corona virus btn
corona virus btn
Loading

স্পাইডারম্যান হওয়ার নেশায় ব্ল্যাক উইডো মাকড়শার কামড় খেল তিন ভাই ! হাসপাতালে যমে-মানুষে লড়াই

স্পাইডারম্যান হওয়ার নেশায় ব্ল্যাক উইডো মাকড়শার কামড় খেল তিন ভাই ! হাসপাতালে যমে-মানুষে লড়াই

স্পাইডারম্যান সিরিজের ফ্যান তিন ভাই যে এই সুপারহিরোর ম্যাজিকে সারাদিন মজে থাকত, তা ভালই জানতেন অভিভাবকেরা ৷ কিন্তু তিনজন মিলে যে এমন অঘটন ঘটিয়ে ফেলবে স্বপ্নেও কল্পনা করতে পারেননি বড়রা ৷

  • Share this:

#পোতোসি, বলিভিয়া: একটাই স্বপ্ন, তিন ভাই একইসঙ্গে স্পাইডারম্যান হবে ৷ সুপারহিরো হওয়ার নেশায় মারাত্মক কাণ্ড ঘটিয়ে বসল তিন খুদে ৷ স্পাইডারম্যান সিরিজের ফ্যান তিন ভাই যে এই সুপারহিরোর ম্যাজিকে সারাদিন মজে থাকত, তা ভালই জানতেন অভিভাবকেরা ৷ কিন্তু তিনজন মিলে যে এমন অঘটন ঘটিয়ে ফেলবে স্বপ্নেও কল্পনা করতে পারেননি বড়রা ৷

ঘটনাটি ঘটেছে বলিভিয়ার পোতোসির চায়ান্ত শহরে ৷ কমিক বইয়ের গল্প ও সিনেমায় দেখানো ঘটনা অনুযায়ী স্পাইডারম্যান হতে তিন ভাই মিলে মাকড়শার কামড় খাওয়ার পরিকল্পনা করে ৷ ৮, ১০ ও ১২ বছরের তিন দস্যি মিলে সেই মতোই ব্ল্যাক উইডো মাকড়শা যোগাড় করে তার কামড় খায় ৷ মারাত্মক বিষাক্ত এই মাকড়শার কামড়ে তিন জনের শরীরেই ছড়িয়ে পড়ে মারাত্মক বিষ ৷ হাসপাতালে চলে যমে মানুষে লড়াই ৷

ন্যাশনাল জিওগ্রাফি পত্রিকার মতে, ব্ল্যাক উইডো মাকড়শা দুনিয়ার অন্যতম ভয়ঙ্কর এবং মারাত্মক বিষাক্ত মাকড়শা ৷ জানা গিয়েছে, যখন বাড়িতে কেউ ছিল না, বাচ্চাগুলির মা-ও কাজে বাইরে গিয়েছিলেন, তখনই ব্ল্যাক উইডো মাকড়শা নিয়ে নিজেদের এক্সপেরিমেন্ট শুরু করে তিন খুদে ৷ মার্ভেল সুপারহিরো স্পাইডারম্যান হওয়ার নেশায় বুঁদ তিন ভাই লাঠি দিয়ে ক্রমাগত খোঁচাতে থাকে ৷ ক্ষুব্ধ ব্ল্যাক উইডো মাকড়শাটি তিনজনকে আক্রমণ করে এবং কামড়ে দেয় ৷ সঙ্গে সঙ্গে বিষ ছড়িয়ে পড়ে বাচ্চা তিনটির শরীরে ৷ বিষের অসহ্য জ্বালায় অসুস্থ হয়ে পড়ে তিনজন ৷ ঘটনার খানিকক্ষণের মধ্যেই ছেলেগুলির মা বাড়ি ফিরে দেখেন বাচ্চাগুলির অবস্থা দেখে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান ৷ সেখান থেকে পরিস্থিতি আশঙ্কাজনক দেখে ভর্তি করা হয় হাসপাতালে ৷

বিষের প্রভাবে মারাত্মক জ্বর ও মাংসপেশীর যন্ত্রণার ছটফট করতে থাকে তিন ভাই ৷ অবস্থার মারাত্মক অবনতি হওয়ায় তিনবার তিন হাসপাতালে স্থানান্তরিত করতে হয়েছে বলে বলিভিয়ার স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর ৷ অবশেষে একসপ্তাহ যমে মানুষে লড়াইয়ের পর আপাতত সুস্থ হয়ে উঠছে বলে খবর ৷

ঘটনা শুনে মনোবিদরা বলছেন, বাচ্চার অনেক বেশি কল্পনাপ্রবণ হয় ৷ তারা যা দেখে বা পড়ে সেটাকেই বেশিরভাগ সময় বাস্তব বলে ভেবে বসে ৷ কার্টুনে দেখানো ঘটনাকেই সত্যি বলে ধরে নেয় ৷ তাই এমন দুর্ঘটনা এড়াতে অভিভাবকদের আরও সচেতন হওয়া প্রয়োজন ৷

Published by: Elina Datta
First published: May 28, 2020, 2:21 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर