‘সন্ত্রাসের আঁতুড়ঘর পাকিস্তান কাশ্মীর নিয়ে মিথ্যে অভিযোগ করছে’, রাষ্ট্রসংঘে সম্মুখসমরে ভারত-পাকিস্তান

রাষ্ট্রসংঘে ভারত-পাক সংঘাতের আঁচ। ভারতকে কোণঠাসা করতে মানবাধিকার কাউন্সিলের অধিবেশনে কাশ্মীর ইস্যুকে হাতিয়ার করল পাকিস্তান। পাল্টা জবাব দিয়েছে ভারতও।

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 10, 2019 09:13 PM IST
‘সন্ত্রাসের আঁতুড়ঘর পাকিস্তান কাশ্মীর নিয়ে মিথ্যে অভিযোগ করছে’, রাষ্ট্রসংঘে সম্মুখসমরে ভারত-পাকিস্তান
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 10, 2019 09:13 PM IST

#জেনেভা: রাষ্ট্রসংঘে ভারত-পাক সংঘাতের আঁচ। ভারতকে কোণঠাসা করতে মানবাধিকার কাউন্সিলের অধিবেশনে কাশ্মীর ইস্যুকে হাতিয়ার করল পাকিস্তান। পাল্টা জবাব দিয়েছে ভারতও।

এ মাসের শেষে নিউইয়র্কে রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ সভায় সম্মুখসমরে নরেন্দ্র মোদি ও ইমরান খান। দুজনেই রাষ্ট্রসংঘের মঞ্চ থেকে ভাষণ দেবেন। তার আগে সুৎজারল্যান্ডের জেনিভায়, রাষ্ট্রসংঘেরই মানবাধিকার কাউন্সিলের অধিবেশনে পারদ একেবারে তুঙ্গে। জম্মু-কাশ্মীরে তিনশো সত্তর ধারা বাতিলের বিরোধিতায় শুরু থেকেই সরব পাকিস্তান। বিভিন্ন দেশের দোরে দোরে তারা ঘুরেছে। চাইছে, ভারতকে আন্তর্জাতিক আঙিনায় কোণঠাসা করতে। সেই মতো মঙ্গলবার রাষ্ট্রসংঘের মঞ্চকে ব্যবহার করতে ছাড়েনি তারা। কাশ্মীরে মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে এই অভিযোগকে হাতিয়ার করে সুর চড়ান পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি।

কাশ্মীরে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে ভারত। পাল্টা পাকিস্তানকেও নিশানা করেছে বিদেশ মন্ত্রক। রাষ্ট্রসংঘে ভারতের জবাব, ‘জম্মু-কাশ্মীর ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় ৷ জম্মু-কাশ্মীরের উন্নয়নে ভারত উদ্যোগ নিয়েছে ৷ জম্মু-কাশ্মীরে মানবাধিকার সুরক্ষিত ৷ কেউ জম্মু-কাশ্মীরের বিষয়ে নাক গলাতে পারে না ৷ সীমান্তপারের সন্ত্রাসের শিকার ভারত ৷ সন্ত্রাসবাদী গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে ৷ ভারতের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রসংঘে মিথ্যা অভিযোগ ৷ ভুয়ো তথ্য দিয়ে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা ৷’

ভারতকে আক্রমণ করতে গিয়ে এ দিন পাকিস্তানেরই বিড়ম্বনা বাড়ান সে দেশের বিদেশমন্ত্রী। কাশ্মীরকে ভারতের অঙ্গ বলে ফেলেন। গত রবিবার জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে যৌথ বিবৃতি জারি করে পাকিস্তান ও চিন। দাবি করে, জম্মু-কাশ্মীরকে ইতিহাস থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। এই বিবৃতিও এ দিন খারিজ করেছে ভারত। বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র রবীশ কুমার পাল্টা দাবি করেছেন, চিন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডর আসলে ভারতীয় ভূখণ্ডেরই অংশ। ১৯৪৭ সাল থেকে যা অবৈধভাবে দখল করে রেখেছে পাকিস্তান।

First published: 09:13:11 PM Sep 10, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर