corona virus btn
corona virus btn
Loading

আশার আলো! করোনা রুখতে এই প্রথম আমেরিকায় শুরু হল ওষুধ প্রয়োগ, ১০০০ জনের উপর হল ট্রায়াল

আশার আলো! করোনা রুখতে এই প্রথম আমেরিকায় শুরু হল ওষুধ প্রয়োগ, ১০০০ জনের উপর হল ট্রায়াল
প্রতীকী চিত্র ।

এই প্রথম রেমডিসিভির ওষুধ প্রয়োগ শুরু হল পরীক্ষামূলকভাবে । জরুরি ভিত্তিতে ওষুধ প্রয়োগের অনুমতি দিল FDA । স্বীকৃতি দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও ।

  • Share this:

#ওয়াশিংটন: করোনা ঠেকাতে ওষুধ প্রয়োগ শুরু করল আমেরিকা । এই প্রথম রেমডিসিভির ওষুধ প্রয়োগ শুরু হল পরীক্ষামূলকভাবে । জরুরি ভিত্তিতে ওষুধ প্রয়োগের অনুমতি দিল FDA । স্বীকৃতি দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও । ইতিমধ্যেই ১০০০ জনের উপর ওষুধ প্রয়োগ হয়েছে । একদিকে করোনার থাবা প্রতিদিনই একটু একটু করে ভয়ঙ্কর হচ্ছে । বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৩৪ লক্ষ। মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২ লক্ষ ৩৯ হাজার । তার মধ্যে শুধু আমেরিকাতেই মৃত প্রায় ৬৫ হাজার । যেন মৃত্যুর খেলা চলছে গোটা বিশ্ব জুড়ে । সংক্রমণ রুখতে বিশ্বের বেশিরভাগ দেশেই চলছে লকডাউন । ঘরবন্দি মানুষের এখন শুধু একটাই প্রার্থনা, এই রোগের কার্যকরী ভ্যাকসিন দরকার যত শীঘ্র সম্ভব । বিজ্ঞানীরা দিনরাত এক করে জীবনপাত করছেন করোনার ওষুধ আবিষ্কারের কাজে । কিছু কিছু ক্ষেত্রে মিলছে সাফল্যও । আর এবারের এই সাফল্য এসেছে এক ভারতীয় বংশোদ্ভূত নারীর হাত ধরে । ইবোলার ওষুধ রেমডেসিভিরের তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল চালিয়েছে স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটি। কোভিড পজিটিভ রোগীদের উপরে দু’রকম ডোজে ক্লিনিকাল ট্রায়াল করা হয়েছে । আর চিকিৎসদের দাবি দু’টি ক্ষেত্রেই মিলেছে সাফল্য । আর এই রেমডেসিভির ট্রায়ালের নেতৃত্বে রয়েছেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত ডাক্তার ও গবেষক অরুণা সুব্রহ্মণ্যম। রেমডেসিভির ওষুধ করোনা রোগীদের উপর কার্যকরী হচ্ছে বলেই দাবি করেছে এই ওষুধের নির্মাতা সংস্থা গিলেড সায়েন্সেস। স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটি স্কুল অব মেডিসিনের ইমিউনোকম্প্রোমাইজড হোস্ট ইনফেকসিয়াস ডিজিজ বিভাগের প্রধান ও চিফ ক্লিনিকাল অফিসার অরুণা সুব্রহ্মণ্যম জানিয়েছেন, এই ওষুধটি দু’টি ভাগে রোগীদের উপর প্রয়োগ করা হয়েছিল । একটি ভাগকে পাঁচ দিন, অন্যভাগকে দশদিন ওষুধটি দেওয়া হয় । দু’টি ক্ষেত্রেই একই রকম সাফল্যে এসেছে ।

ফলে এখন এই ওষুধের সাফল্যের দিকেই তাকিয়ে রয়েছে গোটা বিশ্ব ।

First published: May 2, 2020, 8:16 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर