কুকুরছানাকে 'আই লাভ ইউ' সম্বোধন তোতাপাখির, কিউট Video-র জোয়ারে ভাসল নেটদুনিয়া!

কুকুরছানাকে 'আই লাভ ইউ' সম্বোধন তোতাপাখির, কিউট Video-র জোয়ারে ভাসল নেটদুনিয়া!

ছোট্ট কুকুরছানাকে 'আই লাভ ইউ' সম্বোধন তোতাপাখির, কিউট ভিডিওর জোয়ারে ভাসল নেটদুনিয়া!

এই পোস্ট শেয়ার করেছেন ওয়েন্ডি ম্যারি নামের এক মহিলা। তিনি প্রায়শই নিজের পোষা প্রাণীদের নিয়ে কিছু ভিডিও পোস্ট করে থাকেন।

  • Share this:
সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে এখন ভিডিওর কমতি নেই ইন্টারনেটে। নানা বিষয়, নানা কিছুর ভিডিও ভেসে বেড়ায় নেটজগতে। তার মধ্যে কিছু ভিডিও থাকে যা দেখলে মন খুব ভালো হয়ে যায়। এরকমই একটি ভিডিও এখন ভাইরাল হয়েছে। Instagram-এ পোস্ট করা এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে একটি দুর্দান্ত দেখতে সাদা তোতা বা কাকাতুয়া আই লাভ ইউ বা আমি তোমাকে ভালোবাসি বলছে একটি ছোট্ট কুকুরছানাকে। পাখির মতো কুকুরছানাটিও কম সুন্দর নয়। চকচকে লোমের কালো কুকুরছানাটিকে দেখা গিয়েছে একজনের কোলে শুয়ে থাকতে।
এই পোস্ট শেয়ার করেছেন ওয়েন্ডি ম্যারি নামের এক মহিলা। তিনি প্রায়শই নিজের পোষা প্রাণীদের নিয়ে কিছু ভিডিও পোস্ট করে থাকেন। Instagram-এ দ্য প্যারট লেডি বলে তাঁর একটি পেজ আছে। ভিডিও শুরু হতেই দেখা যাচ্ছে যে ওয়েন্ডি তাঁর পোষা তোতার সঙ্গে সবার আলাপ করিয়ে দিচ্ছেন। পাখিটি নিজে যেমন মিষ্টি, তার নামটিও ঠিক ততখানি মিষ্টি। পাখির নাম হল সুইট পি। অর্থাৎ মিষ্টি মটরশুটি। ওয়েন্ডির কোলের উপরেই তাঁর ছোট্ট কুকুরছানা শুয়ে আছে। আর তিনি যখন সুইট পি’র সঙ্গে সবার আলাপ করিয়ে দিচ্ছেন সেই সুযোগে পাখিটি তার পায়ের নখ দিয়ে খুব স্নেহের সঙ্গে কুকুরের মাথায় আঁচড় কাটছে। কয়েক সেকেন্ড পর ওয়েন্ডি সুইট পিকে অনুরোধ করেন যে সে যেন এই কুকুরছানাকে বলে যে সে তাকে ভালোবাসে। সবাইকে চমকে দিয়ে রীতিমতো অবাক করে পাখিটি বলে ওঠে আই লাভ ইউ। ভিডিওর ক্যাপশনে ওয়েন্ডি লেখেন যে এটা এই কুকুর ছানার সঙ্গে সুইট পি’র প্রথম সাক্ষাত। ভিডিওটি পোস্ট করার পরেই সুইট পি’র প্রেমে মজেছেন আপামর নেটজনতা। নানা রকম মন্তব্য আর ইমোজিতে ছেয়ে গিয়েছে ওয়েন্ডির কমেন্ট বক্স। হার্ট, কিস, ফায়ার, সব রকমের ইমোজি এর মধ্যে আছে। কমেন্টও এসেছে প্রচুর। অনেকেই এক বাক্যে স্বীকার করেছেন যে এই কলুষিত পৃথিবীতে এর চেয়ে শুদ্ধ কিছু আর হয় না। ওয়েন্ডির কাছে রাজার হালে থাকে এই পাখি। সুইট পি ছাড়াও আরও পাখি এবং পোষ্য আছে ওয়েন্ডির।
Published by:Raima Chakraborty
First published: