC: জন্মদিনে সমর্থকদের ঝকঝকে ইনিংস উপহার রাসেলের

KKR vs DC: জন্মদিনে সমর্থকদের ঝকঝকে ইনিংস উপহার রাসেলের

৪৫ রানের ইনিংস খেললেন রাসেল

২৭ বলে ৪৫ রানের ইনিংস সাজানো ছিল দুটি বাউন্ডারি এবং চারটি ওভার বাউন্ডারি দিয়ে। এদিন ছিল তাঁর জন্মদিন। ৩৩ বছরে পড়লেন ক্যারিবিয়ান তারকা

  • Share this:

    #আমেদাবাদ: দুদিন আগে কথা দিয়েছিলেন এবার নিজের দলের হয়ে আরও ধারাবাহিকতা দেখাবেন। মহেন্দ্র সিং ধোনির চেন্নাই সুপার কিংস দলের বিরুদ্ধে ৫৪ রানের ইনিংস ছাড়া চলতি আইপিএলে সেভাবে জ্বলে উঠতে দেখা যায়নি আন্দ্রে রাসেলকে। কিন্তু এদিন আবার জ্বলে উঠলেন আন্দ্রে রাসেল। দিল্লি ক্যাপিটালস দলের বিরুদ্ধে প্রথম থেকে নির্দিষ্ট পরিকল্পনা নিয়ে শুরু করলেন। প্রথমদিকে একটু সামলে নিয়ে তারপর নিজের স্বাভাবিক আক্রমণাত্মক খেলা শুরু করলেন।

    ২৭ বলে ৪৫ রানের ইনিংস সাজানো ছিল দুটি বাউন্ডারি এবং চারটি ওভার বাউন্ডারি দিয়ে। এদিন ছিল তাঁর জন্মদিন। ৩৩ বছরে পড়লেন ক্যারিবিয়ান তারকা। দিল্লির দক্ষিণ আফ্রিকান ফাস্ট বোলার রাবাদার এক ওভারে মারলেন দুটি বিশাল ছক্কা। যদিও স্কোরবোর্ডে যথেষ্ট রান তুলতে পারেনি কেকেআর, তবুও রাসেলের এই প্রচেষ্টা নাইট সমর্থকদের প্রত্যাশা বাড়াবে। দু'দিন আগেই মদের বোতল হাতে ছবি দিয়েছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।কোথায় ঝড় তুলবেন, প্র্যাকটিসে পরিশ্রম করবেন, তা নয়, উল্টে নেশা করছেন ঘরে বসে। শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি।

    সম্প্রতি নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় মদের বোতল হাতে ছবি দিয়েছেন রাসেল। সেখানে ক্যাপশন লিখেছেন, ' ইটস ওকে নট টু বি ওকে'। অর্থাৎ স্বাভাবিক জ্ঞানে না থাকাটাও মাঝে মাঝে ঠিক আছে। আর যায় কোথায়? মুহুর্তের মধ্যে তোলপাড় শুরু হয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তীব্র সমালোচনা করেছেন কেউ কেউ। আবার স্পোর্টিং স্পিরিটে অনেকে ব্যাপারটাকে দেখেছেন। তবে রাসেল হঠাৎ কেন এমন কাণ্ড ঘটালেন কেউ জানেন না। তবে কী টানা ব্যর্থতার পর আর নিজেকে সামলাতে পারলেন না? নাকি অন্য কোনও ব্যাপার। প্রেমে ধাক্কা খেয়েছেন? উঠছে বিভিন্ন রকম প্রশ্ন। বাড়ছে রহস্য।

    রাসেল কী শুধু মজা করতেই এমন করলেন? খুলে কিছু বলেননি তিনি। তবে একটা জিনিস নিশ্চিত ভাবে বলা যায়। এই টানা ব্যর্থতা যদি তাঁর চলতে থাকে তাহলে কেকেআর জার্সিতে এটাই তাঁর শেষ আইপিএল। অন্য ফ্র্যাঞ্চাইজি হলে এতদিনে তিনি দলে জায়গা পেতেন না। কেকেআর বলেই জামাই আদরে আছেন। কিন্তু সবকিছুর একটা সীমা আছে। হাতে থাকা বাকি কয়েকটা ম্যাচে উল্লেখযোগ্য কিছু করতে না পারলে বেগুনি সোনালী জার্সিতে তাঁর বিদায়ের সময় এসে গিয়েছে। কিন্তু আজকের এই ইনিংসের পর রাসেলকে নিয়ে টিম ম্যানেজমেন্টের বিশ্বাস কিছুটা বাড়বে। কঠিন পরিস্থিতির মুখে রান করছেন, এটাই ভরসা দিচ্ছে দলকে।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published:

    লেটেস্ট খবর