• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • পিসি কমলা হ্যারিসের নাম নিয়ে নিজের ভাবমূর্তি তৈরি করা যাবে না, মীনা হ্যারিসকে সাবধান বাণী মার্কিন-আইনজীবীদের

পিসি কমলা হ্যারিসের নাম নিয়ে নিজের ভাবমূর্তি তৈরি করা যাবে না, মীনা হ্যারিসকে সাবধান বাণী মার্কিন-আইনজীবীদের

মীনার যখন-তখন সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দেওয়ার এই অভ্যেস মোটেই ভালো চোখে দেখছে না হোয়াইট হাউজ

মীনার যখন-তখন সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দেওয়ার এই অভ্যেস মোটেই ভালো চোখে দেখছে না হোয়াইট হাউজ

মীনার যখন-তখন সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দেওয়ার এই অভ্যেস মোটেই ভালো চোখে দেখছে না হোয়াইট হাউজ

  • Share this:

#ওয়াশিংটন: মার্কিন মুলুকের প্রথম মহিলা উপরাষ্ট্রপতি হিসেবে কমলা হ্যারিস (Kamala Harris) যতটা খবরের শিরোনামে থেকেছেন, ঠিক ততটাই প্রচার পেয়েছেন কমলার ভাইঝি মীনা হ্যারিস (Meena Harris)। মীনা একজন সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সার। তিনি নানা রকম পোস্ট দেন যা অসংখ্য লাইক পান। যত দিন কমলা শুধুই একজন প্রার্থী ছিলেন, তখন বিষয় অন্য ছিল। কিন্তু এখন পরিস্থিতি জটিল হয়ে গিয়েছে। পাল্টে গিয়েছে মার্কিন দেশের রাষ্ট্রপতি। তাঁর সঙ্গেই হোয়াইট হাউজে পদার্পণ করেছেন নতুন উপরাষ্ট্রপতি কমলা হ্যারিস। আর ঠিক এখান থেকেই দানা বেঁধেছে বিতর্ক। কমলাকে নিয়ে নানা মজার ভিডিও বা ট্যুইট পর্যন্ত ঠিক ছিল, কিন্তু মীনা এখন মাঝে মাঝে কিছু স্পর্শকাতর রাজনৈতিক বিষয় নিয়েও কথা বলেন। সম্প্রতি ভারতে চলতে থাকা কৃষক আন্দোলনকে সমর্থন করেছেন মীনা। অনেকেই মনে করছেন যে মীনা প্রচারের আলোয় এসেছেন এবং সবাই তাঁর কথা শুনছে বা গুরুত্ব দিচ্ছে কারণ তিনি কমলা হ্যারিসের আত্মীয়া।

হোয়াইট হাউজ কর্তৃপক্ষ থেকে জনৈক ব্যক্তি, যিনি নিজের নাম প্রকাশ্যে আনতে ইচ্ছুক নন, এই বিষয়ে মুখ খোলেন। তাঁর মতে যা হয়েছে সেটা এখন আর ঠিক করা যাবে না। কিন্তু এখনও যা যা হয়নি, সেটা আটকানো যাবে। তাই নিজের স্বভাব পাল্টাতে হবে। শেষের এই উক্তি কার দিকে ইঙ্গিত করছে, সেটা বেশ স্পষ্ট। বোঝাই যাচ্ছে মীনার যখন-তখন সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দেওয়ার এই অভ্যেস মোটেই ভালো চোখে দেখছে না হোয়াইট হাউজ।

এমনিতেই এর আগের সরকারের উপরে ভয়ানক চটে ছিলেন আমেরিকান জনতা। নতুন রাষ্ট্রপতি আসার পর তাঁরা আশার আলো দেখছেন। আশার আলো দেখছেন অন্যান্য দেশও। যাদের অনেকের সঙ্গেই সম্পর্ক খারাপ হয়েছিল আমেরিকার। এই রকম স্পর্শকাতর একটি মুহূর্তে বার বার কমলার ছত্রছায়ায় মীনার নিজের ভাবমূর্তি তৈরি করার প্রয়াসে খুশি নন আমেরিকার আমলারা।

তাই আমেরিকার আইনজীবীরা সরাসরি বলেছেন যে কমলার নাম ব্যবহার করে বা পরোক্ষ ভাবেও কমলার নাম ব্যবহার করে মীনা কোনও কিছুর বিজ্ঞাপন করতে পারবেন না। কিছু দিন আগেই মীনা একটি সোয়েট শার্ট পরেন, যেখানে লেখা ছিল- ভাইস প্রেসিডেন্ট আন্টি। আবার অন্য একটি সোয়েট শার্টে লেখা ছিল- আই অ্যাম স্পিকিং, যা কি না আদতে কমলার বক্তৃতার একটি অংশ। কিন্তু ভবিষ্যতে এই ভাবে কমলাকে আর ব্যবহার করা যাবে না বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউজ!

Published by:Ananya Chakraborty
First published: