সমকামী ভাইয়ের সন্তান এল দিদির গর্ভে, পৃথিবীর আলো দেখল নবজাতক!

সমকামী ভাইয়ের সন্তান এল দিদির গর্ভে, পৃথিবীর আলো দেখল নবজাতক!

এক বছর কেটে যাওয়ার পরেও সমস্যার সুরাহা না হওয়ায় তাঁরা হতাশ হয়ে পড়েছিলেন। শেষে ভাই ডিগানের সাহায্যে এগিয়ে আসেন দিদি হলস।

এক বছর কেটে যাওয়ার পরেও সমস্যার সুরাহা না হওয়ায় তাঁরা হতাশ হয়ে পড়েছিলেন। শেষে ভাই ডিগানের সাহায্যে এগিয়ে আসেন দিদি হলস।

  • Share this:

#ম্যাঞ্চেস্টার: সমকামী ভাইয়ের জন্য গর্ভে সন্তান ধারণ করলেন দিদি। নজিরবিহীন ঘটনাটি ঘটেছে ইংল্যান্ডের ম্যাঞ্চেস্টারে। যা নিয়ে তোলপাড় হয়েছে বিশ্ব। ওই মহিলার সাহস এবং বিবেচনাকে কুর্নিশ করা হয়েছে। যার জেরে এক সুন্দর পুত্রসন্তানের জন্ম হয়েছে।

ম্যাঞ্চেস্টার-নিবাসী ওই সাহসী মহিলার নাম ট্রেসি হলস (Tracey Hulse), বয়স ৪২। বছর ৩৮-এর ভাই অ্যান্টনি ডিগান (Antony Deegan) সমকামী। কিন্তু সন্তানের বাবা হওয়ার ইচ্ছা তাঁর বরাবরের। একই বাসনা ছিল ডিগানের বছর তিরিশের পার্টনার রে উইলিয়ামসের (Ray Williams)। জৈবিক বাবা বা বায়োলজিক্যাল ফাদার (Biological Father) হতে তাঁরা সাধ্যসাধনা শুরু করেন। এই ইস্যুতে সারোগেসি ইউকে-র (Surrogacy UK) সোশ্যাল ইভেন্টের সঙ্গে তাঁরা যোগাযোগ করেন। এক বছর কেটে যাওয়ার পরেও সমস্যার সুরাহা না হওয়ায় তাঁরা হতাশ হয়ে পড়েছিলেন। শেষে ভাই ডিগানের সাহায্যে এগিয়ে আসেন দিদি হলস।

ম্যাঞ্চেস্টারের ট্রেসি হলস নিজে বিবাহিত এবং ছয় সন্তানের মা। ভাই আন্টোনি ডিগানের পাশে দাঁড়াতে যখন তিনি সারোগেট মাদার (Surrogate Mother) হওয়ার সিদ্ধান্ত নিলে সেই প্রক্রিয়ার সফলতা নিয়ে নিশ্চিত ছিলেন না তাঁর স্বামী। কিন্তু ট্রেসি মনকে তৈরি করে ফেলেছিলেন। ভাইয়ের আনন্দের জন্য ঝুঁকি নিতে রাজি হয়েছিলেন ৪২ বছরের ট্রেসি। দিদির প্রস্তাবে রাজি হয়ে যান ভাই ডিগান এবং তাঁর গে পার্টনার উইলিয়ামস।

গত বছরের ১২ অক্টোবর এক সুন্দর পুত্রসন্তানের বাবা হন অ্যান্টনি ডিগান ও রে উইলিয়ামস। একরত্তির নাম রাখা হয়েছে থিও (Theo)। আইভিএফ পদ্ধতিতে সন্তানের জন্ম দিতে সমকামী যুগলের ৩৬ হাজার ইউরো খরচ হয়েছে। জানা গিয়েছে যে বাবা হওয়ার ইচ্ছা ছিল দু'জনেরই। ফলে ডিগান ও উইলিয়ামসের বীর্য একসঙ্গে সংরক্ষণ করা হয়েছিল। অবশ্য শেষ পর্যন্ত কে থিও-র জৈবিক বাবা হয়েছেন, তা অবশ্য জানানো হয়নি। জানতে চাননি ডিগান এবং উইলিয়ামস।

আরও পড়ুন বিয়েতে মদ খাওয়া আটকালে নববধূর হাতে ১০ হাজার টাকা তুলে দেবে পুলিশ!

দিদি ট্রেসি হলস যে এই কাজ করতে পারবেন, তা নিয়ে শুরু থেকেই আত্মবিশ্বাসী ছিলেন ভাই অ্যান্টনি ডিগান। কারণ শৈশব থেকেই দিদি ও ভাইয়ের বন্ধুত্ব এবং রসায়ন দুর্দান্ত। একে অপরকে দুর্দান্ত ভাবে চেনেন ট্রেসি ও অ্যান্টনি। জগৎ আলাদা হলেও তাঁরা একে অপরকে সাহায্য করতে সদা প্রস্তুত থাকেন।

Published by:Pooja Basu
First published: